kalerkantho


রিয়ালেরও হতে পারতেন ম্যারাডোনা

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



রিয়ালেরও হতে পারতেন ম্যারাডোনা

ঐতিহাসিকভাবেই দুই প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ সব সময় চেয়েছে যুগের সেরা খেলোয়াড়টিকে নিজেদের জার্সি পরাতে। সেটা ছলে-বলে-কৌশলে, যেভাবেই হোক।

বার্সার সঙ্গে চুক্তি করেও পরে রিয়ালের হয়ে যান আলফ্রেদো দি স্তেফানো। সেভাবেই বার্সায় যোগ দিতে স্পেনে এসে রিয়ালের হয়ে যেতে পারতেন ডিয়েগো ম্যারাডোনাও!

রিয়ালের কিংবদন্তি আলফ্রেদো দি স্তেফানোকেই তো প্রথমে সই করিয়েছিল বার্সেলোনা। পরে নানা জটিলতায় তারা এই আর্জেন্টাইনকে ছেড়ে দেয় রিয়ালের কাছে। পরে হয়তো প্রকৃতিই তাদের সুযোগ দিয়েছিল হিসাব মিলিয়ে নেওয়ার। ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে সই করাতে রিয়াল প্রচণ্ড আগ্রহী থাকলেও শেষ পর্যন্ত ‘আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর’ যে পা ফেলেছিলেন বার্সেলোনাতেই। যদিও অনুভূতিটা সুখকর হয়নি উভয় পক্ষের জন্যই।

স্পেনে এসে চুক্তির আগে ম্যারাডোনা ও তাঁর এজেন্ট হোর্হে চেস্টারপিলার যে বাড়িটায় ভাড়া থাকতেন (হোর্হে পরে কিনে নেন বাড়িটা), সেই বাড়ির সাবেক মালিক ও স্প্যানিশ গায়ক ফ্রান্সিসকো শোনালেন নেপথ্যের গল্প। স্প্যানিশ দৈনিক ‘এএস’-এর কাছে শুনিয়েছেন রিয়াল-কর্তাদের চেষ্টাচরিত্রের কথা, ‘ম্যারাডোনা ও তার এজেন্টের সঙ্গে প্রথম দেখা বুয়েনস এইরেসে। ১৯৮২ সালে তারা এসেছিল, তখন আমার বাড়িটায় থাকত।

সেটা ছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর খুব কাছে। ’ রিয়ালের কোচ তখন দি স্তেফানো, তিনিও ম্যারাডোনাকে সই করানোর আগ্রহে বলেছিলেন, ‘দেখি কী করা যায়। ’ বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি করতে স্পেনে এসে ম্যারাডোনার এজেন্ট গোপনে রিয়ালের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছিলেন। তখন ব্যাপারটা হয়ে যায় টাকার খেলা। ফ্রান্সিসকো জানান ‘শেষ পর্যন্ত সে বার্সাতেই যোগ দেয়, কারণ ওরা বেশি টাকা দিচ্ছিল। চেস্টারপিলার আমার ফ্ল্যাটটা কিনে নেয়। ’যদিও শেষ পর্যন্ত দুই মৌসুমের বেশি থাকতে পারেননি ম্যারাডোনা। গোল ডটকম


মন্তব্য