kalerkantho


নির্বাচনী হাওয়ায় জমজমাট টিটি

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



নির্বাচনী হাওয়ায় জমজমাট টিটি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : হঠাৎ জেগে উঠেছে দেশের টেবিল টেনিস। দেশি-বিদেশি খেলোয়াড়ে পল্টন উডেন ফ্লোর জিমনেসিয়াম দারুণ জমে উঠেছে। টেবিল টেনিসের লড়াই তো আছেই, সঙ্গে নির্বাচনী হাওয়ায় নাকি উন্মাতাল হয়েছে টিটি অঙ্গন।

 

গতকাল থেকে শুরু হয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়নশিপস। এই আয়োজনে ছেলেদের সিনিয়র বিভাগ ১১ দল ও প্রথম বিভাগে ২৪ দল খেলে। আর মহিলা বিভাগে হয় ৯ দলের লড়াই। নিয়ামানুযায়ী তিন বিভাগে ২১১ জন খেলোয়াড় রেজিস্ট্রেশন করেছেন। সেখানে ২৫ জন হলো ভারতীয় খেলোয়াড়। ভারতীয় র্যাংকিংয়ে চার নম্বরে থাকা অর্জুন ঘোষ খেলছেন অরুনিমার হয়ে। দুইবারের কমনওয়েলথ গেমসের সোনাজয়ী শুভজিৎ সাহা লড়বেন শেখ রাসেলের ব্যানারে। আছেন অন্যান্য রাজ্যের খেলোয়াড়ও। হঠাৎ বিদেশির আধিপত্য বেড়ে গেছে কেন? সাবেক খেলোয়াড় ও বর্তমান কোচ মোস্তফা বিল্লাহর জবাব, ‘এটা তো ফেডারেশনের নির্বাচনী বছর। তাই সব ক্লাব কার্যক্রম দেখাতে চাইছে, ভালো রেজাল্টের দিকে মনোযোগী হয়েছে। অন্যান্য সময়েও এমন টিটি প্রীতি থাকলে দেশের টেবিল টেনিস অনেকখানি এগিয়ে যেত।’

এবার রেকর্ডসংখ্যক বিদেশির অংশগ্রহণের আরেকটি কারণ হলো দেশে ভালো টিটি খেলোয়াড়ের সংখ্যা কম। শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের টেবিল টেনিস সম্পাদক এনায়েত হোসেন মারুফের বিশ্লেষণ হলো, ‘ক্লাবগুলোতে টিটি খেলোয়াড় তোলার কোনো কালচার নেই বলে আমরা খেলোয়াড় সংকটে ভুগছি। এ নিয়ে আমাদের ফেডারেশনেরও কোনো চিন্তা নেই, খেলার প্রসার এবং মানসম্পন্ন খেলোয়াড় তুলে আনার দিকে তাদের নজর নেই।’ বয়েজ ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আহসান আহমদ অমিতের দাবি, ‘আমাদের খেলোয়াড়দের দাম বেশি, তার চেয়ে ভালো মানের ভারতীয় খেলোয়াড় কম টাকায় পাওয়া যায়।’

নির্বাচনী হাওয়া এবং ক্লাবগুলোর উৎসাহে এবার খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিকও প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। গত লিগে এক লাখ ৮০ হাজার টাকা পাওয়া জাভেদ আহমেদ এবার পাচ্ছেন তিন লাখ ৮৫ হাজার টাকা। মানস চৌধুরী-ইমরান হোসেন হৃদয়রা তিন লক্ষাধিক টাকা পারিশ্রমিক নিচ্ছেন। ৩০-৪০ হাজার টাকায় গত মৌসুমে খেলা উদীয়মানরা নিচ্ছেন দেড় লক্ষাধিক টাকা। ঠিক উল্টো হওয়ার আশঙ্কাও আছে আগামী বছর। কারণ নির্বাচনী হাওয়া থেমে গেলে ক্লাবগুলোও নেতিয়ে পড়তে পারে। তাতে লিগ নিয়েও সংশয় দেখা দিতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন মোস্তফা বিল্লাহ। এটাই মুশকিল, চেয়ারকে কেন্দ্র করে দেখানেপনা হয় এখানে। অথচ ওপারের কমনওয়েলথ গেমসের সোনাজয়ী শুভজিৎ বলেছেন, ‘আমাদের দেশ গত ২৫ বছর টেবিল টেনিসের উন্নয়ন কার্যক্রমের সুফল পাচ্ছে। এখন কমনওয়েলথ গেমসে ধারাবাহিক সাফল্য আসছে। বিশ্ব র্যাংকিংয়ে সেরা ১০০ জনের মধ্যে পাঁচ-ছয়জন আছে ভারতীয়। দীর্ঘ পরিকল্পনার বিকল্প নেই।’


মন্তব্য