kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

এখন লিগেও ভালো করতে হবে

১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



এখন লিগেও ভালো করতে হবে

অনূর্ধ্ব-১৮ ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে সাফ এবং এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইয়ে দারুণ সময় কাটিয়েছেন মাহবুবুর রহমান। আরামবাগের হয়ে আজ থেকে আবার লিগের লড়াই শুরু হচ্ছে তাঁর।

জাতীয় দলের হয়ে যে অভিজ্ঞতা কুড়িয়েছেন, সেটিই কাজে লাগাতে চান এখন থেকে। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি কথা বলেছেন তিনি সেই প্রসঙ্গে।

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে দারুণ একটা টুর্নামেন্ট খেলে এসে আজ আবার ক্লাবের জার্সিতে নামছেন, ফর্মটা ধরে রাখার ব্যাপারে কতটা আত্মবিশ্বাসী?

মাহবুবুর রহমান : ক্লাবে এখন আমাদের ভালো খেলতেই হবে। নইলে জাতীয় দলের হয়ে ভালো খেলা কোনো কাজেই আসবে না। সবাই তখন অন্য রকম বলবে। দু-একটা টুর্নামেন্ট ভালো খেলেই আমরা ফুরিয়ে গেছি—এমন অপবাদ নিতে চাই না। সামনে আমার লম্বা সময় পড়ে আছে, ভালো করতে হলে ক্লাব ফুটবলেও পারফরম্যান্সটা ধরে রাখতে হবে।

প্রশ্ন : সাফে অনূর্ধ্ব-১৮ ও এএফসি বাছাইয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে কেমন অভিজ্ঞতা হয়েছে আপনার?

মাহবুব : বাইরের দলগুলো মানের দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে। ওদের খাওয়াদাওয়া, অনুশীলন থেকে শুরু করে সব কিছুই উন্নতমানের।

তাদের সঙ্গে ভালো করে আমাদের আত্মবিশ্বাসও এখন অনেক বেড়েছে। সত্যি বলতে সাফ ও এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপ দুটি আমি খুব উপভোগ করেছি। ভালো খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেললে নিজের খেলাও অনেক ভালো হয়, অনেক কিছু শেখা যায়।

প্রশ্ন : তাজিকিস্তানে ডিফেন্ডাররা অসাধারণ খেলেছে বড় দুটি দলের বিপক্ষে, টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের সেরা পারফরমার হিসেবে ওদেরই ধরা যায় না?

মাহবুব : আসলে আমাদের কোচ ওদের নিয়ে অনেক কাজ করেছেন। তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তানের খেলোয়াড়রা শারীরিক শক্তি ও স্টেমিনার দিক দিয়ে আমাদের চেয়ে বেশ এগিয়ে। ওদের বিপক্ষে ভালো করতে হলে টেকনিকে জোর দেওয়া ছাড়া বিকল্প নেই। সেই কারণে ডিফেন্ডারদের নিয়ে কোচের প্রচুর কাজ করতে হয়েছে, তারাও মাঠে সেটা করে দেখাতে পেরেছে। তবে বড় দলগুলোর বিপক্ষে স্ট্রাইকার হিসেবে প্রেসিংটা শুরু করেছি আমিই, মিডফিল্ডাররাও তাতে যোগ দিয়েছে। ফলে ডিফেন্সও নিজেদের গুছিয়ে নেওয়ার সময় পেয়েছে।

প্রশ্ন : আপনি বেশ কিছু ভালো গোল করেছেন, তাজিকিস্তানে ৪ ম্যাচে ৩ গোল আপনার। পাশাপাশি অনেক মিসও করেছেন এটা কেন?

মাহবুব : স্ট্রাইকাররা যেমন গোল করে, তেমনি মিসও করে। তবে হ্যাঁ, ফিনিশিং নিয়ে আমাকে আরো কাজ করতে হবে—এটা আমি বুঝতে পেরেছি এই টুর্নামেন্টগুলো খেলে।

প্রশ্ন : ক্লাবে তো আপনি উইংয়ে খেলেন?

মাহবুব : কোচ আমাকে যেখানে ভালো মনে করবেন, সেখানেই আমি খেলতে তৈরি। আরামবাগে রাইট উইংয়ে খেলছি। জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার পর প্র্যাকটিস ম্যাচে গোল পাওয়ায় কোচ আমাকে নাম্বার নাইন পজিশনে খেলিয়েছেন। ক্লাবে আবার রাইট উইংয়ে ফিরলেও আপত্তি নেই।


মন্তব্য