kalerkantho


এল ক্লাসিকোর উত্তাপে শুরু নতুন মৌসুম

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



এল ক্লাসিকোর উত্তাপে শুরু নতুন মৌসুম

স্প্যানিশ সুপার কাপ মাঠে গড়িয়ে যাওয়া মানেই লা লিগার ঢাকে কাঠি পড়ে যাওয়া। নতুন মৌসুম শুরুর আগে লিগ ও কাপজয়ী দুই দলের মুখোমুখি হওয়ার এ ম্যাচ দিয়েই গরমের ছুটি শেষে ফের মাঠে ফেরা ফুটবলারদের। এর আগে বিদেশে বা দেশে, প্রীতি ম্যাচ খেলেছে কমবেশি সব দলই; সুপার কাপটা হলো সেই আয়েশি ভঙ্গিটা ঝেড়ে ফেলে ফের প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ফুটবলে ফেরার প্রথম ধাপ। আর এবার লড়াইটা হচ্ছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার, তাই উত্তেজনাটা সর্বোচ্চ মাত্রার। রিয়াল এরই মধ্যে খেলে ফেলেছে মৌসুমের প্রথম প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ম্যাচ, উয়েফা সুপার কাপে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে তারা হারিয়েছে ২-১ গোলে। অন্যদিকে বার্সেলোনা যুক্তরাষ্ট্রে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন কাপ খেলার পর হুয়ান গ্যাম্পার ট্রফিতে খেলেছে চাপেকোয়েনশের বিপক্ষে। ১৯ আগস্ট শুরু হচ্ছে লা লিগার ৮৭তম মৌসুম। তার আগে দুই লেগের এ ম্যাচ থেকে গোটা মৌসুমের বারুদ নিঃসন্দেহে খুঁজতে চাইবে দুই দলই।

উয়েফা সুপার কাপে ম্যানইউকে নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করেই জিতেছে রিয়াল। অমন গোল মিসের মহড়া না হলে স্কোরলাইনটা আরো বড় হতেই পারত। ম্যাচ শেষে কোচ জিনেদিন জিদানের কণ্ঠে ছিল গোটা ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখার তৃপ্তি।

তবে বার্সেলোনার সঙ্গে ম্যাচটা যে অতটা সহজ হবে না, সেটা ‘জিজু’র ভালো করেই জানা! কোচ জিজুর জমানায় গত মৌসুমে লিগ, চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা রিয়ালও হারাতে পারেনি বার্সেলোনাকে। ন্যু ক্যাম্পে সের্হিয়ো রামোসের শেষ মুহূর্তের গোলে ১-১ ড্র আর বার্নাব্যুতে লিওনেল মেসির জোড়া গোলে বার্সেলোনার জয়। গত মৌসুমে অনেক সুখস্মৃতির গোলাপতোড়ার মাঝে এ কাঁটাটাও যে আছে! ওদিকে বার্সেলোনায় কোচ বদলেছে, লুই এনরিকের বদলে এসেছেন এর্নেস্তো ভেলভের্দে, পিএসজিতে গেছেন নেইমার। তবু জিদান মনে করছেন, বড় কোনো বদল হবে না বার্সেলোনার খেলার ধাঁচে, ‘বদল হয়েছে ঠিকই, তবে বার্সেলোনা সেই বার্সেলোনাই আছে। যে দলটার মুখোমুখি অতীতে আমি হয়েছি, তার থেকে ওরা একটুও দুর্বল হয়ে পড়েনি। তারা কিভাবে খেলে আমি জানি। এর পরও আমরা যদি ধরে নিই যে তারা দুর্বল হয়ে গেছে, এটা ভেবে মাঠে নামলে ভুলই হবে। ’ লা লিগা, চ্যাম্পিয়নস লিগ, উয়েফা সুপার কাপের পর আরেকটি শিরোপার হাতছানি, তবে সামনে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী কাতালানরা! জিদান পরিস্থিতিটাকে দেখছেন বিশেষ একটা সুযোগ হিসেবেই, ‘আরেকটা ট্রফি জেতার সুযোগ, এ জন্যই ম্যাচটা বিশেষ কিছু। আর বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলাটা তো আরো বাড়তি স্পেশাল! আমরা সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি। ’ তবে একটা অনুযোগ আছে জিদানের। ইংল্যান্ডে কমিউনিটি শিল্ড, ফ্রান্সে ও জার্মানিতে সুপার কাপ সবই হয় একটা করে ম্যাচ। স্পেনে দুই লেগের ম্যাচ, এটা নিয়ে জিদানের মত—‘দুটো ম্যাচ খেলতে হচ্ছে। একটা বার্সেলোনায়, একটা এখানে মাদ্রিদে। নিয়মটা এমনই, তবে আমি একটা ম্যাচ খেলাটাই বেছে নিতাম। ’ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো প্রস্তুতি পর্বে পুরোটা সময় ছিলেন না রিয়ালের সঙ্গে, উয়েফা সুপার কাপেও মাঠে নেমেছেন শেষ সময়ে। এই ম্যাচে তাঁর খেলা নিয়ে জিদান জানালেন, ‘সে তৈরি। ছুটিতে থাকলেও সে সময় জিম ট্রেনিং করেছে। এসেছে পাঁচ-ছয় দিন তো হয়ে গেল। সে তৈরি। ’ তবে মার্কা বলছে, প্রথমার্ধ বেঞ্চে থেকে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মাঠে নামবেন রোনালদো। জিদানকে এই ভরসা দিচ্ছে সুপার কাপে ইসকো ও কাসেমিরোর দারুণ পারফরম্যান্স।

তাতে করে ভেঙে যাচ্ছে ‘বিবিসি’। জিদান খুব সম্ভবত ৪-৩-৩ ছকের বদলে ৪-৪-২ ছকেই খেলাবেন এ ম্যাচে। করিম বেনজেমা শুরু থেকে খেলবেন গ্যারেথ বেলের সঙ্গে, রোনালদো মাঠে নামবেন দ্বিতীয়ার্ধে। অন্যদিকে বার্সেলোনা থেকে নেইমারের বিদায়ের বড় কোনো প্রভাব চোখে পড়েনি চাপেকোয়েনশের বিপক্ষে ম্যাচে। ফিলিপে কৌতিনিয়োকে পাওয়া যাচ্ছে না, তবে তাঁর জায়গায় ভেলভের্দের পছন্দ জেরার্দ দেলোফুকে। বার্সার একাডেমি থেকে উঠে আসা এ উইঙ্গারকে অন্য ক্লাবে বেচে দিলেও পরে ‘বাই-ব্যাক’ সুবিধা কাজে লাগিয়ে ফিরিয়ে এনেছে তাঁকে। চাপেকোয়েনশের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচটা ভালো খেলেছেন, এল ক্লাসিকোতে মনে রাখার মতো পারফরম্যান্স তাঁকে নিয়মিত করে তুলতে পারে মূল একাদশে। রাইট ব্যাকে নতুন কেনা নেলসন সেমেদোর চেয়ে অ্যালেক্স ভিদালকেই দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। লেফট ব্যাক ইয়োর্দি আলবা, মাঝে উমতিতি আর পিকে। রিয়ালের একাদশে দেখা যাবে না লুকা মডরিচকে। ২০১৪ সালে সুপার কাপে লাল কার্ড দেখেছিলেন এই ক্রোয়াট। এরপর এটাই তাঁর সুপার কাপে খেলা! নিয়মটা অবশ্য পরের বছর বদলে গেছে। এখন থেকে সুপার কাপে লাল কার্ড দেখলে সেটা কার্যকর হবে পরের লিগ ম্যাচে।

এ ম্যাচকে সামনে রেখে গতকাল শেষ অনুশীলন সেশনটা সমাপ্ত করেছে রিয়াল, অন্যদিকে কাল সন্ধ্যায় শেষ অনুশীলনটাও সেরে ফেলেছে বার্সেলোনা। এবার মাঠে নামার পালা। মার্কা


মন্তব্য