kalerkantho



হেরেও শেষ ষোলোয় আর্সেনাল

সামনে মিলান

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



হেরেও শেষ ষোলোয় আর্সেনাল

বুধ ও বৃহস্পতিবার হয়ে গেছে উয়েফা ইউরোপা লিগের প্রথম নক আউট পর্বের দ্বিতীয় লেগের খেলা। গ্রুপ পর্ব থেকে উন্নীত হওয়া ২৪ দলের সঙ্গে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের আট গ্রুপের তৃতীয় স্থানে থাকা আট দল মিলে ৩২ দল মুখোমুখি হয়েছিল ইউরোপা লিগের প্রথম নক আউট পর্বে। ৩২ দল থেকে ঝরে গেছে ১৬ দল, টিকে আছে বাকি ১৬। তাদের নিয়েই ড্র হয়েছে শেষ ষোলোর রাউন্ডের, যেখানে মুখোমুখি আর্সেনাল ও এসি মিলান। তবে অপ্রত্যাশিত ছিল নাপোলির বাদ পড়াটা। জুভেন্টাসের রাজত্ব ভেঙে নাপোলি যখন শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়ে রেখেছে ইতালিয়ান সিরি    ‘এ’তে, তখন আরবি লিপজিগের কাছে হেরে ইউরোপা লিগ থেকে বিদায় ম্যারাডোনার স্মৃতিমাখা ক্লাবটির।

নিজের মাঠে লিপজিগের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল নাপোলি। জার্মানি গিয়ে তারা জিতল ২-০ গোলে। তাতে অ্যাগ্রিগেট ৩-৩ সমতা, কিন্তু প্রতিপক্ষের মাঠে বেশি গোল করায় পরের রাউন্ডে উঠে গেল লিপজিগ। ফ্রান্সের মার্সেইর কাছে হেরে বিদায় নিয়েছে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল, অবশ্য তাদের বিদায়টা অনুমিতই ছিল। প্রথম লেগ ৩-১ গোলে হারার পর নিজেদের মাঠেও তারা হেরে গেছে ১-০ গোলে। রিয়াল সোসিয়েদাদকে বিদায় করে দিয়েছে রেডবুল সালজবার্গ, অ্যাগ্রিগেট ৪-৩ গোলে। রুমানিয়ার ক্লাব স্টুয়া বুখারেস্টের কাছে প্রথম লেগটা ১-০ গোলে হেরে এসেছিল ইতালির লাৎসিও, নিজেদের মাঠে ৫-১ গোলের বড় জয়ে সেই হিসাব পাল্টে তারাই যাচ্ছে শেষ ষোলোয়। বুলগেরিয়ার লুডোগোরেৎজের মাঠে ৩-০তে জিতে আসার পর সান সিরোতে এসি মিলানের জয় ১-০ গোলে। ২১ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোলদাতা ফাবিও বোরিনি।

 

আর্সেনাল রক্ষা পেয়েছে প্রথম লেগের ‘পুণ্য’কর্মে! সুইডিশ ক্লাব ওস্টারসুন্ডের সঙ্গে প্রথম লেগটা গানাররা জিতেছিল ৩-০ গোলে, যার একটি ছিল আত্মঘাতী। নিজের মাঠে ২-১ গোলে হেরে গেছে আর্সেনাল, তবে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-২ গোলে জিতে তারা উঠেছে পরের রাউন্ডে। অবশ্য এরপর যাত্রা কতটা লম্বা হয় সেটাই প্রশ্ন! কারণ ‘ঐতিহ্য’ বজায় রেখে যে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ এসি মিলানের মুখোমুখিই হচ্ছে আর্সেনাল। চ্যাম্পিয়নস লিগে বেশির ভাগ সময়ই শেষ ষোলোর দ্বৈরথে বার্সেলোনা, বায়ার্ন মিউনিখ কিংবা প্যারিস সেন্ত জার্মেইর মতো শক্তিশালী প্রতিপক্ষের সঙ্গে নক আউট পর্বের শুরুতেই আর্সেনালের দেখা হওয়াটা ছিল অবধারিত। কাল ইউরোপা লিগের ড্রতেও এসি মিলানকেই পেয়েছে আর্সেনাল। গত সাত মৌসুমেই চ্যাম্পিয়নস লিগে শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নেওয়া আর্সেনালের সঙ্গে মিলানের সবশেষ সাক্ষাতও এমনি এক হূদয়ভাঙা ম্যাচে। প্রথম লেগ ৪-০ গোলে হারের পর ফিরতি লেগে প্রথমার্ধে ৩ গোল দিয়েও শেষ পর্যন্ত জিততে পারেনি আর্সেনাল। এ ছাড়া লাৎসিও খেলবে ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে, লিপজিগের প্রতিপক্ষ জেনিট সেন্ট পিটার্সবার্গ, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের সামনে লোকোমোটিভ মস্কো, মার্সেইর লড়াই অ্যাথলেতিক বিলবাওর সঙ্গে আর ডর্টমুন্ড খেলবে সালজবার্গের সঙ্গে। উয়েফা



মন্তব্য