kalerkantho



ওয়াকার শেষ টেস্ট

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ওয়াকার শেষ টেস্ট

দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুম, অস্ট্রেলিয়ার ডারউইন ও কেয়ার্নসের ভাগ্যই বোধ হয় বরণ করতে হচ্ছে পার্থের ওয়াকা স্টেডিয়ামকে। বাংলাদেশের মতো র‌্যাংকিংয়ের নিচের সারির দলগুলো খেলতে গেলেই কেবল তালা খোলে এই ভেন্যুগুলোর। আগামী বছর থেকে ওয়াকার বদলে নতুন স্টেডিয়ামেই হবে বড় দলগুলোর বিপক্ষে টেস্ট, বেশির ভাগ আন্তর্জাতিক ম্যাচ ও বিগ ব্যাশে পার্থ স্করচার্সের ম্যাচগুলো। একসময় ওয়াকার খ্যাতি ছিল বাউন্স ও গতির জন্য, আগামীতে নতুন স্টেডিয়ামে খেলা হবে ড্রপইন পিচে। যুগের হাওয়ায় ভেসে ঐতিহ্যকে বিদায় জানাচ্ছে ওয়াকা, হয়তো আজ থেকে শুরু হওয়া অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টই এই মাঠে প্রাচীনতম ক্রিকেট দ্বৈরথের শেষ মঞ্চায়ন। আগামী বছর থেকেই বার্সউডের নতুন ভেন্যুতে ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টগুলো হবে ৬০ হাজার আসনের নবনির্মিত স্টেডিয়ামেই।

কাকতালীয়ভাবে ৩৯ বছর ধরে জয়হীন থাকা ওয়াকায় শেষ ম্যাচেই শেষ সুযোগ ইংল্যান্ডের। সিরিজে ২-০-তে পিছিয়ে থাকার পর এই টেস্টে জিততে না পারা মানেই জো রুটের দলের সিরিজ জয়ের সুযোগ শেষ। হারলে খোয়াতে হবে ছাইদানিটা, ড্র করা মানে এরপর সর্বোচ্চ ২-২-তে সিরিজ ড্র করা সম্ভব ইংল্যান্ডের; অর্থাৎ এখানে হেরে যাওয়া মানেই সিরিজ জেতার সব সম্ভাবনাই শেষ থ্রি লায়নদের। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া



মন্তব্য