kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

আশা করি আগামী বিপিএলে পারিশ্রমিক বাড়বে

১১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



আশা করি আগামী বিপিএলে পারিশ্রমিক বাড়বে

গ্রুপ পর্বের শেষ রাউন্ডের আগ পর্যন্তও বিপিএলে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ছিলেন খুলনা টাইটানসের আবু জায়েদ। কিন্তু দুর্ভাগ্য তাঁর, এলিমিনেটর ম্যাচে পড়লেন ক্রিস গেইলের রংপুরের সামনে। ক্যারিবিয়ান ঝড়ে উড়ে গেল দল আর শেষ ২ ম্যাচে ৪ উইকেট নিয়ে তাঁকে টপকে গেছেন সাকিব আল হাসান। ভাঙা মন নিয়ে নিজ বাড়ি সিলেটে ফিরে যাওয়া আবু জায়েদ কালের কণ্ঠ স্পোর্টসকে জানালেন, সামনের মৌসুমে যেন তাঁর পারিশ্রমিকটা বাড়ে।

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : শেষ ম্যাচে গেইলের সামনে পড়ায় সব এলোমেলো হয়ে গেছে, তাই না?

আবু জায়েদ : আসলেই তাই। গেইল যেদিন খেলেন, সেদিন আসলে আর কারোর কিছু করার থাকে না। তিনি যদি ৫০ রান করেও আউট হয়ে যেতেন, তার পরও আমাদের জেতার একটা সম্ভাবনা তৈরি হতো। কিন্তু এ রকম ইনিংস যেদিন খেলবেন, সেদিন কোনো বোলারেরই কিছু করার নেই।

প্রশ্ন : ১২ ম্যাচে ১৮ উইকেট। অনেক অভিজ্ঞ ও প্রতিষ্ঠিত বোলারকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি। এর পরের লক্ষ্যটা কী?

আবু জায়েদ : আসলে সব পারফরম্যান্সই তো করি জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার জন্য। এবার বিপিএলে ভালো করলাম। জাতীয় লিগেও ৩ ম্যাচে ৭ উইকেট পেয়েছি। আকিব জাভেদের ক্যাম্পেও ডাক পেয়েছিলাম, সেখানেও উনার প্রশংসা পেয়েছি। হায়দরাবাদে ভারতীয় এ দলের বিপক্ষে একটা ম্যাচে খেলেছিলাম। এখন আশা করব এই পারফরম্যান্স আমাকে সামনের দিনগুলোতে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তুলতে সাহায্য করবে।

প্রশ্ন : খুলনা টাইটানসের তরুণ খেলোয়াড়দের ভালো করার একটা প্রবণতা দুই মৌসুম ধরেই দেখা যাচ্ছে। এটা কি দলের অভ্যন্তরীণ পরিবেশের কারণেই?

আবু জায়েদ : খুলনা টাইটানসের পরিবেশটা আসলেই খুব ভালো। কোচ, ম্যানেজার সবাই খুব সাহায্য করেন, তরুণদের সুযোগ দেন। এ কারণেই বোধ হয় খুলনায় তরুণরা ভালো করছে।

প্রশ্ন : আপনার সঙ্গে খুলনার চুক্তি তো এক মৌসুমেরই। এই পারফরম্যান্সের পর কি মনে হয়, আপনাকে রিটেইন করবে ফ্র্যাঞ্চাইজি?

আবু জায়েদ : আমার সঙ্গে চুক্তি এক মৌসুমেরই। তবে আমি আশা করব সামনের মৌসুমে যেন আমার পারিশ্রমিকটা আরেকটু বাড়ে। গত মৌসুমে ঢাকা ডায়নামাইটসে খেলেছিলাম, ৮ ম্যাচে পাই ৯ উইকেট। রানও তেমন দিইনি। কিন্তু প্লেয়ারস ড্রাফটে আমার ক্যাটাগরির উন্নতি হয়নি। গতবারও ‘সি’ গ্রেডে ছিলাম, এবারও ‘সি’ গ্রেডে ১২ লাখ টাকায় খেললাম। আশা করব সামনের মৌসুমে আমার ক্যাটাগরির যেন উন্নতি হয়।

প্রশ্ন : বিপিএলে ভালো করে আবু হায়দার রনির বিশ্ব টি-টোয়েন্টির দলে জায়গা করে নেওয়া এবং তারপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মানদণ্ডে নিজেকে প্রমাণ করতে না পারা দেখে কি ভয় হয়?

আবু জায়েদ : আমি আত্মবিশ্বাসী। এবারের বিপিএলে তো পাঁচজন বিদেশি খেলোয়াড় খেলল। ব্যাটসম্যানদের বেশির ভাগই তো বিদেশি। তাদের বল করেছি, আউটও করেছি। তাই আমি আত্মবিশ্বাসী, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুত মানিয়ে নিতে পারব।



মন্তব্য