kalerkantho


বার্সা ছাড়ছেন মেসিও!

২৩ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



বার্সা ছাড়ছেন মেসিও!

নেইমার চলেই গেছেন, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাও সাফ জানিয়েছেন ভবিষ্যৎ নিয়ে নতুন করে ভাবনার কথা। গুঞ্জন চলছে লিওনেল মেসিকে নিয়েও।

নতুন চুক্তিতে এখনো সই না করা আর ম্যানচেস্টার সিটির পেছনেও মধ্যপ্রাচ্যের লগ্নীকৃত অর্থ এবং পেপ গার্দিওলাসহ বার্সেলোনার বেশ কয়েকজন সাবেক কর্মকর্তার উপস্থিতি ফের উসকে দিয়েছে মেসির দলবদলের সম্ভাবনা। সঙ্গে যোগ হয়েছে বার্সেলোনার প্রশাসনে অভ্যন্তরীণ অস্থিরতা।

নেইমারের আকাশছোঁয়া অঙ্কের রিলিজ ক্লজকে মামুলি বানিয়ে ফেলা প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ের এমন চোখ কপালে তোলা কাণ্ডের পর দলবদলের বাজারে অর্থ হয়ে গেছে খোলামকুচি। সাবেক বার্সেলোনা কোচ গার্দিওলা তো বলেই বসেছেন, মেসির ৩০০ মিলিয়ন ইউরো বাই আউট ক্লজটাও যে কেউ যেকোনো সময় দিয়ে বসতে পারে, ‘আমি ঠিক জানি না, তবে কারো কাছে যদি এই পরিমাণ টাকা থাকে আর সেটা খরচের ইচ্ছা থাকে তাহলে কে জানে, হতেও তো পারে?’ মেসি এখনো চুক্তিতে সই না করায় ডালপালা মেলছে গুজব। মেসির বর্তমান মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২০১৮-তে, এর মানে হচ্ছে জানুয়ারির ভেতর ক্লাব যদি তাঁর সঙ্গে চুক্তি সই না করতে পারে, তাহলে কোনো ক্লাবই টাকা দিয়ে মেসিকে নিতে রাজি হবে না! কারণ জুনে তো মেসি ফ্রি এজেন্টই হয়ে যাবেন। বার্সেলোনা ক্লাবের সাবেক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী আগুস্তি বেনেদিতো জানিয়েছেন, খুব দ্রুতই মেসির সই করার সম্ভাবনাও নেই।

হোসে মারিয়া বার্তোমেউয়ের বোর্ডের বিরুদ্ধে সেপ্টেম্বরের শুরুতে অনাস্থা ভোট আনতে যাচ্ছেন বেনেদিতো। তিনিই জানিয়েছেন, কেন সই করতে দেরি করছেন মেসি, ‘আমি মোটামুটি নিশ্চিত, মেসি এবং বার্সেলোনার অন্য খেলোয়াড়রা ক্লাবের প্রশাসনিক ব্যাপারগুলোর মধ্যে এক ধরনের ঢিলেমি দেখতে পেয়েছে। লিও হয়তো অনাস্থা ভোটের পর কী হয়, সেটা দেখতে চায়।

অক্টোবর, নভেম্বর—সে অপেক্ষা করেই যাবে। ’ বেনেদিতোর শঙ্কা, মেসিকে হয়তো কোনো ট্রান্সফার ফি ছাড়াই শেষ পর্যন্ত ছাড়তে হতে পারে, ‘বার্তোমেউ জুলাইতে বলেছিল মেসিকে সই করানো হয়েছে। কিন্তু সে সইই করেনি, বার্তোমেউ আগুন নিয়ে খেলছে। বার্তোমেউ যদি এভাবে চালাতে থাকে আর যে দলটা সে বানাচ্ছে, তাতে দেখা যাবে অবস্থাটা নেইমার যাওয়ার চেয়েও খারাপ হয়ে যাবে। দেখা যাবে লিও ফ্রি ট্রান্সফারে চলে যাচ্ছে, কোনো ফি ছাড়াই। ’

ওসমান দেম্বেলে আর জাঁ মাইকেল সের্যির ন্যু ক্যাম্পে আসাটা হয়তো শেষ পর্যন্ত হয়েই যাবে। তবে ফিলিপে কৌতিনিয়োকে নিয়ে এখনো আশা ছাড়ছে না কাতালানরা। বার্সেলোনায় আসার জন্য দল পরিবর্তনের অনুরোধ জানিয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন কৌতিনিয়ো, কথা বন্ধ কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের সঙ্গে। পরশু আরো একবার প্রস্তাব করে নাকি খালি হাতেই ফিরেছেন বার্সেলোনার প্রতিনিধি।

ওদিকে মঙ্গলবার মোনাকোর অনুশীলনে আন্দ্রেয়া রেজ্জির সঙ্গে মারপিটে জড়িয়ে পড়েন এমবাপে। শাস্তি হিসেবে কোচ লিওনার্দো জার্দিম তাঁকে অনুশীলন থেকে বাসায় ফেরত পাঠিয়ে দেন; কিন্তু এমবাপে ফেরত যেতে না চেয়ে গোঁ ধরে থাকেন। পরে দলের বাকিরা অন্য মাঠে চলে যায়। শাস্তি হিসেবে মেেজর সঙ্গে ম্যাচটায় খেলানো হয়নি এমবাপেকে। মার্কা, এএফপি


মন্তব্য