kalerkantho


ইংল্যান্ডের কাছে হেরে ভারতের সামনে যুবারা

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ইংল্যান্ডের কাছে হেরে ভারতের সামনে যুবারা

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই ইংল্যান্ডের ম্যাচটি নিয়ে যত উৎকণ্ঠা। এই ম্যাচটি জিতলে ‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হওয়া যাবে ঠিকই, কিন্তু তারপর? ‘বি’ গ্রুপে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া দুই দলই আছে এবং তাদেরই কেউ চ্যাম্পিয়ন এবং অন্যজন রানার্স-আপ হবে। আবার অন্যভাবে দেখলে গ্রুপে রানার্স-আপ হলেও তো ভারত বা অস্ট্রেলিয়া; কারো না কারো সামনে পড়তেই হচ্ছে। এই শাঁখের করাত থেকে মুক্তি মিলল না বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দুই সহযোগী দেশের তরুণদের হারানোর পর ইংল্যান্ডের সামনে এসে আত্মসমর্পণ সাইফ হাসানের দলের। বড়দের সবশেষ দুটি বিশ্বকাপে বাংলাদেশই হারিয়েছে ইংল্যান্ডকে এবং দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হারলেও সিরিজের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের জয়ে তাদের গৌরবের চেয়ে বাংলাদেশের অকৃতিত্বই বেশি। সাইফ হাসানের দলটিকে হারিয়ে বহুদিন পর ইংল্যান্ড যেকোনো রকম ক্রিকেটেই বাংলাদেশকে বেশ হেসেখেলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হারাল। আগে ব্যাট করে বাংলাদেশ ১৭৫ রানেই অল আউট, জবাবে অধিনায়ক হ্যারি ব্রুক (১০২*) আর ইউয়ান উডসের (৪৮*) ১৪৮ রানের জুটিতেই হার বাংলাদেশের।

টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন সাইফ, কিন্তু টপ অর্ডারের শুরুটা দুঃস্বপ্নের মতো। ৮ রানেই নেই ৩ উইকেট। আফিফ হোসেন আর আমিনুল ইসলাম কিছুটা সামাল দিলেন বিপর্যয়, কিন্তু সেটাও খুব বেশিক্ষণের জন্য নয়। ৯৪ রানের জুটি গড়ার পর একই ওভারে বিদায় নেন দুজনেই। ইনিংস শেষের ৪ বল আগেই ১৭৫ রানে অল আউট বাংলাদেশ, ৩টি করে উইকেট ব্যাম্বার ও উডসের। বোলিংয়ের শুরুটাও ভালো করেছিল বাংলাদেশ। ৪৯ রানেই তুলে নিয়েছিল ইংল্যান্ডের ৩ উইকেট। এর পরই ব্রুক আর উড দাঁড়ালেন ঢাল হয়ে। তাতেই ১২৩ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটের জয় ইংল্যান্ডের। গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচই শেষ বাংলাদেশের, ৪ পয়েন্ট ও +০.৪৩৮ নেট রানরেট নিয়ে গ্রুপে দ্বিতীয়। রবিবার কানাডাকে হারাতে পারলে ইংল্যান্ডই হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ভারতই ফেভারিট, প্রত্যাশিত জয় পেলে তারা হবে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন। ফলে তখন ২৬ জানুয়ারি ভারতের বিপক্ষেই কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ। আইসিসি



মন্তব্য