kalerkantho


সেই সালাহ এখন আফ্রিকার রাজা

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সেই সালাহ এখন আফ্রিকার রাজা

হতাশা ঘিরে ধরেছিল তাঁকে। তিন বছর আগে মো সালাহ নিজেই ভাবতেন, ইউরোপে মনে হয় তাঁকে দিয়ে হবে না! সেই সালাহ এখন আফ্রিকার রাজা। গতকাল লিভারপুলের এই ফরোয়ার্ড জিতলেন আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার। কিছুদিন আগে হয়েছিলেন বিবিসির আফ্রিকান বর্ষসেরা। এরপর হন আরবের সেরা। গতকাল আফ্রিকার সেরা হয়ে অন্য রকম হ্যাটট্রিকই হলো মিসরের ২৫ বছর বয়সী এই তরুণের। ১৯৮৩ সালে মাহমুদ আল খতিবের পর মিসরের প্রথম ফুটবলার হিসেবে পুরস্কারটা পেয়েছেন তিনি। দ্বিতীয় হয়েছেন তাঁরই লিভারপুল সতীর্থ সাদিও মানে। আর তৃতীয় বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের পিয়েরে এমরিক অবামায়েং।

২০১৪ সালে প্রবল সম্ভাবনা নিয়ে চেলসিতে যোগ দেন মো সালাহ। প্রত্যাশা পূরণ করতে না পারায় পরের বছরই চেলসি তাঁকে ধারে পাঠায় ইতালির ফিওরেন্টিনায়। ব্যর্থ সেখানেও। পরের মৌসুমে আবারও ধারে ইতালির এএস রোমায়। মিসরের এই ফরোয়ার্ড মানিয়ে নেন সেখানে। ১৫ মিলিয়ন ইউরোয় তাঁকে পাকাপাকি কিনে নেয় ইতালির এই দল। রোমায় দুই মৌসুমে ২৯ গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে করান ১৭টি। প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলো তাই ঝাঁপিয়ে পড়ে সালাহকে পেতে। গত বছর ৩৮.৫ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফিতে যোগ দেন লিভারপুলে। এরপর পেছনে তাকাননি আর।

এই মৌসুমে ২৯ ম্যাচে ২৩ গোল করেছেন সালাহ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গোল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭টি। সবচেয়ে বেশি গোল করা হ্যারি কেইনের চেয়ে পিছিয়ে মাত্র এক গোলে। লিভারপুলের মতো সালাহ সফল জাতীয় দলেও। গত বছর মিসরকে নিয়ে গিয়েছিলেন আফ্রিকান নেশনস কাপের ফাইনালে। ১৯৯০ সালের পর মিসর বিশ্বকাপে ফিরেছে তাঁরই দ্যুতিতে। কঙ্গোর বিপক্ষে বাঁচা-মরার শেষ ম্যাচে একেবারে শেষ বেলায় পেনাল্টি থেকে লক্ষ্য ভেদ করেছিলেন তিনি। আফ্রিকার সেরা ফুটবলার পুরস্কারের তাই দাবিদার ছিলেন সালাহ। পুরস্কারটা তিনি উৎসর্গ করলেন মিসর ও আফ্রিকার শিশুদের, ‘এটা আমার ক্যারিয়ারের সেরা অর্জন। পুরস্কারটা মিসর ও আফ্রিকার শিশুদের উৎসর্গ করছি। ওদের পরামর্শ দিয়ে বলছি কখনো স্বপ্ন দেখা না ছাড়তে। নিজের ওপর বিশ্বাসটাও যেন থাকে।’

আত্মবিশ্বাসী ছিলেন বলেই হাল ছাড়েননি সালাহ। নইলে চেলসিতে দিনের পর দিন বেঞ্চে বসে আর ধারে ফিওরেন্টিনায় গিয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর কঠোর পরিশ্রম করতেন না। এটা তাই স্বপ্নপূরণ সালাহর, ‘কল্পনা করতাম আফ্রিকার সেরা ফুটবলার হওয়ার। এত দিনে স্বপ্ন পূরণ হলো আমার। ২০১৭ সালটা জাতীয় দল ও ক্লাবের হয়ে অসাধারণ কেটেছে।’ এএফপি



মন্তব্য