kalerkantho



সেমিতে চোখ রেখে নামছে বাংলাদেশ

২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



সেমিতে চোখ রেখে নামছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : নেপাল টানা দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে গেলে গতকালই সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলত বাংলাদেশ। সেটি হয়নি। মালদ্বীপকে হারিয়েছে তারা ৩-০ সেটে। এই মালদ্বীপ টুর্নামেন্টে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে আজ ঝাঁপাবে নিশ্চিতভাবেই। তাই সেমিফাইনালে ওঠার পথে টানা দুই ম্যাচ হারা মালদ্বীপের বিপক্ষেও ঢিলেমির সুযোগ নেই বাংলাদেশের।

কাল হরশিত, মাসুদরা মাঠে বসেই দেখেছেন নেপাল-মালদ্বীপ ম্যাচ। পিছিয়ে পড়েও যে নেপালকে তারা হারিয়েছে, মালদ্বীপের বিপক্ষে তাদের সহজ জয় দেখে আজকের ম্যাচ নিয়ে অবশ্য নির্ভারই থাকার কথা তাঁদের। তবে বাংলাদেশ কোচ আলিপোর আরোজি জোর দিয়েছেন ভালো খেলার দিকে, ‘দ্বিতীয় ম্যাচে আমি উন্নতি দেখতে চাই। আরো ভালো মানের খেলা প্রত্যাশা আমার দলের কাছে।’

নেপাল-মালদ্বীপ ম্যাচের আগে আগে মিরপুর ইনডোরে তুর্কমেনিস্তান-কিরগিজস্তানের প্রথম ম্যাচটিও দেখেছে বাংলাদেশ দল। খেলোয়াড়দের পুরো সময় আসনে থাকতে কড়া নির্দেশ ছিল কোচের। দলকে টুর্নামেন্টে মনঃসংযোগ ধরে রাখা তার একটা উদ্দেশ্য। মধ্য এশিয়ার ওই দুটি দলের ‘উঁচু মানের ভলিবল’ দেখাটাও ছিল বিশেষ অভিজ্ঞতা। আরোজি রীতিমতো মুগ্ধ সেই ম্যাচে, ‘খুবই উপভোগ্য একটা ম্যাচ হয়েছে। একেবারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। শেষ মুহূর্তে গিয়ে সেট নির্ধারিত হয়েছে প্রতিবার। দুটি দলই উঁচু মানের ভলিবল খেলেছে এই ম্যাচে।’ ম্যাচে ৩-০তে হেরেছে কিরগিজস্তান। কিন্তু মাঠের খেলা বলবে অনায়াসে সেটা কিরগিজদের জয়ের ব্যবধানও হতে পারত। সেট পয়েন্টগুলো দেখুন না, ২৫-২৩, ৩৫-৩৩ ও ২৮-২৬। গ্রুপ পেরিয়ে এই দলগুলোকেই সামনে পাবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। মালদ্বীপের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটা সেই পথে বাধা হবে না ভেবেই হয়তো খেলোয়াড়দের তাতে মনোযোগী রাখা। সেমিফাইনালের আগে ‘উন্নতি’র তাগাদাটাও হয়তো সে কারণেই।

ইরানি কোচ অবশ্য বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের পারফরম্যান্স নিয়ে যথেষ্টই খুশি। বিশেষ করে প্রথম সেটে পিছিয়ে পড়ে যেভাবে ম্যাচ জিতেছেন হরশিত, তাতে তাঁরা বাহবাই পেয়েছেন কোচের কাছ থেকে, ‘প্রথম সেটে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ যেভাবে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে, তাতে সত্যি আমি খুশি। সামনের ম্যাচগুলোর জন্য এই পারফরম্যান্স আমাদের আত্মবিশ্বাসী করবে নিশ্চিত।’ বাংলাদেশ অধিনায়ক হরশিত বিশ্বাসের কণ্ঠেও একই সুর, ‘নেপালের বিপক্ষে প্রথম সেটটাই আমরা কিছুটা এলোমেলো খেলেছি। সার্ভিস কয়েকটা ভুল হয়েছে, ব্লকগুলো হচ্ছিল না। পরে কোচ যখন আমাদের ভুলগুলো ধরিয়ে দিলেন, এরপর আমরা খুব ভালোভাবেই ম্যাচে ফিরেছি। এই ম্যাচটি তাই আমাদের জন্য ভালো একটা অভিজ্ঞতা ছিল, ভবিষ্যতে আশা করি সেটা কাজে লাগবে।’ আজ মালদ্বীপের বিপক্ষেই সেই অভিজ্ঞ বাংলাদেশকে দেখার আশা।



মন্তব্য