kalerkantho


চ্যাম্পিয়নরা এমনই হয়!

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চ্যাম্পিয়নরা এমনই হয়!

২০১৬ সালজুড়ে মাত্র দুটি ম্যাচ হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। অথচ নতুন বছরের শুরুতেই কী যাচ্ছেতাই অবস্থা! দুই মাস পেরোয়নি এখনো, এরই মধ্যে হেরে গেছে তিন ম্যাচ। এখানেই শেষ নয়। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে পরশু চতুর্থ হারের মুখে পড়ে জিনেদিন জিদানের দল। ম্যাচের এক ঘণ্টা শেষে, আধ ঘণ্টা বাকি থাকতে রিয়াল যে পিছিয়ে ছিল ০-২ গোলে! কিন্তু ওই অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ঠিকই জয় ছিনিয়ে আনে তারা। তাতেই লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের আগাম সৌরভ পাচ্ছে তারা। তা এক ম্যাচ কম খেলে বার্সেলোনার চেয়ে ১ পয়েন্টে এগিয়ে যাওয়ার কারণে যতটা না, এর চেয়ে ঢের বেশি পরশু অমন অবিশ্বাস্যভাবে ম্যাচ জেতার কারণে।

গত বছর জিদানের দল ছিল অজেয় এক ফুটবলীয় শক্তি। তা আবার সৌন্দর্যের সঙ্গে আপস না করেই। কিন্তু এ বছর বড্ড অধারাবাহিক তারা। খেলায়ও নেই পুরনো ছন্দ।

পরশু অবশ্য ১১৬ দিন পর ‘বিবিসি’ ত্রয়ী ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, গ্যারেথ বেল ও করিম বেনজিমাকে একাদশে নামাতে পারেন জিদান। আর ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই রিয়াল জানে ম্যাচটির গুরুত্ব। আগের রাউন্ডে ভ্যালেন্সিয়ার কাছে হেরেছে তারা। আর এ রাউন্ডেও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা নিজেদের ম্যাচ জিতেছে আতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে। পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষস্থানের দখলও নেয় লুইস এনরিকের দল। তা পুনরুদ্ধারে এবং ২০১১-১২ মৌসুমের পর লিগ জয়ের স্বপ্ন জোরালো করতে পরশু জয়ের বিকল্প ছিল না রিয়াল মাদ্রিদের।

সেই জয় পায় তারা উত্তেজনার বারুদ ঠাসা এক আগুন ম্যাচে। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১১ মিনিটেই দুই গোল দিয়ে বসে ভিয়ারিয়াল। তাতে শুধু স্বাগতিক সমর্থকরা নয়, বার্সেলোনা ভক্তরাও নেচে ওঠেন খুশিতে। এ মৌসুমে লিগের আগের ২৩ ম্যাচে মাত্র ১৫ গোল খেয়েছে ভিয়ারিয়াল। নিজেদের মাঠে শেষ আধঘণ্টায় নিশ্চয়ই তিন গোল খেয়ে বসবে না!

কিন্তু হলো যে ঠিক তা-ই। রিয়াল মাদ্রিদ ম্যাচে ফেরে চ্যাম্পিয়নের মতো। ৬৪ মিনিটে গ্যারেথ বেলের গোলে খুঁজে পায় প্রত্যাবর্তনের পথ। সাত মিনিট পর রেফারি গিল মানজানো বাজান পেনাল্টির বাঁশি। বক্সের মধ্যে ব্রুনো সোরিয়ানোর হাতে বল লাগে ঠিকই, তবে তা অনিচ্ছাকৃত বলে পেনাল্টির প্রতিবাদ জানায় ভিয়ারিয়াল। কাজ হয়নি তাতে। ১২ গজ দূর থেকে ঠিকই বলকে জালে পাঠিয়ে খেলায় সমতা ফেরান রোনালদো। লা লিগার ইতিহাসে পেনাল্টি থেকে সবচেয়ে বেশি গোল এখন এই পর্তুগিজের। রিয়ালের আরেক কিংবদন্তি হুগো সানচেসের ৫৬ গোল পরশু পেরিয়ে যান তিনি। আরো একটি রেকর্ড অবশ্য হয়ে গেছে প্রথম গোলে। এ নিয়ে টানা ৪৪ ম্যাচে গোল করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। টানা ম্যাচ গোল করায় ১৯৪২-৪৩ এবং ১৯৪৩-৪৪ সালের বার্সেলোনার রেকর্ড ছুঁয়েছে তারা।

কিন্তু এসব রেকর্ডের কথা তখন ভাবার সময় কই রোনালদো ও তাঁর সতীর্থদের! হন্যে হয়ে জয়সূচক গোল খুঁজছিলেন সবাই। দেখা পেয়ে যান ৮৩তম মিনিটে। দুর্দান্ত কাউন্টার অ্যাটাকের পরিণতিতে মার্সেলোর ক্রসে আলভারো মোরাতার হেডে জয়ের আনন্দে ভেসে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। ২৩ ম্যাচে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে সবার ওপরে তারা। এক ম্যাচ বেশি খেলে পরের জায়গাগুলোয় বার্সেলোনা (৫৪), সেভিয়া (৫২) এবং আতলেতিকো মাদ্রিদ (৪৫)।

ইতালিয়ান লিগে পরশু মহারণে মুখোমুখি হয় ইন্টার মিলান-রোমা। যেখানে ৩-১ গোলের জয় পেয়েছে রোমা। এই জয়ে শীর্ষে থাকা জুভেন্টাসের সবচেয়ে কাছাকাছিই রইল তারা। ২৬ ম্যাচে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে। জুভদের পয়েন্ট আরো সাত বেশি। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে বড় ম্যাচে প্যারিস সেন্ত জার্মেই ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে মার্সেইকে। তাতে লিগ শিরোপার ত্রিমুখী লড়াই জমে উঠেছে আরো। ৬২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে মোনাকো। ৩ পয়েন্ট পেছনে পিএসজি ও নিস। ইংলিশ লিগে পরশু টটেনহাম হটস্পার ৪-০ গোলে হারিয়েছে স্টোক সিটিকে। হ্যাটট্রিক করেন হ্যারি কেন, অন্য গোলটি ডেল্লে আলির। এই জয়ে টটেনহাম উঠে আসে দ্বিতীয়তে; অবশ্য চেলসি এগিয়ে রয়েছে ১০ পয়েন্টে। এএফপি, মার্কা


মন্তব্য