kalerkantho


ব্রেন্ডন ম্যাককালামও রংপুরে

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



ব্রেন্ডন ম্যাককালামও রংপুরে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : টি-টোয়েন্টির চাহিদা মানা বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ের শেষ কথা বলে ধরা হয় ক্রিস গেইলকে। তবে সেটি তর্কযোগ্যভাবে।

কারণ একই বিবেচনায় যে সবচেয়ে এগিয়ে থাকা আরেকটি নাম ব্রেন্ডন ম্যাককালামও। সেই ২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে বিধ্বংসী এক ইনিংসে সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের ধারণাটাই জমিয়ে তুলেছিলেন নিউজিল্যান্ডের এ ব্যাটসম্যান। কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে মাত্র ৭৩ বলে তাঁর ব্যাট দেখিয়েছিল ১৫৮ রানের বিস্ফোরণ। তা ক্রিস গেইলের সঙ্গে যদি তাঁকেও কোনো দলের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে ইনিংস ওপেন করতে দেখা যায়, তাহলে তো সেটি স্বপ্নের মতো এক ব্যাপারই। আর সেই স্বপ্নের ওপেনিং জুটিই দেখা যাবে আসন্ন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল)। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া এ টি-টোয়েন্টির পঞ্চম আসরে খেলার জন্য ক্রিস গেইলের পর এবার যে ম্যাককালামকেও নিশ্চিত করেছে রংপুর রাইডার্স।

অবশ্য গেইলের মতো তাঁকেও আসরের শুরু থেকেই পাচ্ছে না মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বাধীন দলটি। জ্যামাইকান বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানকে পাওয়া যাবে আসরের মাঝামাঝি থেকে। আর ম্যাককালামকে সম্ভবত পাওয়া যাবে আরো আগে থেকেই।

রংপুর রাইডার্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইশতিয়াক সাদেক গতকাল সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন সেটিই, ‘ম্যাককালামকে নিশ্চিত করেছি আমরা। তাঁকে আমরা পাচ্ছি ১৫ নভেম্বর থেকে। সবকিছু ঠিক থাকলে রংপুর রাইডার্সের হয়ে ৯টি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে তাঁর। ’ আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে ফেললেও বিভিন্ন দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসরগুলোতে নিউজিল্যান্ডের সাবেক এ অধিনায়কের চাহিদা এখনো তুঙ্গে। সবশেষ ইংল্যান্ডের ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টেও খেলেছেন মিডলসেক্সের হয়ে। যথারীতি সে আসরেও তাঁর ব্যাটে নিয়মিতই দেখা মিলেছে ম্যাচ জেতানো বিস্ফোরক ইনিংসের। রংপুরও সে আশায়ই দলে ভিড়িয়েছে তাঁকে। সেই সঙ্গে ক্রিস গেইল তো আসছেনই। ম্যাককালাম তাঁর দেশের হয়ে ৭০টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৩৫.৬৬ গড়ে ১৩৬.২১ স্ট্রাইকরেটে করেছেন ২১৪০ রান। তুলনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে কম ম্যাচ (৪৩) খেলা গেইল ৩৫.১৫ গড়ে ও ১৪২.৫৯ স্ট্রাইকরেটে করেছেন ১৪০৬ রান।


মন্তব্য