kalerkantho


অক্টোবর থেকে বদলাচ্ছে আইন

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



অক্টোবর থেকে বদলাচ্ছে আইন

ক্রিকেটের প্রশাসনটা আইসিসির হাতে থাকলেও নিয়ম-কানুন এখনো প্রণয়ন করে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব বা এমসিসিই। ১ অক্টোবর থেকে ব্যাটের মাপ, খেলোয়াড়দের শাস্তির নতুন বিধান এবং রান আউটের নিয়মে খানিকটা সংশোধন নিয়ে ক্রিকেটের নিয়ম-নীতিতে খানিকটা পরিবর্তন আনছে সংস্থাটি। সেই সঙ্গে যেন ক্রিকেটে লিঙ্গবৈষম্যও খানিকটা কমছে! এত দিন আচরণবিধিতে ক্রিকেটারকে সব সময় ‘হি’ শব্দে সম্বোধন করা হতো। এখন থেকে সেটা ‘হি/শি’ হচ্ছে!

টি-টোয়েন্টির আগ্রাসনের সঙ্গে ব্যাটের চওড়া কানার মারের চোটে বোলারের দীর্ঘশ্বাস। এই দৃশ্য কমিয়ে দিচ্ছিল ক্রিকেটের রোমাঞ্চ। ব্যাটের মাপ বেঁধে দেওয়াতে এখন সেই দৌরাত্ম্য কিছুটা কমবে বলে আশা করা হয়েছে এমসিসির পাঠানো বিবৃতিতে। ব্যাটের মাপ হবে ১০৮ মিলিমিটার চওড়া, ৬৭ মিলিমিটার পুরু আর ব্যাটের প্রান্তগুলো হবে ৪০ মিলিমিটার পুরু। এ প্রসঙ্গে এমসিসির বক্তব্য, ‘ব্যাটের আকারের ইস্যুটা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস, যে মাপ আমরা বেঁধে দিয়েছি, তার মধ্যে থেকেই ক্রিকেটাররা বড় বড় ছক্কা মেরে দর্শকদের আনন্দ দেবেন। ’

খেলোয়াড়দের শাস্তির বিধানে আসছে অভিনব পরিবর্তন। বলের মাপ নেওয়ার জন্য একটা গেজ থাকে আম্পায়ারের কাছে, এখন থেকে ব্যাটের মাপ রাখার গেজও থাকবে।

মাঠে কোনো ‘সহিংস আচরণের বহিঃপ্রকাশ’ হলে তাত্ক্ষণিকভাবে আম্পায়াররা শাস্তি দিতে পারবেন খেলোয়াড়কে। তবে রহিত করা হয়েছে লাল কার্ড/হলুদ কার্ডের ব্যাপারটা। ক্রিকেটে অধিনায়কই সর্বেসর্বা—এই নীতির আলোকে আম্পায়ারের হাতে কার্ড না দিয়ে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে অধিনায়ককে ডেকে অভিযুক্ত খেলোয়াড়কে মাঠ থেকে বেরিয়ে যেতে বলার আদেশ দেওয়ার। অপরাধের মাত্রা অনুযায়ী আম্পায়ার অভিযুক্ত খেলোয়াড়কে সতর্কবাণী, সাময়িক বহিষ্কারাদেশ, ম্যাচ থেকে বহিষ্কার, ৫ রান জরিমানাসহ শাস্তি আরোপ করতে পারবেন। এ প্রসঙ্গে এমসিসির ব্যাখ্যা, ‘আমাদের মনে হয়েছে, মাঠে খেলোয়াড়দের বিরূপ আচরণের একটা বিহিত করা দরকার। গবেষণায় উঠে এসেছে, তৃণমূল পর্যায়ে অনেক আম্পায়ার শুধু এ কারণেই খেলা পরিচালনা করা ছেড়ে দিচ্ছেন। আশা করা যায়, এই ক্ষমতা দেওয়ার পর তাঁরা আরো আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলা চালাতে পারবেন। একই সঙ্গে খেলোয়াড়রাও তাঁদের সমীহ করবে। ’ রান আউটের নিয়মে এসেছে খানিকটা সংস্কার। রান আউটের বেলায় ব্যাট দাগের ভেতরে পড়ার পর উঠে গেলে তখন যদি বলের আঘাতে বেলস পড়ে, তাহলে এত দিন আউট ঘোষণা করা হলেও অক্টোবরের প্রথম তারিখ থেকে এ পরিস্থিতিতে আর আউট হবেন না ব্যাটসম্যান।

২০০০ সালে প্রণয়ন করা হয়েছিল ক্রিকেটের আচরণবিধি। সেখানে ক্রিকেটারকে ইংরেজি পুংবাচক শব্দ ‘হি’ দিয়েই সম্বোধন করা হয়েছে। নতুন বিধিমালায় লিঙ্গসমতা এনে ‘হি/শি’ উল্লেখ করা হবে। তবে ‘ব্যাটসম্যান’ বদলে ‘ব্যাটসউওম্যান’ হচ্ছে না, কারণ হিসেবে এমসিসি বলছে, ‘খেলার এই পরিভাষাটি মেয়েদের জন্যও সমানভাবে প্রযোজ্য হবে। ’ মেইল, ক্রিকইনফো


মন্তব্য