kalerkantho


ইব্রাহিমোভিচের ৩২

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ইব্রাহিমোভিচের ৩২

তিনি সাফল্যের ফেরিওয়ালা। যে দেশেই যান সাফল্য লুটায় পায়ে এসে।

ব্যতিক্রম হলো না ইংল্যান্ডও। পিএসজি ছেড়ে ম্যানইউতে যোগ দেওয়ার প্রথম মৌসুমেই জিতলেন লিগ কাপ। মর্যাদার লিগ কাপ ফাইনালে গোলও করেছেন দুটি। তাতে পাঁচ দেশের ক্লাবে খেলে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের মর্যাদার শিরোপা এখন ৩২টি। এমনি এমনি তো ম্যানইউর দায়িত্ব নিয়ে ইব্রাকে দলে ভেড়াননি হোসে মরিনহো।

মালমো ছেড়ে ২০০১ সালে যোগ দিয়েছিলেন নেদারল্যান্ডসের আয়াক্সে। প্রথম মৌসুমেই জেতেন ডাচ লিগের শিরোপা। ২৪ ম্যাচে তাঁর গোল ছিল ৬টি। সেই মৌসুমেই জিতেন ডাচ কাপ ও ডাচ সুপার কাপ।

২০০৩-০৪ মৌসুমে আরো একবার লিগ শিরোপা জিতে পাড়ি জমান জুভেন্টাসে। সেখানেও প্রথম মৌসুমে ১৬ গোল করে সিরি ‘এ’ এনে দেন জুভেন্টাসকে। পরের মৌসুমেও জিতেছিলেন শিরোপাটা। তবে ম্যাচ পাতানো কেলেংকারিতে দুটো শিরোপাই হারায় তারা।

জুভেন্টাস ছেড়ে ২০০৬ সালে ইব্রা ইন্টার মিলানে যোগ দেয়ার পরও প্রথম মৌসুমে জিতেছিলেন সিরি ‘এ’। শুধু তাই নয় টানা তিন মৌসুম হাতছাড়া হয়নি এটা। পাশাপাশি ২০০৬ ও ২০০৮ সালে জিতেন ইতালিয়ান কাপও। গার্দিওলার সঙ্গে দ্বন্দ্বে বার্সেলোনায় থাকা হয়নি বেশিদিন। তবে যোগ দেয়ার প্রথম মৌসুমেই (২০০৯-১০) জিতেছিলেন লা লিগা। দুটি স্প্যানিশ সুপারকাপের পাশাপাশি আছে একটি করে উয়েফা সুপার কাপ আর ক্লাব বিশ্বকাপ। ২০১০ সালে এসি মিলানে যোগ দিয়ে প্রথম মৌসুমেই জিতেছিলেন সিরি ‘এ’ ও ইতালিয়ান কাপ। এরপর পিএসজিতে টানা চারটি লিগ ওয়ানের শিরোপার পাশাপাশি ফ্রান্সের মর্যাদার অন্য ট্রফিগুলোও একাধিকবার। গত বছর ম্যানইউতে যোগ দিয়ে প্রথম মৌসুমটা স্মরনীয় করলেন লিগ কাপ জিতে। ডেইলি মেইল


মন্তব্য