kalerkantho


আশা বাঁচিয়ে রাখল লিস্টার

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আশা বাঁচিয়ে রাখল লিস্টার

না, জেতেনি লিস্টার সিটি। ঘরোয়া লিগের বাজে ফর্ম অব্যাহত রেখে চ্যাম্পিয়নস লিগেও ২-১ গোলে হেরে গেছে সেভিয়ার মাঠে। কিন্তু ২-০ হয়ে যাওয়ার পর জেমি ভার্ডির করা ওই একটি গোলই তাদের আশা দেখাচ্ছে। নিজেদের মাঠে স্প্যানিশ দলটিকে এখন ১-০ গোলে হারাতে পারলেই মহামূল্যবান ওই অ্যাওয়ে গোলের সুবাদে তারা উঠে যাবে কোয়ার্টার ফাইনালে। পোর্তোর মাঠ থেকে ২-০ গোলের জয় নিয়ে ফেরা জুভেন্টাসের শেষ আট অবশ্য ফিরতি লেগের আগেই অনেকখানি নিশ্চিত।

ইংলিশ চ্যাম্পিয়নদের চ্যাম্পিয়নস লিগের শুরুটাও হয়েছে রূপকথার মতো। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ওঠে তারা শেষ ষোলোতে। কিন্তু এর মধ্যেই লিগ শিরোপা ধরে রাখার মিশনে তারা তল হারিয়েছে। স্পেনে প্রথম লেগ খেলতে যাওয়ার আগে লিগে তাদের অবস্থান অবনমন অঞ্চল থেকে মাত্র এক ধাপ ওপরে। লিস্টারকে নিয়ে তাই প্রত্যাশাও ছিল না। সেভিয়া ১৪ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত কার্লোস কোরেইয়া পেনাল্টি মিস না করলে।

কিন্তু ২৫ মিনিটে পাবলো সারাবিয়ার হেডে লিস্টারের প্রতিরোধ আর টেকেনি। দ্বিতীয়ার্ধে সফরকারীরা যখন কিছুটা গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টায় তখনই আবার কোরেইয়া নিজের পেনাল্টি মিসের দায় মিটিয়েছেন স্কোর ২-০ করে। লিস্টার তবু লড়াই ছাড়েনি, তারই পুরস্কার ভার্ডির গোল। ড্যানি ড্রিংকওয়াটারের ক্রসে ছুটে এসে বল পোস্টে পুরে দিয়েছেন ইংলিশ স্ট্রাইকার। গত ডিসেম্বরের পর ভার্ডির যা প্রথম গোল। ম্যাচের তখন ৭৩ মিনিট।

পোর্তোর মাঠে প্রায় ততক্ষণই গোলশূন্য স্কোর লাইন। অ্যালেক্স তেল্লেসের লাল কার্ডে স্বাগতিকরা ১০ জনের দলে পরিণত হলেও ম্যাচ গড়াতে থাকে ড্রয়ের দিকে। ৬৭ ও ৭৩ মিনিটে দুটি বদল এনেছিলেন ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি। হুয়ান কোয়াদ্রাদোর জায়গায় নামেন ফরোয়ার্ড মার্কো পিয়াকা, লিচস্টেইনারের জায়গায় দানি আলভেস। ৭২ মিনিটে পিয়াকা আর ৭৪ মিনিটে আলভেসের পর পর দুই গোলেই ম্যাচ ঘুরিয়ে ফেলে জুভেন্টাস।

পরশু চ্যাম্পিয়নস লিগের রাতেই ইউরোপা লিগের শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ঘরের মাঠে ৩-০তে জেতার পর সেন্ত এতিয়েনের মাঠে কোনো নাটকীয়তা নয়। ১৬ মিনিটে হেনরিখ মিখিতারিয়ানের একমাত্র গোলে ম্যাচ জিতে বেরিয়ে এসেছে রেড ডেভিলরা। হোসে মরিনহোর কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলেছেন অবশ্য মিখিতারিয়ানই, চোট পেয়ে ২৫ মিনিটেই যে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হয়েছে তাঁকে। এএফপি।


মন্তব্য