kalerkantho


সংক্ষিপ্ত

কেমন করবে কলম্বিয়া!

১১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



কেমন করবে কলম্বিয়া!

২০১৪ বিশ্বকাপে কলম্বিয়া দলের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলাটা অনেকেরই মনে থাকবে ভিন্ন একটি কারণে! ব্রাজিল বিশ্বকাপে, শেষ আটের ম্যাচে যে কলম্বিয়ার কামিলো সুনিগার আঘাতেই মাঠে লুটিয়ে পড়েছিলেন নেইমার। সেলেসাওদের সেরা তারকার বিশ্বকাপের সেখানেই ইতি। একই ম্যাচে অধিনায়ক থিয়াগো সিলভাও আসরের দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখায় হারিয়ে ফেলেন সেমিফাইনালে খেলার অধিকার। রীতিমতো ঢাল-তলোয়ারহীন হয়েই সেমিফাইনালে জার্মানির সামনে পড়ে ব্রাজিল, এরপর তো সেই ‘সপ্তকাণ্ড’! এবারও কলম্বিয়া রাশিয়ার টিকিট পেয়েছে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের চতুর্থ দল হয়ে। অর্থাত্ শেষ সরাসরি টিকিটটাই পেয়েছে ‘লস কাফেতেরোস’রা। এবারও কোচ সেই হোসে পেকারম্যান। আর্জেন্টাইন এই কোচ জানিয়েছেন, আগের চেয়ে ভালো করাটাই তাদের এবারের লক্ষ্য।

‘সবাই সব সময় সব ম্যাচ জিততে চায়। তবে সেটা তো সম্ভব নয়। জীবনের মতো ফুটবলেও উত্থান-পতন আছে। তবে সব প্রতিপক্ষের জন্যই তৈরি থাকতে হবে। আমরা সেটাই করেছি’—এভাবেই কলম্বিয়ার প্রস্তুতির ফিরিস্তি দিয়েছেন পেকারম্যান। গ্রুপে তিন প্রতিপক্ষ জাপান, পোল্যান্ড ও সেনেগাল। তাদের ব্যাপারে পেকারম্যানের মূল্যায়ন, ‘কাকতালীয়ভাবে জাপানের সঙ্গে আমরা গত বিশ্বকাপেও খেলেছিলাম। ম্যাচটি জিতেছিলাম ৪-১ গোলে, যেটা ছিল গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ। এবার আমরা প্রথম ম্যাচটিই খেলব তাদের বিপক্ষে। তারা খুব চমত্কার একটা এশিয়ান দল, বেশ গতিশীল ফুটবল খেলে। পোল্যান্ড ইউরোপের বেশ প্রতিষ্ঠিত দল, তাদের সমৃদ্ধ ঐতিহ্য আছে। আমরা দ্বিতীয় রাউন্ডের কথা বলতেই পারি। গতবার আমরা কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিলাম, তবে সেসব এখন ইতিহাস! এখন আমাদের বর্তমান আসরেই মনোযোগ ফেরাতে হবে।’ কলম্বিয়ার নতুন ইতিহান গড়ার পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিতে হবে হামেস রোদ্রিগেসকে। পেকারম্যানও খুব ভরসা করছেন বায়ার্ন মিউনিখের এই ফুটবলারের ওপর, ‘হামেস সর্বোচ্চ মানের ফুটবলার। তবে এটাও বলছি, কাঙ্ক্ষিত ফল পেতে হলে গোটা দলকেই ভালো খেলতে হবে। যেটা ফুটবলের মতো দলগত খেলায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া



মন্তব্য