kalerkantho


বার্সার সামনে জুভেন্টাস বায়ার্নকে পেল রিয়াল

১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বার্সার সামনে জুভেন্টাস বায়ার্নকে পেল রিয়াল

চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র অনুষ্ঠান শুরুর আগে অনেকেই বলছিলেন অনেক কিছু। বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কোচ চাইছিলেন না বায়ার্ন মিউনিখের সামনে পড়তে। এমন নয় যে বাভারিয়ানদের ভয়ে এড়াতে চাইছেন ডর্টমুন্ডের কোচ থমাস টুশেল, তাঁর যুক্তি ছিল, ‘আমরা অল-জার্মান ড্র চাই না। এমন নয় যে আমরা ভয় পাই, কারণ হচ্ছে আমরা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ করতে চাই। ’ আশা পূরণ হয়েছে ডর্টমুন্ড কোচের, তাঁর দল খেলবে মোনাকোর বিপক্ষে, যারা হারিয়ে এসেছে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটিকে।

ড্রতে নাকি বরাবরই সহজ প্রতিপক্ষ পায় রিয়াল মাদ্রিদ, এমন একটা নাকিকান্নাও শোনা যায়! সেটা উসকে দিতে পারে সেপ ব্ল্যাটারের গরম বল-ঠাণ্ডা বল তত্ত্ব। জিনেদিন জিদানও এই নিয়ে ড্রর আগে বলেছিলেন ‘আমার মনে হয় না এমন কোনো কোচ আছে, যারা স্বেচ্ছায় লিস্টার সিটিকে (প্রতিপক্ষ হিসেবে) বেছে নিতে চাইবে। ’ নিন্দুকদের মুখে ছাই দিয়েই সম্ভাব্য কঠিনতম প্রতিপক্ষ পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ, শেষ চারে জায়গা পেতে তারা লড়বে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে। জুভেন্টাসের গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন বলেছিলেন, ‘আমি লিস্টার সিটিকে এড়াতে চাই, তারা ভয়ংকর প্রতিপক্ষ। ’ লিস্টারকে ঠিকই এড়িয়েছে জুভেন্টাস, পেয়েছে বার্সেলোনাকে।

তাতে হয়তো কাতালান সমর্থকরাও একটু স্বস্তি পেয়েছে, কারণ ভাগ্যচক্রে রিয়াল মাদ্রিদ বা অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ প্রতিপক্ষ দাঁড়িয়ে গেলে হয়তো বাড়তি একটা মানসিক চাপই জেঁকে বসত রূপকথা গড়ে শেষ আটে ঠাঁই পাওয়া বার্সেলোনার।

যে লিস্টারকে নিয়ে ভয় ছিল বুফন-জিদানদের, সেই ফক্সদের প্রতিপক্ষ অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। তাই ক্রেইগ শেক্সপিয়ারকে সামলাতে হবে ডিয়েগো সিমিওনের মতো ধুরন্ধর ফুটবল মস্তিষ্ককে।

ইউরোপিয়ান কাপ নাম বদলে চ্যাম্পিয়নস লিগ হওয়ার পরই তাতে লেগেছে ‘অভিশাপ’! কোনো দলই ধরে রাখতে পারেনি শিরোপা, পর পর দুই মৌসুম কোনো দলই জিততে পারেনি চ্যাম্পিয়নস লিগ। সেটাই কি সত্যি হতে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদের বেলায়? শেষ আটে তারা পেয়েছে শক্তিশালী বায়ার্ন মিউনিখকে, যাদের কোচের চেয়ারে আবার রিয়ালেরই সবশেষ সাবেক কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। রিয়ালকে ‘লা দেসিমা’ জেতানো এই কোচই এখন লেভানদোস্কি-ভিদালদের নিয়ে গড়বেন রিয়ালকে আটকাবার চক্রব্যূহ। ম্যাটস হুমেলস টুইট করেছেন, ‘রিয়াল মাদ্রিদ, আমরা আসছি। ’ লেভানদোস্কিও লিখেছেন, ‘এগিয়ে যাও বায়ার্ন। ’ ডেভিড আলাবাও টুইট করেছেন, ‘রিয়াল মাদ্রিদ, আমাদের আর তর সইছে না। ’ বুন্দেসলিগা ছাড়িয়ে তাদের চোখ যে চ্যাম্পিয়নস লিগে সেটা স্পষ্টই। ১২ এপ্রিল রিয়াল খেলবে বায়ার্নের মাঠে, এর আগ পর্যন্ত ২২ বার চ্যাম্পিয়নস লিগে মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দল। ১৮ এপ্রিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যু হবে ফিরতি ম্যাচ।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম ম্যাচ ডে ১১ এপ্রিল, মঙ্গলবার। সেদিন বরুশিয়া ডর্টমুন্ড নিজমাঠে মুখোমুখি হবে এএস মোনাকোর। একই তারিখে জুভেন্টাসের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলবে বার্সেলোনা। পরদিন জার্মানিতে বায়ার্ন-রিয়াল ম্যাচ আর মাদ্রিদে অ্যাতলেতিকোর আতিথ্য নেবে লিস্টার। ১৮ তারিখে ফিরতি লেগে কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে লিস্টারের বিপক্ষে খেলবে অ্যাতলেতিকো আর মাদ্রিদে রিয়াল খেলবে বায়ার্নের বিপক্ষে। পরদিন মোনাকোর সঙ্গে খেলা ডর্টমুন্ডের, ন্যু ক্যাম্পে বার্সেলোনা খেলবে জুভেন্টাসের বিপক্ষে। উয়েফা, টুইটার


মন্তব্য