kalerkantho



এবার বিফলে যায়নি আশরাফুলের সেঞ্চুরি

৫ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



এবার বিফলে যায়নি আশরাফুলের সেঞ্চুরি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম সেঞ্চুরির আনন্দ তাঁর মুছে দিয়েছিল হারের বিষাদ। তবে গতকাল মোহাম্মদ আশরাফুলের সেঞ্চুরির আনন্দ দ্বিগুণ হয়েছে তাঁর দলের জয়ে। তিনি এবং ওপেনার তাসামুল হকের সেঞ্চুরিতে অগ্রণী ব্যাংককে ৫ উইকেটে হারিয়েছে কলাবাগান। মিরপুরে মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরির দেখা পাননি শাইনপুকুরের ওপেনার শাদমান ইসলাম, তবে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের বিপক্ষে ২ উইকেটে জিতেছে তাঁর দল। ওদিকে ফতুল্লায় লো স্কোরিং ম্যাচে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে খেলাঘর সমাজকল্যাণ সংস্থা।

আগের রাউন্ডেই ‘টাই’ দেখেছে এবারের প্রিমিয়ার লিগ। গতকাল রোমাঞ্চ ছড়িয়েছে মিরপুরের ম্যাচেও। শেষ ২ ওভারে জয়ের জন্য শাইনপুকুরের দরকার পড়ে ১২ রান। ক্রিজে অষ্টম উইকেট জুটিতে মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের সঙ্গে নিখাদ টেল এন্ডার রায়হান উদ্দিন। তবে মোহাম্মদ শরিফের করা ৪৯তম ওভারে সাইফের এক ছক্কার সঙ্গে খুচরো রান মিলিয়ে শাইনপুকুর ব্যবধান কমিয়ে ফেলে ১১ রান। মোহাম্মদ শহিদের করা শেষ ওভারের তৃতীয় বল বাউন্ডারিতে পাঠিয়ে চাপ আরো কমিয়ে ফেলেন রায়হান। পরে তিনি একটি সিঙ্গেল নিতে দুই দলের স্কোর সমান। কিন্তু পঞ্চম বলে সাইফ রান আউটে কাটা পড়ায় আরেকটি ‘টাই’য়ের সম্ভাবনায় রোমাঞ্চিত মিরপুর। তবে শেষ বলে রায়হানের আরেকটি বাউন্ডারি আনন্দে ভাসিয়েছে শাইনপুকুরকে। সেসময় দিনের শুরুতে ৩ উইকেটে মাত্র ২৬৮ রান করা নিয়ে আক্ষেপ করারই কথা রূপগঞ্জের। কাশ্মীরি ক্রিকেটার পারভেজ রসুল চার নম্বরে নেমে ৬৬ বলে অপরাজিত ৮৮ রানের ইনিংসের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারেননি আর কেউই। ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম ৯৩ রান করেছেন ১৩০ বল খেলে। অধিনায়ক নাঈম ইসলাম আরো সংযমী, ৩৮ রান করেছেন ৬৪ বল খেলে। তাতেই প্রত্যাশিত গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেনি রূপগঞ্জ। ওপেনার শাদমান ও উদয় কাউলের (৬১) গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে শাইনপুকুরকে জিতিয়েছেন সাইফ ও রায়হান। এই জয়ে রূপগঞ্জকে টপকে চার নম্বরে উঠে গেছে শাইনপুকুর।

বিকেএসপিতে আবার অন্য কারণে ভরাডুবি হয়েছে অগ্রণী ব্যাংকের। শাহরিয়ার নাফীস (৯৯) ও আজমীর আহমেদের (৫৮) মধ্যকার ১২৮ রানের উদ্বোধনী জুটির পরও বাকিদের ব্যর্থতায় ৯ উইকেটে ২৫৯ রানে থেমে গেছে অগ্রণী ব্যাংক। জবাবে কলাবাগানের স্কোরকার্ডেও দুজনের নাম। তবে তাসামুল (১০৬) ও আশরাফুলের (১০২*) মধ্যকার ১৮৮ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটির কারণে বাকিদের ব্যর্থতা আড়াল পেয়েছে। ৫ উইকেটের এই জয়ে অগ্রণী ব্যাংককে টপকে পয়েন্ট টেবিলের ১০ নম্বরে উঠে এসেছে কলাবাগান।

ফতুল্লায় ব্রাদার্সের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার অলক কাপালি (৬৬) ও সোহরাওয়ার্দী শুভই (৩৩*) যা একটু লড়েছেন। বাকিদের ব্যর্থতায় ৪৬ ওভারে ১৮৭ রানে গুটিয়ে গেছে গোপীবাগের দলটি। জবাব দিতে নেমে বিস্তর ঘেমেছে খেলাঘরও। মিডল অর্ডারে ভারতের অশোক মানেরিয়া দায়িত্বশীল ৫৫ রানের ইনিংসটি না খেললে ম্যাচের ফল অন্য রকমও হতে পারত। ৩ উইকেটের এই জয়ে মোহামেডানেরও ওপরে, ছয় নম্বরে। আর পয়েন্ট টেবিলের ৯ নম্বরে ব্রাদার্স।



মন্তব্য