kalerkantho


যাঁর মাঝে নিজের ছায়া দেখেন রোনালদো

২৮ মে, ২০১৮ ০০:০০



যাঁর মাঝে নিজের ছায়া দেখেন রোনালদো

পোর্তোর হয়ে প্রতিভার ছাপ রেখেছেন, পর্তুগালের হয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে গোল করছিলেন সমান তালে। তাই ইতালিয়ান জায়ান্ট এসি মিলানও ভাগ্য ফেরানোর আশায় এই তরুণ স্ট্রাইকার আন্দ্রে সিলভাকেই দলে নিয়েছিল চড়া দাম দিয়ে। কিন্তু মৌসুম শেষে তাদের হিসাবের খাতায় গরমিল। ২৪ ম্যাচে মাত্র দুইবার জাল খুঁজে পেয়েছেন রোনালদোর জাতীয় দলের পার্টনার।

সিলভা নিজেও মিলান অধ্যায় নিয়ে হতাশায়। সেখানে সৈকতের দেখা পাননি। সমুদ্রের হাওয়ায় গা জুড়ানো নাকি তাঁর আশৈশবের অভ্যাস। তাতে এ মৌসুমে ঠিকানা বদল হয়েও যেতে পারে তাঁর। কিন্তু নতুন করে সব শুরুর আগে যে জাতীয় দলের হয়ে সবচেয়ে বড় মিশনে নেমে পড়তে হচ্ছে তাঁকে। রাশিয়ায় যাচ্ছে পর্তুগাল ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে। ফ্রান্সের ওই আসরের ফাইনালে গোল করা এদেরের জায়গা হয়নি বিশ্বকাপ দলে, সুযোগ পাননি অভিজ্ঞ ন্যানিও। কোচ ফের্নান্দো সান্তোস এই আন্দ্রে সিলভার মতো তরুণের ওপরই ভরসা রেখেছেন। পর্তুগাল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাছাই পেরিয়েছেন। তাতে রোনালদো মূল ভূমিকায় ছিলেন সন্দেহ নেই, তাঁর পাশে সিলভাই ছিলেন সবচেয়ে উজ্জ্বল। পুরো উয়েফা বাছাইয়ে সেরা গোলদাতার তালিকায় শীর্ষ পাঁচে পর্তুগালের দুজন। রোনালদোর পর অন্য নামটি সিলভার। ১০ ম্যাচে ৯ গোল তাঁর। এর মধ্যে হ্যাটট্রিকও আছে ফ্যারো আইল্যান্ডের বিপক্ষে। বিশ্বকাপ নিয়ে সিলভা নিজে দারুণ ইতিবাচক। ইউরোর ট্রফি ছোঁয়া হয়নি তাঁর, রাশিয়ায় সেই স্বপ্ন পূরণ করতে চান, ‘বিশ্বকাপ জয়ই আমার স্বপ্ন। যদিও জানি এটি খুবই কঠিন কাজ। স্পেন, ইরান, মরক্কোকে নিয়ে আমাদের গ্রুপটাও কঠিন। তবে নিজেদের সামর্থ্যে আস্থা আছে আমাদের। রাশিয়ায় আমরা নিশ্চয় ফুর্তি করতে যাব না।’

সিলভার সামর্থ্যে আস্থা আছে বলে সান্তোসও তাঁকে দলে নিতে দ্বিধা করেননি। ৬ ফুট ১ ইঞ্চি উচ্চতার ২২ বছর বয়সী স্ট্রাইকার পেনাল্টি এরিয়ায় যেমন স্বচ্ছন্দ তেমনি দ্রুতগতির, হেডেও দারুণ কার্যকর। রোনালদোর পাশে থেকে পারফরম করছেন তিনি পর্তুগাল দলে। তাতে তাঁর টিমম্যানশিপও উতরে গেছে এর মধ্যে। খোদ রোনালদো সিলভার প্রতিভাকে দেখেছেন অনেক বড় করে। এই মৌসুমের শুরুতে যেমন বলেছেন, ‘আমি আমার বুটজোড়া তুলে রাখলেও পর্তুগালের ভাবনা নেই। কারণ তারা আরেক অসাধারণ স্ট্রাইকার আন্দ্রে সিলভাকে পেয়ে গেছে এর মধ্যে।’ রোনালদো নিজে উত্তরসূরির ব্যাটন তুলে দিয়েছেন যাঁকে, সেই সিলভার তরুণ কাঁধে এবার বিশাল দায়িত্ব রাশিয়ায়। প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কঠোর পরিশ্রম করে, পারফরম্যান্স দিয়েই রোনালদোর কথার মান রাখবেন। তার জন্য সেরা মঞ্চটাই পাচ্ছেন এবার বিশ্বকাপে। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় দিনেই স্পেন-পর্তুগাল মুখোমুখি হবে, গ্রুপ পর্বের অন্যতম হেভিওয়েট ম্যাচেরই তকমা পাচ্ছে সেটি। দুই সেন্টার ফরোয়ার্ডের একজন হিসেবে সিলভার একাদশে থাকার সম্ভাবনাই বেশি। সে ক্ষেত্রে প্রথম ম্যাচ থেকেই শুরু হবে তাঁর নিজেকে মেলে ধরার পালা।



মন্তব্য