kalerkantho


‘গোলবন্যা’র পর এবার হেভিওয়েটদের লড়াই

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



‘গোলবন্যা’র পর এবার হেভিওয়েটদের লড়াই

প্রথম সপ্তাহটা একেবারে ভেসে গেছে গোলবন্যায়! উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের এখনকার কাঠামোটা চলছে ২০০৩-০৪ মৌসুম থেকে। এই চেহারায় এবারই শুরুর সপ্তাহে গোল হয়েছে সবচেয়ে বেশি, ৫৪টি।

২০০০ সালের ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর, চ্যাম্পিয়নস লিগের উদ্বোধনী সপ্তাহে হয়েছিল ৬৩ গোল, সব আমল মিলিয়ে ওটাই এখনো সর্বোচ্চ। তবে ২০০৩-০৪ মৌসুম থেকে উঠে যায় দুটি গ্রুপ পর্বের রেওয়াজ, বদলে এখন যে ছকে চলছে চ্যাম্পিয়নস লিগ সেই চেহারায় আসে। প্রথম ‘ম্যাচ ডে’তে গোল মিছিলের এই ধারা অবশ্য শুকিয়ে আসতে পারে এই মঙ্গলবার ও বুধবারে। কারণ, এবারের রাউন্ডে যে সেয়ানে সেয়ানে টক্করই হবে বেশি!

জার্মানিতে ডর্টমুন্ডের মাঠে খেলতে আসবে রিয়াল মাদ্রিদ। এই দ্বৈরথটা নকআউট পর্বে হলে নিঃসন্দেহে উত্তেজনাটা আরো বাড়ত। বাঁচা-মরার ম্যাচ না হলেও মর্যাদার লড়াই তো বটেই! গতবারও একই গ্রুপে ছিল রিয়াল ও ডর্টমুন্ড, সেবারে রিয়াল চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জিতলেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি! ‘এফ’ গ্রুপে থাকা রিয়াল ও ডর্টমুন্ড দুই দেখাতেই ড্র করেছিল ২-২ গোলে, ১৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নস হয়েছিল ডর্টমুন্ড আর রিয়াল ১২ পয়েন্ট নিয়ে হয়েছিল রানার্স-আপ। চ্যাম্পিয়নস লিগের মতো আসরে প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ গ্রুপে রানার্স-আপ হলেই নকআউটের ড্রতে মুখোমুখি হতে হয় অন্য কোনো গ্রুপের চ্যাম্পিয়নের। তাই বাঁচা-মরার না হলেও ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ তো বটেই!

স্তাদে লুই-তে মুখোমুখি মোনাকো ও পোর্তো। এই দুই দল মুখোমুখি হওয়া মানেই উস্কে ওঠা ২০০৪ সালের ফাইনালের স্মৃতি! সেবারই তো ইউরোপের পাওয়ার হাউস সব দলগুলোকে বিদায় করে দিয়ে ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল হোসে মরিনহোর পোর্তো আর ফার্নান্দো মরিয়েন্তেসের মোনাকো! জিনেদিন জিদান, রোনালদো, লুই ফিগোদের নক্ষত্রপুঞ্জে ঠাঁই হয়নি, তাঁকে ধারে পাঠানো হয় মোনাকোতে।

কোয়ার্টার ফাইনালের দুই লেগেই রিয়ালের বিপক্ষে দুটো গোলসহ চ্যাম্পিয়নস লিগে ৯ গোল করেছিলেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড মরিয়েন্তেস। আর পোর্তোকে প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতিয়েই তো খ্যাতির পথে পা বাড়ানো ‘স্পেশাল ওয়ান’ মরিনহোর!

বুধবার প্যারিস সেন্ত জার্মেইর মাঠে খেলা বায়ার্ন মিউনিখের। তারকাসমৃদ্ধ দুটো দলই এই ম্যাচের আগে নিজেদের লিগ ম্যাচে করেছে ড্র। চ্যাম্পিয়নস লিগে পার্ক দু প্রিন্সেসে পিএসজির হয়ে অভিষেক হবে নেইমারের, এই ম্যাচের জন্যই হালকা চোটের ঝুঁকিতে তাঁকে মঁপেলিয়েরের সঙ্গে মাঠে নামাননি উনাই এমেরি। বায়ার্নও নিয়মিত গোলরক্ষক মানুয়েল নয়ার না থাকায় বিপাকে। নিজেদের নতুন স্টেডিয়াম ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ মুখোমুখি হবে চেলসির।

এছাড়া বার্সেলোনা খেলতে যাবে লিসবনে, স্পোর্তিং ক্লাব পর্তুগালের বিপক্ষে। জুভেন্টাসের খেলা অলিম্পিয়াকোসের সঙ্গে। মস্কোয় মঙ্গল ও বুধবার, প্রিমিয়ার লিগের দুটো দল খেলবে দুটি স্থানীয় দলের বিপক্ষে। মঙ্গলবার স্পার্তাক মস্কোর সঙ্গে খেলা লিভারপুলের আর বুধবার সিএসকেএ মস্কোর মাঠে খেলতে যাবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ম্যানচেস্টারের আরেক দল ম্যানসিটি বুধবারে নিজ মাঠে খেলবে শাখতারের সঙ্গে। উয়েফা


মন্তব্য