kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

ষষ্ঠ হওয়াটাই আমাদের বড় অর্জন

২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



ষষ্ঠ হওয়াটাই আমাদের বড় অর্জন

দলকে জেতানোর এক দিন পরই রাসেল মাহমুদকে সংবাদ সম্মেলনে আসতে হলো আবার বিরস মুখে। ষষ্ঠ স্থান নিশ্চিত হওয়ার পর আরেকটু বেশি পাওয়ার আশায় জাপানের বিপক্ষে নেমে আগের দিনের আনন্দটাও যে মাটি হয়েছে।

জাপানের বিপক্ষে ৪-০ গোলের হারেই শেষ হয়েছে বাংলাদেশের এশিয়া কাপ। এই ম্যাচ এবং টুর্নামেন্টের পাওয়া না-পাওয়া নিয়েই কথা বলেছেন রাসেল

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : আজকের পুরো ম্যাচটি নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কী?

রাসেল মাহমুদ : বলব না, গতকালের পর আজকেই আবার মাঠে নেমে আমরা ক্লান্ত ছিলাম। আমাদের শুরুটা ভালোই হয়েছিল। কিন্তু সেই ছন্দটা পরে আর ধরে রাখতে পারিনি। বৃষ্টির কারণে খেলাটা কঠিন ছিল। চতুর্থ কোয়ার্টারেই ম্যাচটি আমাদের হাত থেকে একরকম বেরিয়ে যায়।

প্রশ্ন : জাপান পুরো টুর্নামেন্টে একটি ম্যাচ হেরে পঞ্চম হয়েছে সেখানে বাংলাদেশ এক ম্যাচ জিতেই ষষ্ঠ, নিজেদের কি একটু ভাগ্যবানও মনে হচ্ছে?

রাসেল : না, আমরা এটা এভাবে দেখছি না। একটা লক্ষ্য নিয়েই আমরা এই টুর্নামেন্টটা শুরু করেছি। সেটা আমরা পূরণ করতে পেরেছি।

পাকিস্তান, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু করাটা আমাদের জন্য সহজ ছিল না। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েই কিন্তু আমরা আমাদের লক্ষ্যটা পূরণ করেছি।

প্রশ্ন : চীনের বিপক্ষে ওই লক্ষ্যটা পূরণ হয়ে যাওয়াতেই কি আজ জাপানের বিপক্ষে সেভাবে মরিয়া দেখা গেল না বাংলাদেশকে, আগের দিনের একেবারে বিপরীত পারফরম্যান্স যে আজকের শেষ কোয়ার্টারে?

রাসেল : হ্যাঁ, আজকের শেষ কোয়ার্টারে আমাদের খেলা খারাপ হয়েছে। ওরা আহামরি কোনো গোল করেনি। আমাদের ভুলেরই সুযোগ নিয়েছে ওরা। তবে এটা এ জন্য না, যে আমাদের কোনো চেষ্টা ছিল না। পেশাদারি দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই আমি ক্লান্তির অজুহাত দিতে চাইছি না। কিন্তু এটাও সত্য এই ম্যাচের জন্য একটা দিন সময় পেলে আমরা প্রস্তুতিটা ভালোভাবে নিতে পারতাম। আগের দিন ম্যাচটাও শেষ হয়েছে অনেক রাত করে। ফেরার পর আমাদের টিম মিটিংসহ রুটিন কিছু কাজ থেকে। সব মিলিয়ে আমাদের রিকভারির সময়টাও কম ছিল। তুলনায় জাপান অনেক তৈরি ছিল এই ম্যাচের জন্য।

প্রশ্ন : টুর্নামেন্ট শুরুর আগে বলেছিলেন ঘরের মাঠে মনে রাখার মতো একটা আসর খেলতে চান, ষষ্ঠ হওয়াতেই কি সেই লক্ষ্যটা পূরণ হয়েছে?

রাসেল : ষষ্ঠ হওয়াটাও আমাদের জন্য বড় অর্জন। সর্বশেষ ’৯৯-এ বোধহয় এই অবস্থান ছিল আমাদের। এরপর সব সময়ই সাত-আট হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে। এবার ষষ্ঠ হওয়ায় আমাদের সামনে কিন্তু অনেকগুলো দুয়ার খুলে গেছে। এশিয়া কাপে সরাসরি খেলা, এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলার বিষয়টা তো আছেই, এই র‌্যাংকিংয়ের কারণে বড় দলগুলোর সঙ্গে আমাদের খেলার সুযোগও এখন বাড়বে, এত দিন এটাতে তারা অনীহা দেখিয়েছে।


মন্তব্য