kalerkantho


মোহামেডান নয়তো রূপগঞ্জে তামিম

১৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন তারা। এবারও আবাহনী লিমিটেডের দলটি কাগজ-কলমে অন্তত সবচেয়ে শক্তিশালী। কিন্তু দলবদলে সেই জৌলুস কোথায়! ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ সামনে রেখে দুই দিনের দলবদল শেষ হওয়ার আধঘণ্টা আগে কাল দলেবলে শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আসে তারা। কিন্তু তা ঘিরে আকর্ষণের ছিটেফোঁটাও ছিল না।

থাকবে কেন? মোহাম্মদ মিঠুন, সাইফ হাসান, আবু জায়েদ, আফিফ হোসেন, সাদমান ইসলাম, অনিক ইসলাম, মোহাম্মদ ফোরকানরা তো আর সে অর্থে বড় নাম নয়। তবু আবাহনী এবারের সবচেয়ে শক্তিশালী দল। আগের দিন নাম লেখানো শুভাগত হোম, সানজামুল ইসলাম ও মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন তো রয়েছেনই। আর শ্রীলঙ্কায় জাতীয় দলের সঙ্গে থাকা মাহমুদ উল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, লিটন দাশদের গায়েও উঠবে আবাহনীর জার্সি। তামিম ইকবালের সঙ্গে আবাহনীর আলোচনার পথ বন্ধ হয়ে গেছে। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, মোহামেডান নয়তো রূপগঞ্জে খেলবেন বাঁহাতি এ ওপেনার। তো, তিনিও শ্রীলঙ্কায়।

এমন তারকারা না থাকায় দলবদলটা জমজমাট হলো না, এই যা!

ইমার্জিং কাপের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলতে কয়েক ক্রিকেটার ফতুল্লা থাকায় কাল আবাহনীর দলবদলে পেরিয়ে যায় সন্ধ্যা। একদার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান ঘর গুছিয়ে যায় বিকেলেই। সাম্প্রতিক বছরগুলোর ধারাবাহিকতায় সেখানে যথারীতি বিবর্ণতার ছায়া। শামসুর রহমান, জুবায়ের হোসেন, রনি তালুকদারদের ওই দলের চ্যাম্পিয়নশিপ লড়াইয়ের থাকার সামর্থ্যটা প্রশ্নবিদ্ধ। তা জাতীয় দলের সঙ্গে শ্রীলঙ্কায় থাকা তামিম ইকবাল, মেহেদী হাসান মিরাজ, শুভাশীষ রায়, তাইজুল ইসলামদের মধ্য থেকে তিনজন যোগ দিলেও। গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শামসুর তবু শিরোপা লড়াইয়ে থাকার ঘোষণা দেন।

এ ছাড়া কাল শাহরিয়ার নাফীস, আরাফাত সানি, মার্শাল আইয়ুবরা নাম লেখান প্রাইম দোলেশ্বরে। রাজিন সালেহ শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবে। ব্রাদার্স দলে ভেড়ায় অলক কাপালি, জুনায়েদ সিদ্দিকী, ফরহাদ হোসেন, মাইশুকুর রহমানদের। দলবদলটা সাদামাটা হলেও ‘প্লেয়ার্স ড্রাফট’-এর শেকল ভেঙে নিজেদের পছন্দমতো ক্লাব বেছে নেওয়ার খুশি ছিল সব ক্রিকেটারের চোখে-মুখে।


মন্তব্য