kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

অভিজ্ঞতা থেকেই মাশরাফি ভাইকে ওই বলটা করি

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



অভিজ্ঞতা থেকেই মাশরাফি ভাইকে ওই বলটা করি

বরিশাল বিভাগের ক্রিকেটার মনির হোসেন কাল দেখিয়েছেন দারুণ চমক। ৩ উইকেটে ৩৭১ রান নিয়ে দিন শুরু করা খুলনা আর মাত্র ৭৩ রান যোগ করতেই হারিয়েছে শেষ ৭ উইকেট, যার সবগুলোই নিয়েছেন বাঁ হাতি স্পিনার মনির।

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস তারই মুখোমুখি

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : আগের দিন যে দলটা এত ভালো ব্যাট করল, তাদের বিপক্ষে কী কৌশল নিলেন যে এত দ্রুত সব উইকেট তুলে নিলেন?

মনির হোসেন : খুলনা কিন্তু অনেক ভালো দল। ওদের দলে বেশির ভাগ ক্রিকেটারই এখন জাতীয় দলে খেলছে বা কিছুদিন আগেও জাতীয় দলে খেলেছে এ রকম। তারা এই মাঠে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলছে। আগের ম্যাচেও তারা বড় রান করেছিল, এনামুল ডাবল সেঞ্চুরি করেছিল। তাদের সামনে প্রথম দিনে আমরা একটু অগোছালোই ছিলাম। আর আমরা এর আগের ম্যাচটায় কক্সবাজারে এক দিন বোলিং করতে পেরেছিলাম, এরপর খেলা না হওয়াতে আর ব্যাটিং-বোলিং কিছুই করা হয়নি। তাই একটু প্রস্তুতির ঘাটতি ছিল। প্রথম দিন খেলার পর আজ (কাল) আমরা আরেকটু পরিকল্পনা করে বল করেছি, তাতেই এই সাফল্য।

প্রশ্ন : কী ছিল সেই পরিকল্পনা?

মনির : আমরা অনসাইডে বেশি ফিল্ডার রেখে বোলিং করেছি।

ওরা (খুলনা) তো প্রথম দিনে অনেক রান করেছিল, আমাদের পরিকল্পনা ছিল রান করতে না দেওয়া। রান না হলেই চাপে ওরা উইকেট দেবে। সেটাই হয়েছে।

প্রশ্ন : মাশরাফি বিন মর্তুজাকে আউট করেছেন শূন্য রানে। মাশরাফির উইকেট পাওয়ার অনুভূতিটা কি একটু আলাদা?

মনির : আসলে মাশরাফি ভাই শুধু না, খুলনায় নুরুল হাসান, জিয়াউর রহমান, মিঠুন সবাই তো জাতীয় দলের ক্রিকেটার। তবে মাশরাফি ভাই তো বাংলাদেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটার। আর স্পিনের বিপক্ষে বেশ মেরেও খেলতে পারেন, দ্রুত রান তুলতে পারেন। আমাদের পরিকল্পনা ছিল তাকে বেশিক্ষণ ব্যাট করতে না দেওয়া। তাই প্রথমেই একটা বিশেষ ডেলিভারি করি, তাতেই বোল্ড হয়ে যান।

প্রশ্ন : কী সেই বিশেষ ডেলিভারি?

মনির : আমার একটা ডেলিভারি আছে। পেস বোলাররা যেভাবে ইনসুইং করানোর সময় বলটা ধরে, সেভাবে ধরে জোরের ওপরে করি। সেটা বাইরে থেকে বল ভেতরে ঢোকে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় আসরে, দুরন্ত রাজশাহীর হয়ে খেলার সময় একটা ম্যাচে এভাবেই মাশরাফি ভাইকে আউট করেছিলাম। তাই মাশরাফি ভাই ব্যাটিংয়ে আসতেই এই বলটা করি। উনি বলের লাইনে আসার আগেই বোল্ড হয়ে যান।

প্রশ্ন : সামনে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের সঙ্গে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের একটি সিরিজ আছে। এই পারফরম্যান্স কি ‘এ’ দলে কোনো সুযোগ এনে দিতে পারে আপনাকে?

মনির : এটা তো নির্বাচকরা ভালো বলতে পারবেন। এইবার ঢাকা লিগে ব্রাদার্সের বিপক্ষে হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেট আছে। ১২ ম্যাচে নিয়েছিলাম ২২ উইকেট। জাতীয় লিগে গত বছর প্রথম স্তরে সর্বোচ্চ উইকেট আমার। তবু একবারও বোর্ডের অধীনে কোনো দল; হাইপারফরম্যান্স কিংবা ‘এ’ দল কোথাও ডাক পাইনি।


মন্তব্য