kalerkantho


ক্রিকেটের নতুন আওয়াজ পারভেজ

১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ক্রিকেটের নতুন আওয়াজ পারভেজ

‘ক্রিকেটের নতুন আওয়াজ’ স্লোগানে শুরু হওয়া ধারাভাষ্যকার খোঁজার আয়োজনে সেরাদের সেরা হলেন আহমেদ বিন পারভেজ। প্রতিযোগিতার মূল বিচারকের দায়িত্ব পালন করছেন জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার চৌধুরী জাফরউল্লাহ্ শরাফাত।

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শামীম পারভেজের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া। প্রেমে পড়েন ফিলিপাইনের মেয়ে দোলেরেসের। দুজনের প্রথম দেখা চীনে। আর বিয়েটা সৌদি আরবে! এ নিয়ে লেখা যায় অসাধারণ প্রেমকাহিনি। এই দম্পতির সুযোগ্য সন্তান আহমেদ বিন পারভেজের গল্পটাও কম রোমাঞ্চের নয়। তিনি স্থপতি। কাজ করেন বিশ্বব্যাংকের কনসালট্যান্ট হিসেবে। সেই পারভেজই ‘ক্রিকেটের নতুন আওয়াজ’ স্লোগানে শুরু হওয়া ধারাভাষ্যকার খোঁজার আয়োজনে সেরাদের সেরা হলেন গতকাল।

রেডিও স্বাধীন ৯২.৪ এফএম-এর উদ্যোগে হওয়া প্রতিযোগিতায় কয়েক হাজার প্রতিযোগী থেকে বেছে নেওয়া হয়েছিল ৩৫ জন। সেখান থেকেই বিচারকদের রায় আর শ্রোতাদের ভোট সমন্বয় করে সেরা ধারাভাষ্যকারের পুরস্কার জিতলেন এই তরুণ স্থপতি। প্রথম রানার-আপ রিদওয়ান কবির আর দ্বিতীয় রানার-আপ সাজ্জাদ রাহাত। এই তিনজনই কাজ করার সুযোগ পাবেন রেডিও স্বাধীনে। প্রথম হওয়ার পুরস্কার হিসেবে আহমেদ বিন পারভেজের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করেছে রেডিও স্বাধীন। পাশাপাশি তিনি পেয়েছেন এক লাখ টাকা। প্রথমবার হওয়া এই উদ্যোগে সেরাদের সেরা হয়ে আপ্লুত পারভেজ, ‘প্রথম দিনের মার্কিংয়ে ৩৫ জনের মধ্যে শেষের দিকে ছিলাম। এরপর ভালো করার জেদ চেপে বসে। তবে প্রথম হয়ে যাব ভাবিনি। নিজের ভালোলাগাটা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।’

‘ফ্রেশ প্রেজেন্টস স্বাধীন কমেন্টেটর হান্ট ২০১৭ পাওয়ার্ড বাই জিটিভি’ প্রতিযোগিতায় প্রাথমিক পর্যায়ে আবেদন জমা পড়েছিল কয়েক হাজার।  নানা পরীক্ষার পর ৩৫ জন নির্বাচিত করে শুরু হয় তিন দিনের প্রশিক্ষণ পর্ব। সেখানে প্রতিযোগীদের ক্রিকেট ও ধারাভাষ্যের নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডে অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন, সাবেক ক্রিকেটার আতাহার আলী খান, নাজমুল আবেদিন ফাহিম, আম্পায়ার মোরশেদ আলী খান, প্রখ্যাত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা ও কালের কণ্ঠ’র উপসম্পাদক মোস্তফা মামুন। এই প্রতিযোগিতার মিডিয়া পার্টনার ছিল জনপ্রিয় দৈনিক কালের কণ্ঠ।

প্রতিযোগিতার মূল বিচারকের দায়িত্ব পালন করছেন জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার চৌধুরী জাফরউল্লাহ্ শরাফাত। বিচারক হিসেবে আরো ছিলেন সাবেক ক্রিকেটার শফিকুল হক হীরা, জাভেদ ওমর, মোহাম্মদ আশরাফুল, হান্নান সরকার ও এহসানুল হক। গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলে গ্র্যান্ড ফিনালের পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে আবেগী হয়ে পড়েছিলেন প্রধান বিচারক চৌধুরী জাফরউল্লাহ্ শরাফাত, ‘গত ১৫ বছর ধরে স্বপ্ন দেখছিলাম প্রতিভাবান নতুন ভাষ্যকার তুলে আনার। এত দিন পর সেই স্বপ্ন পূরণ হলো। আগামীতে আরো বড় মঞ্চে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি আমি।’


মন্তব্য