kalerkantho


দুর্দান্ত বোল্ট-সাউদি

ইংলিশদের ৫৮ রানের লজ্জা

২৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ইংলিশদের ৫৮ রানের লজ্জা

৪-০-তে অ্যাশেজ হারের পর ইংল্যান্ডের প্রথম টেস্ট এটি। অকল্যান্ডে সেই টেস্টের শুরুটা হলো তাদের ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকেই। ম্যাচ শুরুর ঘণ্টাখানেকের মধ্যে স্কোর ২৭/৯। শেষ পর্যন্ত ২০.৪ ওভারে ৫৮ রানে অল আউট। টেস্টে থ্রি লায়ন্সের সবচেয়ে কম রানে অল আউটের মধ্যে এটি ষষ্ঠ স্থান পেয়েছে। দিন শেষে কোচ ট্রেভর বেইলিসকে বলতেই হয়েছে, ‘ভীষণ বিব্রতকর এটা আমাদের জন্য।’

ইংলিশদের এমন দুরবস্থায় ফেলতে নিউজিল্যান্ডের পেস জুটি ট্রেন্ট বোল্ট আর টিম সাউদিই ছিলেন যথেষ্ট। দুজনে মিলেই নিয়েছেন ১০ উইকেট, বোল্ট একাই ৬টি। জবাবে স্টুয়ার্ট ব্রড ক্যারিয়ারে ৪০০তম উইকেটের দেখা পেলেও কেন উইলিয়ামসনের দৃঢ়তায় দিন শেষে ব্যাটিংয়েও শক্ত অবস্থানে কিউইরা। অধিনায়ক উইলিয়ামসন অপরাজিত ৯১ রানে। ৩ উইকেটে দলের সংগ্রহ ১৭৫।

৬৯ ওভারে একটি দলের জন্য খুবই স্বাভাবিক স্কোর সেটি। অভাবিত দুর্যোগের ঘটনা ঘটে গেছে তো দিনের শুরুতেই। এলিস্টার কুককে ৫ রানে ফিরিয়ে উইকেট উৎসবের সূচনা করেছেন বোল্ট। নিজের পরের ওভারের দ্বিতীয় বলেই ইংলিশদের আরেক সেরা ব্যাটসম্যান জো রুটকেও ফিরিয়েছেন। পরের ওভারেই আবার ডেভিড মালানকে। বোল্টের এমন অগ্নিমূর্তিতেই ইংলিশদের বিপদটা টের পাওয়া যাচ্ছিল, তবু শেষ পর্যন্ত ৫৮ রানে অল আউট হওয়াটা যেন অবিশ্বাস্য। সর্বশেষ ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এর চেয়ে কম ৫১ রানে অল আউট হয়েছে ইংল্যান্ড। এর বাইরে চারটি সংক্ষিপ্ত স্কোরই গত শতকের ঘটনা। ভাগ্যিস কাল ক্রেইগ ওভারটন ব্যাটসম্যান হয়ে উঠেছিলেন। নইলে তো নিউজিল্যান্ডকে পেছনে ফেলে সংক্ষিপ্ত স্কোরের (২৬) বিশ্বরেকর্ডই করে ফেলত তারা! ৯ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে দলের সর্বোচ্চ ৩৩ রান করেছেন ওভারটন। শেষ উইকেট জুটিতে জেমস অ্যান্ডারসনকে নিয়েই ২৭ থেকে ৫৮-তে নিয়ে গেছেন স্কোরটা। ক্রিকইনফো


মন্তব্য