kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

আবহাওয়ার কথা মাথায় নিয়ে খেলতে নামা যায় না

১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



আবহাওয়ার কথা মাথায় নিয়ে খেলতে নামা যায় না

 প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয়টির দেখা পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছিল বছর দশেক। দুই থেকে তিনে পৌঁছেছেন এক বছরের মধ্যেই।

কাল বাংলাদেশের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেছেন উপুল থারাঙ্গা। গলে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন তিনি, যেখানে ছিলেন কালের কণ্ঠের প্রতিনিধিও

প্রশ্ন : শেষ দিনে এসে কী কৌশল হবে শ্রীলঙ্কার?

উপুল থারাঙ্গা : আমরা আজ (কাল) বাংলাদেশের কোনো উইকেট ফেলতে পারলাম না, এটা হতাশার। আরো ৯৮ ওভার খেলা বাকি, আশা করছি শেষ দিনে পিচে স্পিনারদের জন্য কিছু থাকবে। চা বিরতির পর আমাদের উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশের সামনে ১২৫ ওভারের সময় রাখা, যাতে আমাদের বোলাররা অলআউট করার জন্য পর্যাপ্ত সময় পায়। তবে বৃষ্টির জন্য এরই মধ্যে ১১ ওভারের মতো ক্ষতি হয়ে গেছে।

প্রশ্ন : তৃতীয় টেস্ট সেঞ্চুরি পেয়ে কতটা সন্তুষ্ট?

থারাঙ্গা : প্রথম ইনিংসে খুব একটা কিছু করতে পারিনি, এই ইনিংসে চেষ্টা করেছি দলের জন্য কিছু করার। ওপেনার হলেও গত দুটি সিরিজে আমি মিডল অর্ডারে ব্যাট করেছিলাম। এই সিরিজ শুরুর আগে আমাকে আবার যখন বলা হয় ওপেন করতে, তখন স্বাভাবিকভাবেই আমি রাজি হই। তবে যেখানেই খেলি না কেন, দলের জন্য কিছু করতে পারলে ভালো লাগাটা বেড়ে যায়।

প্রশ্ন : কোনটা বেশি চ্যালেঞ্জিং, শুরুতে না মাঝে ব্যাট করা?

থারাঙ্গা : টপ অর্ডার ব্যাটিং আর মিডল অর্ডার ব্যাটিংটা একদমই আলাদা। এই একবার ওপরে, একবার নিচে, ফের ওপরে—এভাবে বদলাবদলি হলে মানিয়ে নেওয়াটা কঠিন। সেটাকেই আমি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। টেস্ট ম্যাচে ওপেন করলে দেখা যায় প্রথম এক-দুই ঘণ্টা বলের সিম মুভমেন্ট থাকে, সেটার জন্য প্রস্তুত থাকতে হয়।

প্রশ্ন : উইকেটের অবস্থা কী হবে বলে মনে করেন?

থারাঙ্গা : চতুর্থ দিনেও স্পিনাররা খুব একটা টার্ন পায়নি। যেটা বেশ অস্বাভাবিক। তবে বড় রানের পুঁজি হাতে থাকলে তারা আক্রমণাত্মক হয়ে উঠতে পারে। তবে ফাস্ট বোলাররা যেমন বল করল, তাতে মনে হচ্ছে বাউন্স অসমান। তবে শেষের দিকে খানিকটা সাহায্য পেয়েছে স্পিনাররাও, আশা করি কাল (আজ) আমাদের বোলারদের জন্যও সেটা বরাদ্দ থাকবে।

প্রশ্ন : হাফসেঞ্চুরির পর বেশ আগ্রাসী ব্যাটিং করলেন...

থারাঙ্গা : আমাদের তখন দ্রুত রান তোলা দরকার ছিল। মধ্যাহ্ন বিরতির পর আমাদের মধ্যে কথা হয়, তখনই বলা হয় দ্রুত রান তুলতে। তাই আমিও চালিয়ে খেলি।

প্রশ্ন : পাকিস্তানের সঙ্গে সেই টেস্টের মতো হয়ে যাবে না তো ব্যাপারটা, যেটায় চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করে পাকিস্তান জিতেছিল ১০ উইকেটে?

থারাঙ্গা : এখন পর্যন্ত যা হচ্ছে এই টেস্টে, তাতে আমরাই এগিয়ে আছি। আসলে পাকিস্তানের সঙ্গে সেই ম্যাচের কথা মাথাতেই আসেনি। আমাদের লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশকে ১২৫ ওভার ব্যাট করার সময় দেওয়া।

প্রশ্ন : বৃষ্টি কি বাঁচিয়ে দিতে পারে বাংলাদেশকে?

থারাঙ্গা : আবহাওয়ার কথা মাথায় নিয়ে মাঠে খেলতে নামা যায় না। যত ওভার বাকি আছে সেটা হিসাব করে সব কিছু মাথায় নিয়ে আমাদের শেষ দিনের ছকটা করতে হবে।


মন্তব্য