kalerkantho


কাবাইয়েরো ও মেসিকে দেখে বিস্মিত

২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



কাবাইয়েরোর এই ভুল অমার্জনীয়। এর সঙ্গে ‘অকর্মণ্য’ মেসি। দুয়ে মিলেই হয়েছে আর্জেন্টিনার এই ভরাডুবি। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলের হার তাদের জন্য যেমন লজ্জাকর তেমনি আমাদের দেশের অগুনতি আর্জেন্টিনা সমর্থকদের জন্য বড় দুঃখের। সেদিক থেকে আমাদের ব্রাজিল সমর্থকদের খুব আনন্দের দিন কেটেছে গতকাল।

বিশ্বকাপে উইলি কাবাইয়েরোর ভুলটা একদম বেমানান। তা-ও আবার শিরোপাপ্রত্যাশী আর্জেন্টিনা দলের গোলরক্ষক তিনি। সামান্য একটা ব্যাকপাস সামাল দিতে পারবেন না, এটা হয় নাকি! তবে আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসের বড় ঘাটতি ছিল। কাউকে দেখলাম না ভালো খেলতে। শুরু থেকে মনে হচ্ছিল তারা সব দিক দিয়ে ব্যাকফুটে। খেলায় কোনো ছন্দ নেই, নেই মানসিক জোরও। এটা কোনো বড় দলের চরিত্র হতে পারে না। অবিশ্বাস্য লেগেছে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসির খেলা। তাকে না হয় মার্কিংয়ে রেখেছে, কিন্তু দল গোল খাওয়ার পর তার মধ্যে ম্যাচে ফেরার তাড়ানা দেখিনি। সেরা ফুটবলার সব সময় শ্রেষ্ঠত্ব দেখানোর জন্য মরিয়া হবে, কিন্তু তার সেই চেষ্টা দেখিনি। এই ম্যাচে আক্ষরিক অর্থে আর্জেন্টিনা দশজন নিয়ে খেলেছে।

আর কোচ হোর্হে সাম্পাওলির কৌশলও আমার ভালো লাগেনি। প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ড মেসিকে আটকে দিয়ে সফল হয়েছে। এটা কোচের জন্য একটা সংকেতও। পরের ম্যাচেও স্বাভাবিকভাবে প্রতিপক্ষ সেই কৌশল নিতে পারে। সুতরাং তাকে বাইরে রেখে কিভাবে গোল বের করব, কিংবা এই মার্কিং এড়ানোর জন্য কিভাবে খেলতে হবে, সেই অঙ্ক তো কোচের করে রাখতে হবে। তবে সব দিক বিবেচনায় নিয়ে দেখলে, আর্জেন্টিনার এই দলে প্রতিভার ভীষণ ঘাটতি আছে। তাদের তুলনায় ক্রোয়েশিয়া সব বিভাগে এগিয়ে ছিল। পুরো মাঝমাঠ দখল নিয়ে খেলেছে, আর্জেন্টিনার ডিফেন্সকে চাপে ফেলে গোল বের করেছে। আর্জেন্টিনা খাদের কিনারে পৌঁছে গেলেও কিন্তু এখনো সুযোগ একদম শেষ হয়ে যায়নি।

অন্যদিকে ব্রাজিল ২-০ গোলে কোস্টারিকাকে হারিয়ে সব চাপ-তাপ ঝেড়ে ফেলেছে। সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ড্র করে শুরু হলেও তারা গতকাল একচেটিয়া খেলেছে। আর কোস্টারিকা শুধু আক্রমণ ঠেকিয়ে গেছে। খেলাটা হয়েছে গোলরক্ষক নাভাসের সঙ্গে ব্রাজিলের। ৯০ মিনিট ঠেকিয়ে পার করে দিলেও ৬ মিনিটের ইনজুরি টাইমে হার মেনেছেন। এই সময়ে আবার দুই গোল! ছোট দলের বিপক্ষে ম্যাচগুলোতে ডিফেন্স ভেঙে প্রথম গোল বের করাটাই কঠিন। সেটা হয়ে গেলেই, আরো দু-তিনটি হয়ে যায়। নক আউটে অবশ্য রক্ষণাত্মক খেলা কঠিন, তখন আরো ওপেন খেলা হবে বলে মনে হয়। তার আগেই সেলেসাওরা বুঝিয়ে দিয়েছে তাদের সামর্থ্য।

জাতীয় দলের সাবেক তারকা



মন্তব্য