kalerkantho


ড্র হলো দুটি ম্যাচই

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ড্র হলো দুটি ম্যাচই

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আব্দুর রাজ্জাকের কীর্তিধন্য ম্যাচটিতে ফল হওয়ার সম্ভাবনা ছিল বড্ড কম। ফল মানে বিজয়ী-বিজিতকে আলাদা করা আর কি! বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল-ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের লড়াইয়ে প্রথম তিন দিনে যে দুই দলের একটি করে ইনিংসই শেষ হয়নি। প্রত্যাশিতভাবেই তাই ড্র হয়েছে ম্যাচটি।

বিসিবি উত্তরাঞ্চল ও ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের অন্য ম্যাচটিতে বরং ফল হওয়ার সম্ভাবনা ছিল কিছুটা। প্রথম ইনিংসে ২৪ রানে এগিয়ে ছিল পূর্বাঞ্চল। দ্বিতীয় ইনিংসে সে অগ্রগামিতা মুছে ২৬০ রানে উল্টো এগিয়ে যায় উত্তরাঞ্চল। জয়ের সম্ভাবনা তখন ভালোভাবেই ছিল। মমিনুল হকের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে হারের আশঙ্কা তাড়িয়ে দেয় পূর্বাঞ্চল। বিসিএলের এই ম্যাচটিও হয় ড্র।

সিলেটে উত্তরাঞ্চল কাল শেষ দিনের খেলা শুরু করে দ্বিতীয় ইনিংসে ৮ উইকেটে ২৭৩ রানে। ১১ রান যোগ করতেই শেষ দুটি উইকেট হারায় তারা। খালেদ আহমেদ ৮৯ রানে নেন পাঁচ উইকেট। পূর্বাঞ্চলের সামনে শেষ ইনিংসে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৬১ রান। সেটি জয়ের লক্ষ্য, আসলে তো ক্রিজ আঁকড়ে থেকে ম্যাচ ড্র করলেই তা জয়সম। মমিনুলের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ঠিকই ড্র আদায় করে নেয় তারা। ৩৯ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর লিটন দাশ ও মমিনুল হক স্কোরকে নিয়ে যান এক শর ওপরে। লিটন ৪৮ রান করে আউট হলেও আস্থা হয়ে ছিলেন মমিনুল। ১৪৭ বলে ১০৭ রান করেন এই বাঁহাতি। ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে যখন আউট হন, এর কিছুক্ষণের মধ্যেই আলোর স্বল্পতায় শেষ হয়ে যায় ম্যাচ। ড্রয়ের খুশির সঙ্গে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার মমিনুলের।

বিকেএসপির ম্যাচে নিজের ৫০০তম শিকার আগের দিনই করেন রাজ্জাক। কাল আরো তিন উইকেট এই বাঁহাতি স্পিনারের। তবু প্রতিপক্ষ মধ্যাঞ্চল প্রথম ইনিংসে গড়ে ৫০৫ রানের বিশাল সংগ্রহ। দুই উইকেটে ৩১৩ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করেছিল তারা। আগের দিন রবিউল ইসলাম (৯০) ও সাদমান ইসলাম (৮৯) সেঞ্চুরির সৌরভ পেয়েও তিন অঙ্কে পৌঁছতে পারেননি। কাল একই দুঃখ রকিবুল হাসান (৮২), তানভীর হায়দার (৭৭), মেহরাব হোসেনের (৭৬)। প্রথম ইনিংসে ৫৭ রানে এগিয়ে যায় মধ্যাঞ্চল।

ম্যাচের ভাগ্যে অবশ্য ড্র লেখা হয়ে যায় আগেই। কাল দ্বিতীয় ইনিংসে দক্ষিণাঞ্চল দুই উইকেটে ১২০ রান করার পর ড্র মেনে নেয় দুই দল।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

দক্ষিণাঞ্চল-মধ্যাঞ্চল

দক্ষিণাঞ্চল : ৪৪৮ এবং ২৬ ওভারে ১২০/২ (নাফীস ৫০*, আল আমিন ২০*; এবাদত ১/১৫)।

মধ্যাঞ্চল : ১৫০.৪ ওভারে ৫০৫ (রবিউল ৯০, সাদমান ৮৯, রকিবুল ৮২, তানভীর ৭৭, মেহরাব ৭৬; রাজ্জাক ৪/১৫২, মোসাদ্দেক ৩/৫৯)।

ফল : ড্র।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : নুরুল হাসান

উত্তরাঞ্চল-পূর্বাঞ্চল

উত্তরাঞ্চল : ১৮৭ ও ৮১.৩ ওভারে ২৮৪ (ফরহাদ ৮৫; খালেদ ৫/৮৯, আবু জায়েদ ৩/৭১)।

পূর্বাঞ্চল : ২১১ এবং ৫৭.৪ ওভারে ২০২/৬ (মমিনুল ১০৭, লিটন ৪৮; তাইজুল ৪/৬৮)।

ফল : ড্র।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মমিনুল হক।


মন্তব্য