kalerkantho


রোনালদো-বেলকে ছাড়াও!

১৮ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



রোনালদো-বেলকে ছাড়াও!

রোনালদো নিষিদ্ধ। এরপর বেলকেও বেঞ্চে রেখে বার্সেলোনার বিপক্ষে নামছে রিয়াল মাদ্রিদ।

এই দেখে হয়তো রিয়াল সমর্থকদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছিল। কিন্তু জিনেদিন জিদান ছিলেন আত্মবিশ্বাসী। বিশ্বাসের প্রতিদান মার্কো অ্যাসেনসিও দিয়েছেন মাত্র চার মিনিটের মাথায়। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে এই তরুণের অবিশ্বাস্য এক শটে বার্সার সুপারকোপার স্বপ্ন মাটিতে গড়াগড়ি খেয়েছে। এতটা হয়তো জিনেদিন জিদানও ভাবেননি, ‘এমন গোল অন্যদের মতো আমিও উপভোগ করেছি। শুধুমাত্র সে ভালো খেলেনি, এই দলের জয়ের ক্ষুধা আছে এবং প্রত্যেকটি ম্যাচেই সেটা বোঝা যায়। ’ রিয়াল কোচের চোখে ক্লাসিকোর প্রথম ভাগটা ‘অসাধারণ’। অ্যাসেনসিওর ওই শটের পর ৩৯ মিনিটে করিম বেনজিমা বার্সার স্বপ্নে শেষ পেরেক ঠুকে দিলে বার্নাব্যুতে শুরু হয়ে যায় আরেকটি শিরোপা উৎসব। সপ্তম শিরোপা দিয়ে তাঁর ছোট কোচিং ক্যারিয়ারে বৃত্ত পূরণের পর এই ফুটবল গ্রেট স্বপ্নভরা চোখে তাকিয়ে আছেন সামনের দিকে, ‘এভাবে শুরু করতে পেরে আমি খুশি। সুপারকোপা দিয়ে একটা বৃত্ত পূরণ হয়েছে। আমরা আরেকটি মৌসুম শুরু করেছি, সামনে আছে চারটি শিরোপা। মোটেও সহজ হবে না, তবে আমরা চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য তৈরি। ’

ওদিকে কঠিন পরিক্রমা শুরুর আগেই পিকের হয়েছে নতুন উপলব্ধি, ‘বার্সেলোনায় ৯ বছরের ক্যারিয়ারে এই প্রথম আমার মনে হয়েছে মাদ্রিদের চেয়ে আমরা খারাপ দল। ’ বার্সা ডিফেন্ডার এরপর নিজেদের দুঃসময়ের কথাও বলেছেন, ‘দল হিসেবে আমরা এই মুহূর্তে খুব ভালো অবস্থায় নেই। ’ দলবদলে হারিয়েছে ‘এমএসএন’ ত্রয়ীর অন্যতম সেরা ফরোয়ার্ড নেইমারকে। এখনো সেই শূন্যতা পূরণ হয়নি। এই ভাঙনের ফল হাতেনাতে পেয়েছে মৌসুমের শুরুতে রিয়ালের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ বাজেভাবে হেরে। এর পরও কিন্তু ভালভের্দের কাছে রিয়াল ‘অজেয়’ দল নয়, ‘অজেয় কোনো দল নেই। খেলার ফল একরকমই হবে—এটা অবধারিত ভেবে নিলে তো প্রত্যেক দলই হারবে। ’ এরপর বার্সা কোচ নিজেদের দুর্ভাগা ভাবছেন মেসির শটটি বারে লেগে ফেরায়। সুয়ারেসকেও একবার হতাশ করেছে পোস্ট। ভালভের্দের বিশ্লেষণে এই দুর্ভাগ্য সঙ্গী হয়েছে বার্সার, ‘প্রাক-মৌসুমে যেসব ঘটনা ঘটেছে তাতে দলের ভারসাম্য নষ্ট হয়েছে। আমাদের কাজ হলো ভারসাম্য ফিরিয়ে আনা। ’ এএফপি


মন্তব্য