kalerkantho


নেইমারের সঙ্গে ‘দ্বন্দ্ব’ নেই কাভানির

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নেইমারের সঙ্গে ‘দ্বন্দ্ব’ নেই কাভানির

সব কিছু ঠিকঠাক নেই। ব্যক্তিত্বের সংঘাত স্পষ্ট পিএসজিতে।

অলিম্পিক লিঁওর বিপক্ষে পেনাল্টি নিয়ে মাঠেই বিতর্কে জড়ান নেইমার ও এদিসন কাভানি। একই ম্যাচে দানি আলভেস কাভানির হাত থেকে বল কেড়ে ফ্রি কিক নিতে দিয়েছিলেন নেইমারকে। আগুনে ঘি ঢেলে দেয় ফরাসি শীর্ষ দৈনিক ‘লেকিপ’-এর একটি রিপোর্ট। তারা লিখেছে, ‘ম্যাচ শেষে ড্রেসিংরুমে বিবাদে জড়ান নেইমার ও কাভানি। থিয়াগো সিলভা এগিয়ে না এলে হাতাহাতিও হতে পারত দুজনের। ’ তবে খবরটা বানোয়াট বলে উড়িয়ে দিয়েছেন কাভানি। নেইমারের সঙ্গে কোনো দ্বন্দ্ব নেই বলে দাবি উরুগুয়ের এই তারকার, ‘এ ধরনের খবর পুরোটা বানানো। আমার ভাইয়ের কাছ থেকে শুনেছি লেকিপের খবরটা, যার মধ্যে বিন্দুমাত্র সত্যতা নেই। খেলায় এসব হয়ে থাকে। নেইমারের সঙ্গে সব কিছু স্বাভাবিক আছে আমার, কোনো দ্বন্দ্ব নেই। ’

লেকিপই লিখেছে, চুক্তি অনুযায়ী ফ্রেঞ্চ লিগে শীর্ষ গোলদাতা হতে পারলে বোনাস এক মিলিয়ন ইউরো পাবেন কাভানি। এ জন্যই কি নেইমার ক্লাবে যোগ দেওয়ার পর তাঁর অভিষেক ম্যাচে পেনাল্টি নিতে দেননি কাভানি? ষষ্ঠ ম্যাচে এসে আবারও ফিরিয়েছেন এই ব্রাজিলিয়ানকে? কাভানি যুক্তিটা মানছেন না, ‘নেইমার মাত্রই ক্লাবে এসেছে। দ্রুত আমাদের সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছে ও। খামাখা রং মেশানো খবর তৈরির দরকার নেই কোনো। ’ লিঁওর বিপক্ষে কাভানির কাছ থেকে দৃষ্টিকটুভাবে বল কেড়ে নিয়েছিলেন আলভেস। ব্যাপারটা যে শোভন হয়নি বুঝেছেন পরে। তবে টানা আক্রমণের পরও গোল না হওয়ায় কাজটা করেছিলেন বলে জানালেন আলভেস, ‘ম্যাচের ফল পক্ষে না গেলে আপনাকে দায়িত্ব নিতে হবে। আমি সেটাই করেছি। এ রকম জায়গা থেকে এর আগে গোল করেছিলাম আমি। আত্মবিশ্বাসী ছিলাম আরেকটা গোল করার ব্যাপারে। ’

আলভেস অবশ্য নিজে ফ্রি কিক না নিয়ে বল বাড়িয়ে দেন নেইমারকে। ব্রাজিলিয়ান অধিনায়কের ফ্রি কিকে অবশ্য গোল হয়নি। তবে এই বিতর্কে নেইমারকে আড়াল করতে চাইছেন আলভেজ, ‘দলের জয়টাই আসল। কে শট নিল মোটেও গুরুত্বপূর্ণ নয়। দলের জয় সব সময় ব্যক্তিগত সাফল্যের উপরে। ’ এদিকে নেইমারকে আরো একবার একহাত নিলেন বার্সেলোনা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ। রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরোয় পিএসজিতে যোগ দেওয়া নেইমরকে অসৎ বললেন এবার, ‘আমরা তাদের (নেইমার ও তার উপদেষ্টাদের) বিশ্বাস করেছিলাম। একজন খেলোয়াড় চলে যেতে চাইলে তাকে অবশ্যই সৎ থাকতে হবে, যেমন ছিল সানচেস, পেদ্রো আর ফাব্রেগাস। ’ বার্তোমেউকে এবার কী পাল্টা দেন নেইমার, সেটাই দেখার। মার্কা


মন্তব্য