kalerkantho



৫ গোলে জিতেও খুশি নয় বায়ার্ন

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



৫ গোলে জিতেও খুশি নয় বায়ার্ন

অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় রীতিমতো বিধ্বস্ত বেসিকতাস। তুরস্কের দলটিকে নকআউটের প্রথম লেগে বায়ার্ন মিউনিখ উড়িয়েই দিয়েছে ৫-০ গোলে। থোমাস ম্যুলার ও রবার্ত লেভানদস্কির জোড়া গোলে চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে দিয়ে রেখেছে এক পা। তার পরও খুশি নন বায়ার্ন কোচ ইয়ুপ হেইঙ্কেস। কেননা ১৬ মিনিটে ১০ জনে পরিণত হওয়া বেসিকতাসের রক্ষণদেয়াল ভেঙে বিরতির আগে মাত্র এক গোল পাওয়া। তাই হেইঙ্কেসের অসন্তুষ্টি, ‘সবাই দেখেছে বিরতির আগে কতটা ঘাম ঝরাতে হয়েছে আমাদের। আমরা স্নায়ুর চাপে ভুগে ছন্দহীন ছিলাম। পাসিং দুর্বল ছিল। ১০ জন নিয়েও বেসিকতাস আক্রমণ করেছে। তবে বিরতির পর বদলে গেছি আমরা। দুর্দান্ত কয়েকটি গোল করেছি।’

১৬ মিনিটে ডি বক্সে ঢোকার মুখে রবার্ত লেভানদস্কিকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন বেসিকতাসের দোমাগো ভিদা। ১০ জনের দলে পরিণত হওয়ার পরও ৪২ মিনিট পর্যন্ত গোল খায়নি তারা। রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে যোগ দেওয়া পেপে দাঁড়িয়েছিলেন প্রাচীর হয়ে।  প্রতিরোধ ভাঙে বিরতির দুই মিনিট আগে। কিংসলে কোমানের পাস পেয়ে ডেভিড আলাবার ফ্লিক থেকে গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁক দিয়ে বল জালে জড়ান ম্যুলার। এর কিছুক্ষণ পর চোট পেয়ে হামেস রোদ্রিগেস মাঠ ছাড়লে নামেন আরিয়েন রবেন। তাতে বিরতির পর আক্রমণের গতি বাড়ে বায়ার্নের। ৪৯ মিনিটে লেভানদস্কির ফ্রিকিক ফেরে পোস্টে লেগে।  ৫২ মিনিটে লেভানদস্কির ক্রস থেকেই  ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডি-বক্সে ফাঁকায় থাকা কোমান। ৬৬ মিনিটে কিমিচের ক্রস থেকে দলের তৃতীয় ও নিজের দ্বিতীয় গোল ম্যুলারের। ৭৯ ও ৮৮ মিনিটে বায়ার্নের অন্য দুটি গোল পুরো ম্যাচ অসাধারণ খেলা লেভানদস্কির। ম্যাট হামলেসের শট গোলরক্ষক ঠেকালেও ফিরতি বলে লক্ষ্যভেদ এই পোলিশ ফরোয়ার্ডের। ম্যাচ শেষের দুই মিনিট আগে ম্যুলারের পাস থেকে এই মৌসুমে নিজের ২৯তম গোলটি করেন তিনি।

সব টুর্নামেন্ট মিলিয়ে টানা ১৪ ম্যাচ জয়ের পর থোমাস ম্যুলারের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল ট্রেবল জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে। জবাবে আশাবাদী বায়ার্ন অধিনায়ক, ‘২০১৩ সালে লিগ, চ্যাম্পিয়নস লিগ আর কাপ জিতেছিলাম আমরা। এবারও অসম্ভব নয় কোনো কিছু।’ তবে ট্রেবলের জন্য আরো উন্নতির তাগিদ কোচ ইয়ুপ হেইঙ্কেসের, ‘ট্রেবল জিতব কি না এখনই এ ধরনের প্রশ্ন শুধু সাংবাদিকরা করতে পারে। এই ম্যাচে লাল কার্ডটা বড় ভূমিকা রেখেছে। ভালো করতে আরো উন্নতি করতে হবে আমাদের।’ এএফপি



মন্তব্য