kalerkantho


স্প্যানিশ লিগে চতুর্মুখী শিরোপা-লড়াই!

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



স্প্যানিশ লিগে চতুর্মুখী শিরোপা-লড়াই!

স্প্যানিশ লা লিগার এই ‘দুর্নাম’টা চিরকালের—কেবল রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার মধ্যেই সীমিত থাকে শিরোপা লড়াই। এই মৌসুমে অন্তত সেই অপবাদ দেওয়া যাবে না।

না হয় রিয়াল এখনো খানিক এগিয়ে, তবে টেবিলশীর্ষে তো ওলটপালট হয়ে যেতে পারে যেকোনো মুহূর্তে।

রিয়াল বেতিসের সঙ্গে সেভিয়ার ম্যাচটি হয়ে গেছে কাল রাতে। তাতে জিতলে ২৪ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট হবে সেভিয়ার। ২২ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গী হবে তারা। কিন্তু স্বস্তির শ্বাস ফেলার সুযোগ কই! ২৩ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে বার্সেলোনা যে নিঃশ্বাস ফেলবে ঘাড়ে। আজ আতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে মহারণ তাদের। জিতলে লুইস এনরিকের দল এককভাবে উঠে যাবে টেবিলশীর্ষে। অন্তত কিছু সময়ের জন্য হলেও। কারণ রিয়াল মাদ্রিদের আজকের ম্যাচের আগেই মাঠে নামবে বার্সা।

ওদিকে আতলেতিকো যদি হারিয়ে দিতে পারে বার্সাকে, তাহলে শিরোপা লড়াইয়ে প্রবল প্রত্যাবর্তন হবে তাদেরও। ২৪ ম্যাচে ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের চার পয়েন্টের মধ্যে চলে আসবে ডিয়েগো সিমিওনের দল।

এই জটিল সমীকরণ মেলানোর স্বপ্ন বার্সা, আতলেতিকো, সেভিয়া—তিনটি দলই দেখছে সর্বশেষ রাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদের হারের কারণে। ভ্যালেন্সিয়ার কাছে জিনেদিন জিদানের দলের হার যেন খুলে দিয়েছে অন্যদের স্বপ্নদুয়ার। তবে ম্যাচ কিন্তু এখনো একটি কম খেলেছে তারা। আর আজ ভিয়ারিয়ালকে হারাতে পারলে অন্যদের ফলের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে না। স্বচ্ছন্দেই শীর্ষে থাকবে তখন রিয়াল মাদ্রিদ।

শিরোপা লড়াইয়ে এতগুলো দল থাকায় স্প্যানিশ লিগের প্রতিদ্বন্দ্বিতার মাত্রা বেড়েছে নিঃসন্দেহে। আতলেতিকো মাদ্রিদ কোচ সিমিওনে খুশি সে কারণে। যদিও রিয়াল-বার্সার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিতে আপত্তি নেই তাঁর, ‘লিগে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা অন্যদের চেয়ে এগিয়ে অবশ্যই। তবে প্রতিনিয়ত উন্নতি হচ্ছে স্প্যানিশ লিগের। বছর কয়েক আগে আমরা লিগ জেতায় এখন সেভিয়াও অমন সম্ভাবনার স্বপ্ন দেখতে পারছে। ভিয়ারিয়াল এগোচ্ছে, ভ্যালেন্সিয়া ফিরেছে—সব মিলিয়ে এটি দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লিগ। ’ লিগের গুণগানের পাশাপাশি আজকের ম্যাচের প্রতিপক্ষ বার্সেলোনাকেও প্রশংসায় ভাসিয়েছেন আতলেতিকো কোচ। আর তা চ্যাম্পিয়নস লিগে প্যারিস সেন্ত জার্মেইর কাছে ০-৪ গোলের হার সত্ত্বেও, ‘বার্সেলোনা গত এক দশক ধরে যেমন খেলছে, তেমনটা খেলা কঠিন। এখনকার কোচ লুইস এনরিকের অধীনে ১২টি শিরোপা জিতেছে। প্যারিসে একটি খারাপ ম্যাচ খেলেছে তারা, যেমনটা হতে পারে যেকোনো দলের ক্ষেত্রে। এক ম্যাচের ফলে ওরা খারাপ দল হয়ে যায়নি। ’ প্রমাণ হিসেবে কোপা দেল রের সেমিফাইনালে দুই লেগ মিলিয়ে বার্সার কাছে ২-৩ গোলের হারকে উল্লেখ করেছেন সিমিওনে, ‘দুই ম্যাচের তিনটি অর্ধে আমরা অসাধারণ খেলেছি, তবু ওরা আমাদের কাপ থেকে ছিটকে দিল। অবশ্যই ওরা আমাদের চেয়ে ভালো দল। ’

ওদিকে রিয়াল মাদ্রিদ হঠাৎই যেন খেই হারিয়ে ফেলেছে। ২০১৬ সালজুড়ে মাত্র দুটি ম্যাচে হেরেছিল তারা, অথচ ২০১৭-র দুই মাস যেতে না যেতেই হার তিন ম্যাচে। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে আজ তাই জয়ের বিকল্প নেই। তবে কাজটি যে সহজ নয়, তা ভালোই জানা কোচ জিদানের, ‘বুধবার আমরা একটি সুযোগ হারিয়েছি। এখন আর সেটি নিয়ে ভেবে লাভ নেই। হারকে পিছু ফেলে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে খেলা নিয়ে ভাবছি। ওরা ভালো প্রতিপক্ষ, রক্ষণভাগ বেশ সংগঠিত। আর রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে খেলার সময় দল বেশি অনুপ্রাণিত থাকে। এই ব্যাপারটিও আমাদের মাথায় রাখতে হবে। ’ জিদানের জন্য আজ বাড়তি সুখবর হতে পারে গ্যারেথ বেলের একাদশে ফেরা। ইনজুরি থেকে ফিরে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমেছেন কয়েকবার। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচের আগে ওয়েলসের ফরোয়ার্ড পুরো ফিট আছেন বলে জানিয়েছেন রিয়াল কোচ, ‘ভারান ও দানিলো ছাড়া সবাই ফিট। বেল কয়েক দিন ধরেই দলের সঙ্গে অনুশীলন করছে। ও এখন শতভাগ ফিট। ’

বিবর্ণ ২০১৭ সালে এই সুখবরটাই হয়তো খুব বেশি প্রয়োজন রিয়াল মাদ্রিদের। এএফপি, মার্কা


মন্তব্য