kalerkantho


তিন সেঞ্চুরিতে মুনরোর রেকর্ড

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



তিন সেঞ্চুরিতে মুনরোর রেকর্ড

ঝড় তুলেছিলেন বছরের প্রথম ম্যাচেই। তবে কলিন মুনরোর ২৩ বলে ৬৬ করা ম্যাচটি ভেসে যায় বৃষ্টিতে। গতকাল সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতেও বিস্ফোরক নিউজিল্যান্ডের এই ওপেনার। ২০১৮ সালের প্রথম সেঞ্চুরিটা এলো তাঁর ব্যাট থেকে। ৫৩ বলে ১০৪ রানে গড়েছেন নতুন ইতিহাসও। টি-টোয়েন্টিতে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে তাঁর সেঞ্চুরি এখন তিনটি। মুনরোর সেঞ্চুরিতে ভর করে নিউজিল্যান্ড গড়ে ৫ উইকেটে ২৪৩ রানের পাহাড়। এটা এই ফরম্যাটের সপ্তম সর্বোচ্চ আর নিউজিল্যান্ডের সেরা। ২০০৯-১০ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করা ২১৪ ছিল তাদের এত দিনের সেরা। সেই পাহাড়ে চাপা পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৬.৩ ওভারে গুটিয়ে গেছে ১২৪ রানে।

১১৯ রানের জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতল নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টিতে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ভেসে না গেলে ব্যবধানটা ৩-০-ও হতে পারত। সিরিজ জিতে পাকিস্তানকে সরিয়ে টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে কিউইরা। এবারের নিউজিল্যান্ড সফরে টেস্ট, ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টির কোনো ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পায়নি ক্যারিবীয়রা। সবশেষ ১৯৯৯-০০ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড সফরে এমন জয়খরা গিয়েছিল তাদের।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে ক্যারিবীয়দের ওপর চড়াও হয় কিউইরা। স্যামুয়েল বদ্রির প্রথম বল ছক্কা হাঁকিয়ে কলিন মুনরো ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। দারুণ ছন্দে থাকা এই ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ৪৭ বলে, যা কিউই ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দ্রুততম। ২০০৯-১০ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫০ বলে ব্রেন্ডন ম্যাককালামের সেঞ্চুরি ছিল এত দিনের দ্রুততম। ম্যাককালাম ও মার্টিন গাপটিলের পর টি-টোয়েন্টিতে তৃতীয় কিউই হিসেবে টানা তিনটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংসও খেললেন মুনরো। এই সিরিজে তাঁর আগের দুটি ইনিংস ৬৬ ও ৫৩। প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এই ফরম্যাটে ইতিহাস গড়েন তিন তিনটি সেঞ্চুরিরও। দুটি করে সেঞ্চুরি আছে ক্রিস গেইল, এভিন লুইস, রোহিত শর্মা ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের।

মার্টিন গাপটিলের সঙ্গে ১৩৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতে বড় ইনিংসের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন মুনরো। ৩ বাউন্ডারি আর ১০ ছক্কায় ১০৪ করে কার্লোস ব্রাথওয়েটের বলে সিমরন হিটমায়ারকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। গাপটিল করেছিলেন ৩৮ বলে ৬৩।

২৪৩ রান তাড়া করে জিততে হলে অভাবনীয় কিছু করতে হতো ক্রিস গেইলকে। অথচ তিনি আউট ০ রানে। অন্য ওপেনার চ্যাডউইক ওয়ালটনও ফেরেন রানের খাতা খোলার আগে। আন্দ্রে ফ্লেচারের ৩২ বলে ৪৬-এ শেষ পর্যন্ত ১২৪ রানে অলআউট হয় ক্যারিবীয়রা। ক্রিকইনফো


মন্তব্য