kalerkantho


গোল্ডেন শু রেসে এগিয়ে সালাহ

২১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



গোল্ডেন শু রেসে এগিয়ে সালাহ

‘ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু’ রেসে ফেভারিট কে? মৌসুম শুরুর আগে এ প্রশ্নে দুটি নাম অবধারিতভাবে থাকত সবার ঠোঁটের ডগায়—লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। আর মোহামেদ সালাহ? সম্ভাব্য বিজয়ীদের ৫/১০ এমনকি ২০ জনের মধ্যেও এ মিসরীয়র নাম থাকার কোনো কারণ ছিল না। অথচ ওই সোনালি বুটের লড়াইয়ে এখন তো সবচেয়ে এগিয়ে লিভারপুলের এ ফরোয়ার্ডই!

আর সেটিও কি স্পষ্ট ব্যবধানে! ইংলিশ লিগে ২৮ গোল করে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে। দ্বিতীয়তে থাকা মেসি বার্সেলোনার জার্সিতে লা লিগায় ২৫ গোল করায় তাঁর পয়েন্ট ৫০। অর্থাৎ ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শুর রেসে ৬ পয়েন্টে এগিয়ে এখন সালাহ।

মৌসুমের শুরুতে মেসি-রোনালদোর ওপর বাজি ধরার কারণ ছিল যথেষ্ট। বিশ্বসেরা ফুটবলারের মুকুটটি গত বছর সমান পাঁচবার করে ভাগাভাগি করে নিয়েছেন এ দুজন। ঠিক তেমনি ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শুর সর্বশেষ দশে সমান চারবার করে তাঁদের শ্রেষ্ঠত্ব। ২০১৩-১৪ মৌসুমে রোনালদো অবশ্য তা যৌথভাবে জিতেছিলেন লুই সুয়ারেসের সঙ্গে। এর বাইরে ২০১৫-১৬ মৌসুমে সেই সুয়ারেস এবং ২০০৮-০৯ মৌসুমে ডিয়েগো ফোরলান জেতেন পুরস্কারটি। বাকি সময়টায় রোনালদো-মেসির জয়জয়কার। এবারও তাঁদের জয়ের সম্ভাবনা এখনই উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তবে তাতে সালাহর বীরত্ব বিবর্ণ হচ্ছে না এতটুকুন।

সালাহর এ মৌসুমের বিস্ফোরণ বিস্ময়কর। মিসরের এ ফরোয়ার্ড ফুটবলবিশ্বে একেবারে অপরিচিত নন। ইংলিশ লিগের ক্লাব চেলসিতে খেলে গেছেন। তখন অবশ্য নিজেকে চেনাতে পারেননি আলাদা করে। ফিওরেন্তিনা ও রোমায় ধারে পর্যন্ত পাঠাতে হয় তাই। এ রোমায় গিয়েই কিছুটা আলো ছড়িয়েছেন। সিরি ‘এ’তে ৩৪ ম্যাচে ১৪ গোল করার পর ইতালিয়ান ক্লাব কিনে নেয় স্থায়ীভাবে। পরের বার ৩১ ম্যাচে ১৫ গোল করার পর কিনে নেয় লিভারপুল। এ সালাহ যে এবার ৩০ লিগ ম্যাচেই ২৮ গোল করবেন, কে ভেবেছিল!

রোমা থেকে লিভারপুর তাঁকে কেনে ৩৮ মিলিয়ন পাউন্ডে। আসছে দলবদলে সালাহর দাম নাকি গিয়ে ঠেকতে পারে ২০০ মিলিয়নে। রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, প্যারিস সেন্ত জার্মেই সব বড় ক্লাব ছুটছে তাঁর পেছনে। বার্সা থেকে নেইমারকে কিনতে ১৯৮ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করেছিল পিএসজি। সালাহর দলবদলের অঙ্ক সেটিকেও ছাড়িয়ে যাবে বলে গুঞ্জন।

সোনালি বুটের লড়াইয়ে আগের সপ্তাহে একই সমান্তরালে ছিলেন মেসি ও সালাহ। বার্সার হয়ে প্রথমজন সপ্তাহান্তের লিগ ম্যাচে করেছেন এক গোল, সেখানে ওয়াটফোর্ডে বিপক্ষে সালাহর লক্ষ্যভেদ চারবার। এতেই অনেকটা এগিয়ে গেছেন তিনি।

লিগে ২৮ গোল করায় ৫৬ পয়েন্ট সালাহর। ২৫ গোলে মেসির পয়েন্ট ৫০। ২৪ গোলে সমান ৪৮ পয়েন্ট টটেনহাম হটস্পারের হ্যারি কেইন, পিএসজির এদিনসন কাভানি ও লাৎসিওর চিরো ইম্মোবিলের। ২২ গোলের রোনালদো ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে বেশ খানিকটা পেছনে রয়েছেন বটে, তবে তাঁর গোল্ডেন শু জয়ের সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়ার উপায় নেই। লিগের প্রথম ১৯ ম্যাচে যেখানে করেছিলেন মাত্র চার গোল, সেখানে সর্বশেষ ৯ ম্যাচে ১৮ গোল। এমনই দুর্দান্ত ফর্মে এখন রিয়ালের রোনালদো।

লিভারপুলের সালাহ তো অমন চোখ ধাঁধানো ফর্মে মৌসুমজুড়েই। যে ফর্ম এবারের ইউরোপিয়ান ফুটবলের অন্যতম বড় চমকও। এএফপি


মন্তব্য