kalerkantho


সিটির জয় রিয়ালের ড্র

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



সিটির জয় রিয়ালের ড্র

চলতি মৌসুমের উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ মাঠে গড়ানোর প্রথম রাতেই ইউরোপজুড়ে গোল হয়েছিল ৩২টি। এরপর গোলের ধারা খানিকটা শুকিয়ে এলেও মঙ্গলবার রাতে আবার জোয়ার! আট ম্যাচে হয়েছে ৩১ গোল; মারিবোরের জালে লিভারপুলই দিয়েছে ৭টি।

সেভিয়ার জালেও স্পার্তাক মস্কো দিয়েছে ৫ গোল। গোল উৎসবের রাতে যদিও বেশির ভাগ সমর্থকেরই চোখ ছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে, রিয়াল মাদ্রিদ-টটেনহাম হটস্পার ম্যাচে। সেই ম্যাচটি হয়েছে ১-১ গোলে ড্র। রাফায়েল ভারানের আত্মঘাতী গোলে টটেনহামের এগিয়ে যাওয়ার পর পেনাল্টি থেকে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর গোলে রক্ষা রিয়ালের। চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়াল সবশেষবার ড্র করেছিল গত ডিসেম্বরে, বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের সঙ্গে ২-২ গোলে। এরপর কোনো ম্যাচেই ড্র করেনি টানা দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। মুরিসিও পচেত্তিনোর দল প্রায় এক বছর পর সেই স্বাদই দিয়ে গেল মাদ্রিদের অভিজাতদের। তাতে গোলরক্ষক হুগো লরির কৃতিত্বটাই বেশি। ডান প্রান্ত দিয়ে উঠে আসা রাইটব্যাক সার্জ অরিয়ের কোনাকুনি পাস বক্সের ভেতর খুঁজে পেয়েছিল হ্যারি কেনকে। কিন্তু তাঁর মার্কার রাফায়েল ভারান বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে পাঠিয়ে দেন জালে। পেনাল্টি থেকে গোল করে সমতা ফেরান রোনালদো, বার্নাব্যুতে চ্যাম্পিয়নস লিগে এটা তাঁর ৫০তম গোল। মারিবোরের জালে গোল উৎসব করে প্রতিপক্ষের মাঠে ইংল্যান্ডের কোনো ক্লাবের সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড গড়েছে লিভারপুল। এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে লিভারপুলের এটা প্রথম জয়, আগের দুটি ম্যাচই তারা শেষ করেছে সমতায়। জোড়া গোল ফিরমিনো ও মো সালাহর; একটি করে গোল কৌতিনিয়ো, অ্যালেক্সি-অক্সালেড চেম্বারলেইন ও আলেক্সান্ডার-আর্নল্ডের। স্পার্তাক মস্কোও ৫ গোল দিয়েছে সেভিয়াকে, হজম করেছে ১ গোল। ম্যাচের প্রথম ও শেষ গোল কুইন্সি প্রোমসের; মেলগেরাজো, গুলাশকভ আর লুইজ আদ্রিয়ানো করেছেন এক গোল। সেভিয়ার একমাত্র গোলটা সাইমন কাজারের। বেসিকতাসের কাছে নিজমাঠে ২-১ গোলে হেরে গেছে মোনাকো। রুদ্ধশ্বাস প্রথমার্ধের পর বন্ধ্যা দ্বিতীয়ার্ধ, এমনটাই ঘটেছে রেডবুল অ্যারেনায়। পোর্তোর বিপক্ষে লিপজিগ জিতেছে ৩-২ গোলে, ৫টি গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে! রিয়াল-টটেনহামের পয়েন্ট ভাগাভাগির রাতে আপোয়েলের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করে আসায় নকআউট পর্ব নিয়ে খানিকটা বিপাকেই পড়েছে ডর্টমুন্ড। গেল মৌসুমে রিয়ালের সঙ্গে একই গ্রুপে থেকে তারা হয়েছিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। এবার তিন ম্যাচে মাত্র ১ পয়েন্ট নিয়ে তারা তলানিতে। ম্যানচেস্টার সিটি ২-১ গোলে জিতেছে নাপোলির বিপক্ষে। ম্যাচের শুরুতেই ৯ মিনিটে রহিম স্টারলিং ও ১৩ মিনিটে গ্যাব্রিয়েল হেসুসের গোল এগিয়ে দেয় সিটিজেনদের, ৭৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান দিওয়ারা। সুযোগ পেয়েছিলেন দ্রিস মের্তেনসও, কিন্তু তাঁর পেনাল্টিটি আটকে দেন এদারসন। দুই পেনাল্টি পেয়েও তাই পেপ গার্দিওলার দলের সঙ্গে হার এড়াতে পারল না নাপোলি। উয়েফা


মন্তব্য