kalerkantho


বার্সেলোনায় রোমাঞ্চিত কৌতিনিয়ো

গতকাল চুক্তির পর মেসির সঙ্গে খেলতে পারাটাকে সম্মানের বললেন কৌতিনিয়ো,‘ এখনও মেসির সঙ্গে দেখা হয়নি। ওর সঙ্গে এক দলে থাকতে পারাটা সম্মানের। এখানে আসার আগ পর্যন্ত বিশ্বাস হচ্ছিল না যে বার্সায় খেলব! তবে এখন মাঠে নামার পর সেটা হচ্ছে।’

৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বার্সেলোনায় রোমাঞ্চিত কৌতিনিয়ো

আনুষ্ঠানিকতাটা বাকি ছিল শুধু। সেটাও হয়ে গেল গতকাল। বার্সেলোনার সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তিতে গতকাল সই করেছেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো। এরপর ভক্তদের সামনে তাঁকে উপস্থাপন করা হয় ন্যু কাম্পে। লিভারপুলের মতো এখানেও কি ১০ নম্বর জার্সি পরে খেলবেন? প্রশ্নটা শুনে রেকর্ড ১৬০ মিলিয়ন ইউরোয় বার্সায় যোগ দেওয়া এই তারকার মুখে চওড়া হাসি, ‘না, না, না। বার্সেলোনায় ১০ নম্বর একজনই (মেসি)। ও বিশ্বের সেরা, সর্বকালের সেরা ১০ নম্বরও।’ গতকাল চুক্তির পর মেসির সঙ্গে খেলতে পারাটাকে সম্মানের বললেন কৌতিনিয়ো,‘ এখনও মেসির সঙ্গে দেখা হয়নি। ওর সঙ্গে এক দলে থাকতে পারাটা সম্মানের। এখানে আসার আগ পর্যন্ত বিশ্বাস হচ্ছিল না  যে বার্সায় খেলব! তবে এখন মাঠে নামার পর সেটা হচ্ছে।’

গত গ্রীষ্মেই কৌতিনিয়োকে পেতে মরিয়া ছিল বার্সেলোনা। কিন্তু ছাড়েনি লিভারপুল। সর্বোচ্চ বেতনের প্রলোভন, লিভারপুলের ঐতিহ্য বুঝিয়ে তাঁকে থেকে যাওয়ার অনুরোধ করে ইংলিশ ক্লাবটি। তবে মেসি, সুয়ারেস, ইনিয়েস্তাদের মতো তারকাদের সঙ্গে খেলার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি তিনি। এ জন্য আগের রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ভিডিওবার্তায় জানিয়েছিলেন, ‘হাই বার্সা সমর্থকরা, আমি এরই মধ্যে এখানে। একটা স্বপ্ন সত্যি হলো। আগামীকাল (গতকাল) আপনাদের সঙ্গে দেখা হবে।’

সেই দেখাটা হলো অম্ল-মধুর। কেননা ডাক্তারি পরীক্ষার পর জানা গেছে ঊরুতে চোট আছে কৌতিনিয়োর। এ জন্য মাঠের বাইরে থাকতে হবে তিন সপ্তাহ। ৪ ফেব্রুয়ারি কাতালান ডার্বিতে কৌতিনিয়োর অভিষেক হতে পারে এস্পানিওলের বিপক্ষে। নিয়তিটা দেখুন, ২০১২ সালে ধারে এই এস্পানিওলের জার্সিতেই খেলেছিলেন কৌতিনিয়ো! লিভারপুল ছেড়ে এখানে আসার কারণ ব্যাখ্যা করলেন এভাবে,‘ বার্সেলোনা বিশ্বের সেরা দল। আমার অনেক আদর্শ খেলোয়াড় এখানে খেলে গেছেন,অনেক আদর্শ এখনও খেলছেন। তাই উত্তরটা সহজ। আমাকে পেতে বার্সার তত্পরতা ও ধৈর্যের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

নেইমারের সঙ্গে বন্ধুত্বের কথা উল্লেখ করে জানালেন,‘ নেইমারের সঙ্গে কথা হয়েছে। ও এই শহর আর দল নিয়ে ইতিবাচক কথা বলেছে। ছোট থেকেই নেইমার আমার ভালো বন্ধু। কিন্তু আমরা আলাদা চরিত্রের। আমি নিজের জায়গা করে নিতে এসেছি বার্সায়।’

 গতকাল তাঁর সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের পর বার্সা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তেমেউয়ের সন্তুষ্টি, ‘বার্সার সব সমর্থক কৌতিনিয়োকে আমাদের ক্লাবে দেখে খুশি। গত গ্রীষ্মে ওকে পেতে চেয়েছিলাম। অন্য ক্লাবেরও আগ্রহ ছিল ওকে ঘিরে। তবে ওকে পেতে কাজ করে গেছি নিরলসভাবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কৌতিনিয়ো নিজে আসতে চেয়েছিল এখানে। আমাদের সঙ্গে চুক্তি করায় ওকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কৌতিনিয়োকে আমাদের এখানে আসতে দেওয়ায় ধন্যবাদ লিভারপুলকেও।’

লুই সুয়ারেসের সঙ্গে ১৮ মাস লিভারপুলে খেলেছিলেন কৌতিনিয়ো। এখন দুজন জুটি বাঁধবেন বার্সায়। কৌতিনিয়োর জন্য বাড়ি খুঁজে দিয়ে শুভ কামনা জানালেন সুয়ারেস, ‘সবাই ওর মান সম্পর্কে জানে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে অনেক দিন খেলছে ও। কৌতিনিয়ো যেমন খেলোয়াড়, তাতে আশা করছি দ্রুত মানিয়ে নিতে পারবে আমাদের সঙ্গে।’ তাঁকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত কোচ আরনেস্তো ভালভের্দেও, ‘কৌতিনিয়ো গোল করতে পারে, করাতেও জানে। খেলতে পারে ভেতরে, বাইরে সবখানে। ও আমাদের দলে অনেক কিছু যোগ করবে।’ লিভারপুলে দুর্দান্ত খেলেও শিরোপার স্বাদ পাচ্ছিলেন না কৌতিনিয়ো। বার্সা টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গতপরশু জানিয়েছিলেন মেসি-সুয়ারেসদের সঙ্গে সেই অপূর্ণতা মেটানোর কথা, ‘সব সময় বলে এসেছি, এটা আমার লালন করা স্বপ্ন ছিল। সেই স্বপ্ন পূরণ করতে অবশেষে এখানে চলে এলাম। এই খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলতে, শিরোপা জিততে আর সমর্থকদের খুশি করতে। ভেবেই রোমাঞ্চিত হচ্ছি আমি এত এত সব আদর্শ খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলব। সেই সব খেলোয়াড় যাঁরা অনেক ইতিহাস গড়েছে।’ ডেইলি মেইল, এএফপি



মন্তব্য