kalerkantho


পর্তুগালকে রুখে দিল মেক্সিকো

১৯ জুন, ২০১৭ ০০:০০



পর্তুগালকে রুখে দিল মেক্সিকো

কনফেডারেশনস কাপে প্রথম ম্যাচেই হোঁচট খেল ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। দু-দুবার এগিয়ে গিয়েও একেবারে অন্তিম মুহূর্তে গোল হজম করে মেক্সিকোর সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।

কাজানের ম্যাচে লক্ষ্যভেদ করতে না পারলেও রোনালদোর পাসেই ৩৪ মিনিটে পর্তুগালকে এগিয়ে নেন রিকার্দো কুয়ারেসমা। তাদের উচ্ছ্বাস মিলিয়ে যেতেও সময় লাগেনি বেশিক্ষণ। বিরতির আগেই মেক্সিকোর হয়ে সমতা ফেরান হাভিয়ের এর্নান্দেজ। বিয়াল্লিশ মিনিটে আলবার্তো ভেলার পাসে হেডে অসাধারণ গোল করেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলা বেয়ার লেভাকুসেনের এই ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় ১-১ গোলের সমতায়। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে সম্ভাবনা তৈরি করলেও কাঙ্ক্ষিত গোলটি আর পাচ্ছিল না কোনো দল। অবশেষে পর্তুগালের ত্রাতা হয়ে আসেন সেদরিক। ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজার মিনিট চারেক আগে তাঁর গোলে আবার এগিয়ে যায় পর্তুগাল। গেলসন মার্তিনসের ক্রসে মেক্সিকোর একজন খেলোয়াড়ের শরীরে লেগে প্রতিফলিত হওয়া বল জালে জড়িয়ে দেন রক্ষণভাগের এ খেলোয়াড়। তখন মনে হচ্ছিল জয় নিয়েই হয়তো মাঠ ছাড়বে পর্তুগাল। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে হেক্তর মরেনো লক্ষ্যভেদ করলে এক পয়েন্ট নিয়েই তৃপ্ত থাকতে হয় ইউরো চ্যাম্পিয়নদের। ৯১ মিনিটে দস সান্তোসের কর্নারে লাফিয়ে হেডে লক্ষ্যভেদ করেছেন এই ডিফেন্ডার। আর তাতেই রোনালদোদের হতাশায় ডুবিয়ে এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেক্সিকো।

স্বাগতিক রাশিয়া অবশ্য জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে। কানায় কানায় ভরল না সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়াম। স্বাগতিক রাশিয়াও খেলল না মন ভরানো ফুটবল। তার পরও ৫০ হাজার দর্শকের সামনে কনফেডারেশনস কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ২-০ গোলের জয়ে মাঠ ছাড়াটা তৃপ্তির রশিয়ার জন্য। পেছাতে পেছাতে র্যাংকিংয়ের ৬৩ নম্বরে চলে যাওয়া দেশটির কোচ স্তানিস্লাভ চেরচেশভ এই জয় থেকে খুঁজছেন ঘুরে দাঁড়ানোর প্রেরণা, ‘নিউজিল্যান্ড শক্তিশালী দল। আমরা জিতেছি ওদের নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে না দিয়ে। ম্যাচে দাপট ছিল আমাদেরই, যা প্রেরণা জোগাবে পর্তুগাল ও মেক্সিকোর বিপক্ষে পরের কঠিন দুটি ম্যাচে। ’

দুই হাজার শিল্পীর জমকালো পারফরম্যান্সে উপভোগ্যই ছিল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটা। ৫০ হাজার দর্শকের পাশাপাশি যা উপভোগ করেন কিংবদন্তি পেলে, ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বিশ্বকাপের পরের আসর বসবে রাশিয়াতেই। কনফেডারেশনস কাপের মতো সেটাও বর্ণিল করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাখলেন পুতিন, ‘মানের দিক দিয়ে কনফেডারেশনস কাপ সর্বোচ্চ স্তরে আয়োজন করা আমাদের দায়িত্ব। বিদেশি অতিথিরা আমাদের আন্তরিকতা আর বিশ্বের জন্য উন্মুক্ত এক রাশিয়া দেখতে পাবেন বলেই বিশ্বাস আমার। ’ ফিফা প্রেসিডেন্ট ইনফান্তিনোও ফুটবলপ্রেমীদের আহ্বান জানিয়েছেন রাশিয়া আসার। এই টুর্নামেন্টটা নিয়ে আশাবাদ জানালেন ইংরেজি ও রাশান ভাষা মিলিয়ে দেওয়া সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে, ‘আশা করছি রাশিয়ায় এ আসর ফিফার সেরা টুর্নামেন্টের খেতাব পাবে। ’

শক্তিতে পিছিয়ে থাকা নিউজিল্যান্ড উদ্বোধনী ম্যাচে দাগ কাটতে পারেনি সেভাবে। বল দখলে রাশিয়ার ৫৯ শতাংশের বিপরীতে তাদের ছিল ৪১ শতাংশ। বিপক্ষের পোস্টে রাশিয়ার ১৮ শটের আটটি ছিল লক্ষ্যে আর নিউজিল্যান্ডের ছিল মাত্র তিনটি। এই পরিসংখ্যানই বলছে আক্রমণে রাশিয়া কতটা এগিয়ে। স্বাগতিকরা লিড নেয় আত্মঘাতী গোলে। দেনিশ গ্লুশাকভের নেওয়া শট জালে জড়ায় নিউজিল্যান্ডের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় মাইকেল বক্সালের পায়ে লেগে। গোলটা শুরুতে নিজেরই ভেবেছিলেন গ্লুশাকভ, ‘নিজের গোল মনে করে উদ্যাপন করেছিলাম। পরে স্কোরে দেখি এটা আত্মঘাতী। তাতে কিছু যায় আসে না। দলের এগিয়ে যাওয়ায় অবদান রাখতে পেরে খুশি আমি। ’ এএফপি

 


মন্তব্য