kalerkantho


সেঞ্চুরি হলো না হার্দিক পাণ্ডের

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সেঞ্চুরি হলো না হার্দিক পাণ্ডের

হার্দিক পাণ্ডের ব্যাটিংয়ে মুখরক্ষা ভারতের। ভারনন ফিল্যান্ডার-ডেল স্টেইন-মরনে মরকেল-কাগিসো রাবাদাদের বোলিং তোপে ৯২ রানে তারা হারিয়ে বসে ৭ উইকেট। দলের চরম দুঃসময়ে ৯৫ বলে ৯৩ রানের ঝলমলে এক হাফসেঞ্চুরি করেছেন হার্দিক পাণ্ডে। তাতেই দুই শ পেরিয়েছে সফরকারীদের স্কোরটা। ২৮৬ রানে গুটিয়ে গিয়েও প্রথম ইনিংসে ৭৭ রানের লিড পায় প্রোটিয়ারা। এরপর এ রিপোর্ট লেখার সময় দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে বিনা উইকেটে ২৬ রান তুলে লিডটাকে ১০৩-এ নিয়ে গেছেন এইডেন মারক্রাম ও ডিন এলগার।

২৮ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করা ভারতের প্রথম সেশনটা অতটা বিপর্যস্ত চেহারার ছিল না। প্রোটিয়া পেস চতুষ্টয়কে সাবধানে খেলে ২৫ ওভারে মোটে ৪৮ রান করলেও ওই সেশনে তারা উইকেট হারিয়েছিল শুধু একটি। ১১ রান করে কাগিসো রাবাদার বোলিংয়ে এলবিডাব্লিউ হন রোহিত শর্মা। ৪ উইকেটে ৭৬ রানে মধ্যাহ্নভোজে যাওয়া ভারত বিরতির পর প্রথম ছয় ওভারে হারিয়ে বসে তিন ব্যাটসম্যানকে। চেতেশ্বর পূজারা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে ফেরান ফিল্যান্ডার। স্টেইনের বোলিংয়ে শূন্য রানে এলবিডাব্লিউ হন ঋদ্ধিমান সাহা। ৯২ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া ভারতের স্কোর তবু ২০০ ছাড়িয়েছে হার্দিকের কার্যকর হাফসেঞ্চুরিটার কল্যাণে।

সতীর্থদের যাওয়া-আসার মিছিলেও খেলেছেন দারুণ সব স্ট্রোক। বেশ কয়েকবার অবশ্য জীবন পেয়েছেন তিনি। স্টেইনের বোলিংয়েই রক্ষা পেয়েছেন দুইবার। প্রথমবার ৫ রানে আম্পায়ার আউট দিলেও রিভিউতে বেঁচে যান। এরপর ১৫ রানের সময় গালিতে তাঁর ক্যাচ ফেলে দেন ডিন এলগার। আরেকবার ৭১ রানে থাকার সময় বাঁহাতি স্পিনার কেশব মহারাজের বোলিংয়ে সহজ স্টাম্পিংয়ের সুযোগ নষ্ট করেন কুইন্টন ডি কক। সুযোগগুলো কাজে লাগিয়ে ৪৬ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন হার্দিক পাণ্ডে। দুর্ভাগ্য তাঁর শতরান পাননি। তিন অঙ্কের জাদুকরী স্কোর থেকে মাত্র ৭ রান দূরে থাকতে রাবাদার বোলিংয়ে সেই ডি ককের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এই অলরাউন্ডার।  অষ্টম উইকেটে ভুবনেশ্বর কুমারকে সঙ্গে নিয়ে যোগ করেছেন মূল্যবান ৯৯ রান। হার্দিক আউটের পর আর মাত্র ১০ রানই টিকে ২০৯ রানে অল আউট ভারত। ক্রিকইনফো



মন্তব্য