kalerkantho


পাঁচ মিনিটে হ্যাটট্রিক গ্যামেইরোর

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পাঁচ মিনিটে হ্যাটট্রিক গ্যামেইরোর

স্পেনের ‘পুঁচকে’ দল গ্রেনাদা। কোপা দেল রে’তে ১৯৫৮-৫৯ মৌসুমে রানার্স-আপ হওয়াটাই তাদের সেরা অর্জন।

এবারের লা লিগাতেও তারা আছে অবনমন শঙ্কায়। সেই গ্রেনাদা নতুন ইতিহাস গড়ল গত পরশু। লা লিগার প্রথম দল হিসেবে তারা ইতিহাস গড়েছে আলাদা ১১ দেশের ১১ জনকে নিয়ে প্রথম একাদশ গড়ে! সেই দল নিয়ে গত পরশু রিয়াল বেতিসকে হারিয়েছে ৪-১ গোলে। অপর ম্যাচে গতকাল ১-৪ ব্যবধানে স্পোর্তিং গিহনকে হারিয়ে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। কেভিন গ্যামেইরোর  পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে করা হ্যাটট্রিকে পাওয়া এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের চতুর্থস্থানটা সুংসংহত করেছে তারা। ৮০, ৮১ ও ৮৫ মিনিটে তিন গোল করে লা লিগার ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম হ্যাটট্রিক করেন তিনি। ইতালিয়ান সিরি ‘এ’তে জুভেন্টাস ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছে পালেরমোকে। এই জয়ে সিরি ‘এ’তে দ্বিতীয় স্থানে থাকা রোমার চেয়ে ১০ পয়েন্টে এগিয়ে গেল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে শীর্ষে থাকা মোনাকো অবশ্য হোঁচট খেয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লিগে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হওয়ার আগে গত পরশু মোনাকো ১-১ গোলে ড্র করেছে বাস্তিয়ার সঙ্গে।

লা লিগায় গ্রেনাদার একাদশ থেকে চমকে উঠেছিলেন সবাই। ঐতিহ্যবাহী এই লিগের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো আলাদা ১১ দেশের ১১ জনকে নিয়ে একাদশ গড়েছিল তারা। এর সাতজনই আবার ধারে আনা খেলোয়াড়! সেই ১১ জন গুইলের্মো ওচোয়া (মেক্সিকো), আদ্রিয়ান রামোস (কলম্বিয়া), ইঙ্গি ইনগাসন (আইসল্যান্ড), গ্যাস্তন সিলভা (উরুগুয়ে), মার্তিন হঙ্গলা (ক্যামেরুন), মুবারক ওয়াকাসু (ঘানা), আন্দ্রেয়া পাহেইরা (ব্রাজিল), দিমিদ্রি ফলকুয়ের (ফ্রান্স), উচে আগবু (নাইজেরিয়া), মেহেদি কারসেলা গনজালেস (মরক্কো) ও হেক্তর হার্নান্দেস (স্পেন)। ৬৬ মিনিটে দুই দলের দুজন লাল কার্ড দেখলে ১০ জনের দলে পরিণত হয়েছিল দুদল। তবে প্রথম ৩৩ মিনিটে ৩-০ গোলে এগিয়ে থাকায় গ্রেনাদা মাঠ ছাড়ে ৪-১ ব্যবধানের জয়ে। এই মৌসুমে ২৩ ম্যাচে এটা মাত্র তৃতীয় জয় গ্রেনাদার। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ২০ দলের মধ্যে তারা আছে ১৯ নম্বরে। তবে বড় ব্যবধানের জয়ে অবনমনের অঞ্চল থেকে বেরিয়ে আসার আত্মবিশ্বাস পেতেই পারে গ্রেনাদা।

ইতালিয়ান সিরি ‘এ’তে চার বছর পালেরমোয় কাটিয়েছিলেন পাওলো দিবালা। ২০১৫ সালে এই আর্জেন্টাইন যোগ দেন জুভেন্টাসে। নিজেদের পুরনো সেই খেলোয়াড়ের আগুনেই গত পরশু পুড়ল পালেরমো। তাঁর দুই গোল আর একটি অ্যাসিস্টেই জুভেন্টাস জিতেছে ৪-১ গোলে। দিবালা গোল দুটি করেন ৪০ ও ৮৯ মিনিটে। ২৫ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রইল জুভেন্টাস। গোল ডটকম


মন্তব্য