kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

দলটা গড়াই হয়েছে খেলোয়াড় তৈরির লক্ষ্যে

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দলটা গড়াই হয়েছে খেলোয়াড় তৈরির লক্ষ্যে

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের যুব দল খেলছে এবার তৃতীয় বিভাগ লিগ ফুটবলে। তৃণমূলের অন্যতম সেরা কোচ কামাল বাবু দলটির দায়িত্বে আছেন। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানিয়েছেন দলটি সম্বন্ধে বিস্তারিত

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : তৃতীয় বিভাগ লিগে তো বয়সের বাধ্যবাধকতা নেই, অনেক সিনিয়র খেলোয়াড়ও খেলেন। সাইফের যুব দলের জন্য চ্যালেঞ্জটা কেমন হবে?

কামাল বাবু : বয়সের ব্যবধানটা এখানে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। জেলা পর্যায়ের অনেক সিনিয়র ফুটবলার ঢাকায় আসে তৃতীয় বিভাগ লিগ খেলতে। সিনিয়র ডিভিশনের খেলোয়াড়দেরও চাইলে নিতে পারে ক্লাবগুলো। সেখানে আমাদের সাইফের দলটা অনূর্ধ্ব-১৭ বছরের। সুযোগ থাকলেও আমরা সিনিয়র খেলোয়াড়দের নিচ্ছি না। কারণ এই খেলোয়াড়দের আমরা গড়ে তুলছি। এই লিগটায় ওদের পারফরম্যান্স যাচাই ভালো।

প্রশ্ন : বয়সের এই ব্যবধানের কারণেই খেলোয়াড়দের ওপর নেতিবাচক প্রভাবের আশঙ্কা করছেন না?

বাবু : হ্যাঁ, সেই আশঙ্কাও থাকবে। তবে কি, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এই বয়সেই কিন্তু খেলোয়াড়রা সিনিয়র লেভেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য তৈরি হয়ে যায়। ১৭ থেকে ২৫ বছরের মধ্যেই দেখবেন সব তারকা খেলোয়াড়। আমাদের দেশে এই পরিস্থিতি হয়তো না। তবে এই খেলোয়াড়দের অনেক যত্ন নিয়ে আমরা বাছাই করেছি। তিন মাসের দীর্ঘ ক্যাম্প হয়েছে। তৃতীয় বিভাগের অন্য দলগুলো এত ভালো প্রস্তুতি নেয় বলে আমার জানা নেই।

প্রশ্ন : ইনজুরির শঙ্কা তো থাকেই?

বাবু : তা থাকে। তবে আমাদের দলটা কিন্তু এরই মধ্যে দুটি টুর্নামেন্টে খেলে ফেলেছে। মাগুরায় শেখ রাসেল ফুটবল টুর্নামেন্টে বসুন্ধরা কিংসকে আমরা হারিয়েছি। শরীয়তপুরে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব শরীয়তপুর শাখা নামে লিগ খেলে আমরা অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। তো এই খেলোয়াড়দের ধীরে ধীরে সিনিয়র পর্যায়ে খেলার অভিজ্ঞতা বাড়ছে। তা ছাড়া আমাদের প্রশিক্ষিত একদল ট্রেনার আছে। খেলোয়াড়দের ফিটনেস নিয়ে ওদের ওপরও আমি যথেষ্ট আস্থা রাখতে পারি।

প্রশ্ন : তো এই লিগে আপনাদের লক্ষ্য কী?

বাবু : আপাতত আমরা সুপার লিগে ওঠার কথা চিন্তা করছি। ১৯টা দলের মধ্যে ১০টা দলকে নিয়ে হবে সুপার লিগ। প্রথমে আমরা সেটা নিশ্চিত করতে চাই। ক্লাব কর্তৃপক্ষ কিন্তু আমাদের কোনো লক্ষ্য বেঁধে দেয়নি, যে চ্যাম্পিয়ন হতেই হবে বা রানার্স-আপ হতে হবে। এই দলটা গড়েছেই তারা নতুন খেলোয়াড় তৈরির লক্ষ্যে। ভালো খেলাটাই আমাদের কাছে তাই সবার আগে।

প্রশ্ন : মহানগরী লিগগুলোতে তো আপনার অনেক দিনের অভিজ্ঞতা, এই তৃতীয় বিভাগ লিগের মান নিয়ে আপনার কী ধারণা?

বাবু : তৃতীয় বিভাগ লিগটা যথেষ্ট প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়। কারণ জেলা পর্যায়ের অনেক ভালো খেলোয়াড় এখানে আসে। দলগুলোর চার ভাগের তিন ভাগই যথেষ্ট শক্তিশালী। আর এলাকাভিত্তিক দল বেশি হওয়ায় খেলা নিয়ে উত্তেজনাও থাকে।



মন্তব্য