kalerkantho


হকিতে অঙ্ক মেলানোর ম্যাচ

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : আগের দুই ম্যাচে একরকম প্রত্যাশিত ফলই হয়েছে। বাংলাদেশ যেমন চেয়েছিল, হয়েছেও তা-ই। এই প্রথম স্বাগতিকদের প্রত্যাশা কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে যাচ্ছে ওমানের বিপক্ষে। এই ম্যাচের ওপরই বাংলাদেশের ওয়ার্ল্ড হকি লিগে (দ্বিতীয় রাউন্ডে) সেমিফাইনালে পৌঁছানোর ভাগ্য নির্ভর করছে।

প্রথম ম্যাচে প্রত্যাশা বলতে শক্তিশালী মালয়েশিয়ার কাছে হার ছাড়া কিছুই ভাবেনি, হেরেছেও স্বাগিতকরা। পরের ম্যাচে প্রত্যাশা অনুযায়ী গোল উৎসব করেছে ফিজির পোস্টে। তবে আজ ওমানের বিপক্ষে তৃতীয় ম্যাচে জয়ের প্রত্যাশা থাকলেও মেটানো বড় কঠিন। বাংলাদেশ দলের কোচ অলিভার কার্টজের মূল্যায়নে, ‘ওমান গত কয়েক বছরে ভালো উন্নতি করেছে, ফিজির সঙ্গে তারা ভালো ম্যাচ খেলেছে। তাদের সঙ্গে আমাদের ম্যাচটি খুব প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে এবং আমরা তৈরি এ জন্য। ’ ইতিহাসও বলছে, এই ম্যাচে চাওয়া-পাওয়ার হিসাব সব সময় মেলে না। এ পর্যন্ত ওমানের বিপক্ষে ছয় ম্যাচের লড়াইয়ে বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র দুটি, হেরেছে তিনটি এবং একটি ড্র।

গত বছর সর্বশেষ ম্যাচটি ঢাকায় গোলশূন্য ড্র হয়েছিল। শক্তির যোগ-বিয়োগে বাংলাদেশ আর ওমান খুব কাছাকাছি। তাই ওমানও চাইছে স্বাগতিকদের হারিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপের দুয়ার খুলতে। বাংলাদেশের হিসাবও একই, আজকের ম্যাচ জিতলে তারা গ্রুপ রানার্স-আপ হবে। তাতে করে কোয়ার্টার ফাইনালে পাবে সহজ প্রতিপক্ষ। ঘানাই হতে পারে সেই দল। তাদের হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠার অঙ্কটা আগেই কষে রেখেছিলেন জার্মান কোচ।

তবে ম্যাচের আগে বাংলাদেশ একটু সুবিধাজনক জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে এই জার্মান কোচের কারণে। ‘আগে ওমানের হেড কোচ ছিলাম বলে আমার একটু সুবিধা আছে। তাদের প্রত্যেক খেলোয়াড় সম্পর্কে আমার ভালো জানা আছে। তারা খুব ভালো পেনাল্টি কর্নারে, এ ব্যাপারে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। আমার বিশ্বাস, আমার খেলোয়াড়রা আত্মবিশ্বাস নিয়ে গতিময় হকি খেললে ম্যাচ জেতার ভালো সুযোগ আছে’, জেতার ব্যাপারে আশাবাদী অলিভার। তাঁর অধীনে বাংলাদেশ এএইচএফ কাপ হকি টুর্নামেন্ট জিতেছে কিছুদিন আগে। তারুণ্য আর অভিজ্ঞতার মিশেলে এই দলটি ইউরোপিয়ান স্টাইলে খেলার চেষ্টা করছে।  তবে পেনাল্টি কর্নারের গোল নিয়ে একটু সমস্যা হচ্ছে। মামুনুর রহমান ফিজির বিপক্ষে পিসি থেকে দুটি গোল করলেও অন্য দুই ফ্লিকার আশরাফুল-খোরশেদ প্রত্যাশা অনুযায়ী সাড়া দিতে পারেননি। বাংলাদেশ কোচ মনে করেন, ‘সব আস্তে আস্তে ঠিক হয়ে যাবে। ওমান যতই ৪-৪-২ ফরমেশনে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করুক, আমাদেরও কিছু কৌশল আছে। আমার ছেলেরা ট্যাকটিক্যালি খেলে ম্যাচ বের করে আনবে। ’


মন্তব্য