kalerkantho


ভাইকিংদের সামনে আফ্রিকার দৈত্য!

২২ জুন, ২০১৮ ০০:০০



ভাইকিংদের সামনে আফ্রিকার দৈত্য!

নাইজেরিয়াকে বলা হয় ‘জায়ান্ট অব আফ্রিকা’! আফ্রিকা মহাদেশে সবচেয়ে বেশি লোকের বসবাস নাইজেরিয়ায়, বিশ্বের সপ্তম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ। এখানে প্রতি বর্গকিলোমিটারে বাস করে গড়ে ১৯৭ জন! অন্যদিকে আইসল্যান্ড ইউরোপের সবচেয়ে কম মানুষের দেশগুলোর একটি। এখানে প্রতি বর্গকিলোমিটারে বাস করে চারজন মানুষেরও কম! পাঁচ শর বেশি নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী বসবাস করে নাইজেরিয়ায়। অন্যদিকে আইসল্যান্ডের ৯৩ শতাংশ মানুষই স্থানীয় আইসল্যান্ডিক জাতীয়তার! ভূ-প্রকৃতি আর জলবায়ুতেও বিপ্রতীপ অবস্থান। এই প্রবল বৈসাদৃশ্যের দুটি দেশ যখন আজ ভোলগাগ্রাদে মুখোমুখি হবে, তখন কিন্তু আইসল্যান্ডই থাকবে এগিয়ে! কারণ প্রথম ম্যাচে তারা আর্জেন্টিনাকে রুখে দিয়ে যে পেয়ে গেছে ১ পয়েন্ট। অন্যদিকে নাইজেরিয়া এখনো পয়েন্টের খাতা খোলারই অপেক্ষায়।

আইসল্যান্ড ও নাইজেরিয়া, দুই দেশের বৈপরীত্যের মতোই তাদের এবারের বিশ্বকাপ-ভাগ্য। আর্জেন্টিনার বিপক্ষে যা কিছু হলে পয়েন্ট পেতে পারে আইসল্যান্ড, হয়েছে তার সবই। গোল হজমের পর গোল শোধ করেছে তারা, এমনকি ঠেকিয়ে দিয়েছে লিওনেল মেসির পেনাল্টি কিকও। উল্টো দিকে নাইজেরিয়া ষোলোকলা পূর্ণ করেছে ব্যর্থতার। দুটি গোলের একটি আত্মঘাতী, অন্যটি হজম করেছে পেনাল্টি কিক থেকে। নাইকির বানানো নাইজেরিয়ার বিশ্বকাপ জার্সি ঝটপট বিকিয়ে গেলেও সেটা কত দিন সমর্থকরা গায়ে রাখতে পারবে, সেই প্রশ্নই চলে আসছে সামনে। বরফের রাজ্যে অস্ত গেছে আর্জেন্টিনার সূর্যের হাসি। সেখানে সুপার ইগলরা কি পারবে ডানা মেলে উড়তে? অধিনায়ক জন ওবি মিকেল তো বলছেন ‘পারবে’, ‘আমরা তৈরি, আমরা একবগ্গা, আমরা জিততে চাই। আমরা জানি, টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে আইসল্যান্ডকে আমাদের হারাতেই হবে। তার জন্য যা যা প্রস্তুতি নেওয়া দরকার, আমরা অনুশীলনে সবই করেছি।’

কদিন আগেই পোল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়েছে আফ্রিকার আরেক প্রতিনিধি সেনেগাল, ‘তেরঙ্গার সিংহ’দের কাছ থেকেই অনুপ্রেরণা খুঁজতে পারে সুপার ইগলরা। সেনেগালের জয়ের পর নাইজেরিয়ার সাবেক ফুটবলার নোয়ানেকা কানু বলেছিলেন, ‘শাবাশ আফ্রিকা’! তাঁর নিজের দেশের ফুটবলাররা কি আরেকবার তাঁকে এমন কিছু বলার সুযোগ এনে দিতে পারবেন? নাইজেরিয়ার ফরোয়ার্ড ওডিওন ইগলাহোও বলছেন, ‘আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি হবে ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে ম্যাচের চেয়ে আলাদা। আমরা আক্রমণ করে খেলব, যাতে সুযোগ তৈরি হয়। কারণ সুযোগ তৈরি হলেই গোল করা সম্ভব।’

আজ আলাদা করে চোখ থাকবে আইসল্যান্ডের গোলরক্ষক হ্যালগ্রিডসনের ওপরও। মেসির পেনাল্টি ঠেকিয়ে দেওয়া এই চলচ্চিত্র নির্মাতা রাতারাতি বনে গেছেন তারকা, তিনি নিজেও খানিকটা বিব্রত দলের সাফল্য ছাপিয়ে কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসায়, ‘আমি জানি পেনাল্টিটা বাঁচিয়ে ফেলায় আমাকে নিয়েই কথা হচ্ছে বেশি। কিন্তু এটা ভুলে যাবেন না, বাকি ১০ জনও কিন্তু তাদের ফুসফুসের সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে ৯০টি মিনিট দৌড়েছে আর মাঠে একেবারে জান লড়িয়ে দিয়েছে।’ আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গোলটা করেছিলেন ফিনবোগাসন। তারকাখ্যাতি বেড়ে গেছে তাঁরও, ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার বাড়ছে তরতরিয়ে, ‘খেলা শেষে ড্রেসিংরুমে গিয়ে মোবাইল খুলে দেখি আমার ফলোয়ার বেড়ে ৭০ হাজার! বিশ্বাস করতে না পেরে রিফ্রেশ দিই, এরপর দেখি সেটা ৭৫ হাজার!’

ভাইকিং ক্ল্যাপ দিয়ে ইউরোতে মোহিত করা আইসল্যান্ডাররা প্রথম ম্যাচেই রুখে দিয়েছে আর্জেন্টিনাকে। সুপার ইগলদের ডানাও কি বরফে জমিয়ে দিতে পারবে তারা? নাকি আফ্রিকার দৈত্যই করবে ভাইকিং বধ! ফিফা, এএফপি



মন্তব্য