kalerkantho


দেশসেরা এবং বিশ্বসেরা তামিম ইকবাল

২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দেশসেরা এবং বিশ্বসেরা তামিম ইকবাল

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম ম্যাচ। তামিম ইকবাল অপরাজিত ৮৪ রান। সাকিব আল হাসান ৩৭ রান এবং ৩ উইকেট। অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের কারণে ম্যান অব দ্য ম্যাচ পরেরজন।

দ্বিতীয় ম্যাচ। তামিম এবারও ৮৪ রান। সাকিবের আবারও ব্যাটে-বলে ঝলসে ওঠা। ৬৭ রান করার পর ৩ উইকেট। আবারও ম্যাচসেরা সাকিব।

ত্রিদেশীয় সিরিজে কাল ছিল বাংলাদেশের তৃতীয় ম্যাচ। তামিমের ব্যাটে রান ফোয়ারা ছুটছেই। করলেন ৭৬ রান। সব্যসাচী সাকিবের পারফরম্যান্সও পাল্লা দিয়ে। ৫১ রানের পর আবার ৩ শিকার। টানা তৃতীয় খেলায় ম্যান অব দ্য ম্যাচ তিনি হতেই পারতেন। কিন্তু টানা তৃতীয় খেলায় তামিমের পার্শ্বনায়ক হওয়াটা কেমন দেখায়! সেই কারণে বোধ করি কাল পুরস্কার ওঠে ওই তামিমের হাতে। এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে বেশ কৌতুক করে যান বাঁহাতি ওপেনার। এরপর সিরিয়াস হয়ে আগের দিনের বলা কথাটি মনে করিয়ে দেন, ‘আমি বলেছিলাম যে রিওয়ার্ড চাই, অ্যাওয়ার্ড না। আজ ম্যাচসেরার পুরস্কার নিয়ে আমার ও সাকিবের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই ছিল। ও হাফসেঞ্চুরি করেছে, শুরুতে ২ উইকেট তুলে নিয়েছে। ম্যাচসেরার পুরস্কার ওর কাছে গেলেও আমি মন খারাপ করতাম না। কারণ ও-ও সমানভাবে এর যোগ্য।’

তামিম অবশেষে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার জিতেছেন। কিন্তু টানা তৃতীয় ম্যাচে ফিফটি পেরোনার পর সেঞ্চুরি না করার আক্ষেপেও তো পুড়েছেন। প্রথম খেলায় না হয় শতরান করার মতো যথেষ্ট রান জিম্বাবুয়ে তুলতে পারেনি। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকায় তামিমের হতাশার কারণ নেই খুব। কিন্তু পরের দুই খেলায় যে সেঞ্চুরিটা হেলায় হারালেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৮৪ রান করে আউট আর কাল ৭৬। কাল বেরিয়ে এসে মারতে গিয়ে যেভাবে স্টাম্পড হন, তাতে আফসোস আরো বাড়ার কথা।

তামিমের জন্য সান্ত্বনার প্রলেপও রয়েছে অবশ্য। কালকের ইনিংসে তো প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডেতে ছয় হাজার রান করেছেন তিনি। এখানে দেশসেরা, আরেক রেকর্ডে তো বিশ্বসেরাই। কোনো ভেন্যুতে সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে রানের মালিক যে এখন তামিম। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে সনাৎ জয়াসুরিয়ার ২৫১৪ রান ছিল এত দিনের সর্বোচ্চ। কালকের ইনিংসের পর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে তামিমের ওয়ানডে রান হলো ২৫৪৯। এক দিনে দুটি মাইলফলকে পৌঁছায় ম্যাচ শেষে এই ওপেনারের কণ্ঠে তৃপ্তির রেশ, ‘দুটো রেকর্ডের জন্য কত রান লাগবে, আজকের ম্যাচের আগেই তা জানতাম। সেটি করতে পারায় ভালো লাগছে। আগেই সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলাম, এটা আমি উদ্‌যাপন করব। যেকোনো অর্জনই উদ্‌যাপন করা উচিত। ওয়ানডেতে ছয় হাজার রান করার চেয়ে এক ভেন্যুতে সবচেয়ে বেশি রান করার রেকর্ডটি আমার কাছে এগিয়ে থাকবে।’

দেশের সবার চেয়ে এগিয়ে থাকার চেয়ে বিশ্বের সর্বকালের তাবৎ ক্রিকেটারের চেয়ে এক জায়গায় এগিয়ে থাকার রেকর্ড তামিমকে তো বেশি তৃপ্তি দিতেই পারে।



মন্তব্য