kalerkantho


ফুটবলের ‘বোল্ট’ বেল

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ফুটবলের ‘বোল্ট’ বেল

শুধু দৌড়ালেই ভালো ফুটবলার হয় না। তাহলে তো ‘দৌড়ে পটু’ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলগুলোই সব সময় জিতত চ্যাম্পিয়নস লিগ।

তার পরও ফুটবলে গতির একটা মাহাত্ম্য আছে। এই গতির দৌড়ে ফুটবলের ‘বোল্ট’ এখন গ্যারেথ বেল। মেক্সিকান ক্লাব সি এফ পাচুকা গত বছর ফুটবলারদের বল নিয়ে দৌড়ের ওপর করেছে বিশেষ গবেষণা। তাতেই ঘণ্টায় ৩৬.৯০ কিলোমিটার গতিতে দৌড়ে সবাইকে পেছনে ফেলেছেন বেল। সেরা দশে সবচেয়ে বেশি চার ফুটবলার প্রিমিয়ার লিগের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ তিনজন লা লিগার। আর একজন করে জার্মান, ব্রাজিল ও মেক্সিকান লিগের।

একটা সময় ১১.০৪ সেকেন্ডে ১০০ মিটার স্প্রিন্ট শেষ করেছিলেন বেল। তাঁর দ্রুততম ফুটবলার হওয়াটা অপ্রত্যাশিত নয়।

তবে এ তালিকার ১০ নম্বরে গতি হারানো ওয়েইন রুনির নাম দেখে বিস্মিত খোদ ইংলিশ মিডিয়া। ‘দ্য সান’ লিখেছে, ‘আগামী মৌসুমে হয়তো চীনে দেখা যাবে সেরা সময় পেছনে ফেলে আসা রুনিকে। ছুটিতে সিগারেট আর ওয়াইন এখন তাঁর সঙ্গী। সেই রুনির ১০ নম্বরে থাকাটা বিস্ময়ের। ’ গত বছর ঘণ্টায় রুনির গতি ছিল ৩১.২০ কিলোমিটার। গতির দৌড়ে দ্বিতীয় স্থানে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব ফ্লামেঙ্গোয় খেলা কলম্বিয়ান তরুণ ওরলান্দো বেরিও। তাঁর গতি ঘণ্টায় ৩৬ কিলোমিটার। অ্যাতলেতিকো ন্যাশিওনাল থেকে কিছুদিন আগে ৩.২৭ মিলিয়ন ইউরোয় তাঁকে কিনেছে ফ্লামেঙ্গো। নতুন এই গবেষণা বলছে টাকাটা জলে ফেলেনি ব্রাজিলিয়ান দলটি। মেক্সিকান লিগের টাইগার্সে খেলা ইয়ুর্গেন ডাম তিন, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়া চার আর বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের পিয়েরে এমেরিক অবামায়েং এই তালিকায় রয়েছেন পাঁচ নম্বরে।

বাদ যাননি ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো আর লিওনেল মেসিও। রোনালদো সাত আর মেসি আছেন ৯ নম্বরে। গত মৌসুমে পর্তুগালকে ইউরো আর রিয়ালকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানো রোনালদোর গতি ঘণ্টায় ৩৩.৬০ কিলোমিটার। রেকর্ড পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি গত বছর দৌড়েছেন ঘণ্টায় ৩২.৫০ কিলোমিটার গতিতে। মার্কা


মন্তব্য