kalerkantho



শুভাগতর সেঞ্চুরির পরও শাইনপুকুরের হার

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



শুভাগতর সেঞ্চুরির পরও শাইনপুকুরের হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আগের ম্যাচেই কলাবাগানের বিপক্ষে অলরাউন্ড নৈপুণ্যে শাইনপুকুরকে জিতিয়েছিলেন অধিনায়ক শুভাগত হোম, নিজে হয়েছিলেন ম্যাচসেরা। কাল তিনি পেয়েছেন ‘লিস্ট এ’ ক্রিকেটে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি, কিন্তু পারেননি দলকে জেতাতে। বিকেএসপিতে শাইনপুকুরের ৮ উইকেটে করা ২৮৮ রান ৫ বল ও ৫ উইকেট হাতে টপকে গেছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ফতুল্লায় মুখোমুখি হয়েছিল দুই ব্যাংক, অগ্রণী আর প্রাইম। দেলোয়ার হোসেনের কেমিওটাই জিতিয়েছে প্রাইমকে আর মিরপুরে খেলাঘরের বিপক্ষে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েও শেষ পর্যন্ত জিততে পারেনি কলাবাগান, হেরে গেছে ১৫ রানে।

শুভাগত সচরাচর যখন ব্যাট করতে নামেন, তখন সেঞ্চুরি করার মতো সময় থাকে না। তাই ঘরোয়া সীমিত ওভারের আসরে অনেক দিন খেললেও সেঞ্চুরি ছিল না তাঁর। কাল সেই আক্ষেপ হয়তো ঘুচেছে, কিন্তু দলকে জেতাতে না পারায় থেকে গেছে অতৃপ্তিই। ৬৭ রানে ৫ উইকেটের পতনের পর আফিফ হোসেন (৬৮) ও শুভাগত (১১৬) মিলে দলের সংগ্রহটাকে পৌঁছে দেন সম্মানজনক অবস্থানে। ৯৮ বলে ১২ বাউন্ডারি আর ৪ ছক্কায় ১১৬ রানের ইনিংস খেলেন শুভাগত, শাইনপুকুরের সংগ্রহ ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৮৮ রান। জবাবে মাইশুকুরের ৮৮, দেবব্রত দাসের ৭৫ আর ইয়াসির আলির অপরাজিত ৪৫ রানে ৪৯.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২৮৯ রান করে জয়ী হয় ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

শ্রীলঙ্কায় ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে আছেন সৌম্য সরকার, কিন্তু দেশেই তো রান পাচ্ছেন না! কাল প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে মাত্র ৬ রান করে বোল্ড হয়েছেন রুবেল হোসেনের বলে। যাঁকে ফেরানোর দাবিতে সরব ভক্তরা, সেই শাহরিয়ার নাফীসও বোল্ড শূন্য রানে। তাইতো প্রাইমের ৮ উইকেটে ২৭২ রানের জবাবে ২৩০ রানেই অল আউট অগ্রণী ব্যাংক। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেলোয়ার হোসেনের, ১৪ বলে ৪১ রানের ইনিংসে ৫টা ছক্কা! এরপর মিডিয়াম পেসে ৩ উইকেট, হারজিতের ব্যবধানটা গড়ে দিয়েছেন দেলোয়ারই।

মিরপুরে খেলাঘর অল আউট হয়েছিল ২৩৮ রানে। ৫ রানের জন্য ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি হয়নি আশোক মানেরিয়ার, কাল আউট হয়েছেন ৯৫ রানে। রান তাড়ায় হাসান মাহমুদ ও রবিউল ইসলামের বোলিং তোপে ৩৪ রানেই ৭ উইকেট নেই কলাবাগানের। দলীয় হাফসেঞ্চুরি নিয়েই যখন শঙ্কা, তখন ব্যাট চিতিয়ে দাঁড়িয়ে গেলেন তাইবুর রহমান (৮১) আর আবুল হাসান (৭৬)। দলকে জেতাতে পারলে দুর্দান্ত একটা ‘কামব্যাক স্টোরি’ই হতো, কিন্তু খুব কাছে এসেও যে পারেনি কলাবাগান। তারা থেমেছে ৯ উইকেটে ২২৩ রানে, খাদের কিনারা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয়ের আশা জাগিয়েও হেরেছে ১৫ রানে।



মন্তব্য