kalerkantho


মহারাজে পথহারা নিউজিল্যান্ড

১৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ওয়েলিংটনের সবুজ উইকেটে চোখ চকচক করে পেসারদের। সেখানেই কিনা ছড়ি ঘোরালেন এক স্পিনার। ৬ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডকে ধসিয়ে দিলেন কেশব মহারাজ। তাঁর ঘূর্ণিতে দিশেহারা কিউইরা তিন দিনে হারল দ্বিতীয় টেস্ট। গতকাল দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ড ১৭১ রানে গুটিয়ে যাওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্য দাঁড়ায় ৮১ রান। ফাফ দু প্লেসিসের দল ২ উইকেট হারিয়ে ২৫ ওভারের আগেই সেখানে পৌঁছে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০তে।

মহারাজের ৬ উইকেটে বিস্ময় খোদ প্রোটিয়া অধিনায়ক দু প্লেসিসের কণ্ঠে। ওয়েলিংটনে জেতাটাকে ‘অসম্ভব’ও মনে হচ্ছে তাঁর, ‘দ্বিতীয় দিন লাঞ্চের আগে ৯৪ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিলাম। সেই টেস্টটি তিন দিনে জেতা অসম্ভব মনে হবে যে কারো। নিজেদের ব্যাটিংয়ের ওপর আত্মবিশ্বাসী ছিলাম আমরা। আর মহারাজ তো এককথায় অসাধারণ।

এই উইকেটে টার্ন ছিল না, তার পরও কোনো স্পিনারের ৬ উইকেট নেওয়াটা বিশেষ কিছু। ’ ডানেডিনে ড্র হওয়া প্রথম টেস্টে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন মহারাজ। এই বাঁহাতি স্পিনার এবার দ্বিতীয় ইনিংসে ক্যারিয়ার সেরা ৪০ রানে ৬ উইকেট নিয়ে হলেন ম্যাচসেরা। সবশেষ ১৯৭৩ সালে নিউজিল্যান্ডে টানা দুই টেস্টে পাঁচ বা এর বেশি উইকেট নিয়েছিলেন পাকিস্তানি স্পিনার ইন্তিখাব আলম।

আগের দিনের ৯ উইকেটে ৩৪৯ নিয়ে খেলতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকা গুটিয়ে যায় ৩৫৯ রানে। ৯১ রানে পিছিয়ে থাকলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ ছিল নিউজিল্যান্ডের। কিন্তু মহারাজের ঘূর্ণিতে চা বিরতির পর ১৭১ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকাকে করতে হতো ৮১। ডিন এলগার ১৭ ও স্টিফেন কুক ১১ রানে ফিরলেও হাশিম আমলার (৩৮*) দৃঢ়তায় গতকালই ৮ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে প্রোটিয়ারা। সিরিজ বাঁচাতে হ্যামিল্টনে শেষ টেস্টে জিততেই হবে নিউজিল্যান্ডকে। ক্রিকইনফো

নিউজিল্যান্ড : ২৬৮ ও ৬৩.২ ওভারে ১৭১ (রাভাল ৮০; মহারাজ ৬/৪০)। দক্ষিণ আফ্রিকা : ৯৮ ওভারে ৩৫৯ (ডি কক ৯১, বাভুমা ৮৯; গ্র্যান্ডহোম ৩/৫২, ওয়াগনার ৩/১০২) ও ২৪.৩ ওভারে ৮৩/২ (আমলা ৩৮*)। ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ৮ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : কেশব মহারাজ।


মন্তব্য