kalerkantho


তাহিরের ঘূর্ণিতে নাকাল নিউজিল্যান্ড

7   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



তাহিরের ঘূর্ণিতে নাকাল নিউজিল্যান্ড

ইমরান তাহির নিয়েছেন ৫ উইকেট, তাতেই অকল্যান্ডে সিরিজের একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৭৮ রানের বড় জয় দক্ষিণ আফ্রিকার।

নিউজিল্যান্ড সফরে কোনো ম্যাচ জিততে পারেনি বাংলাদেশ, এরপর অস্ট্রেলিয়াও ব্ল্যাকক্যাপদের সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজটা হেরে এসেছে ২-০ ব্যবধানে। নিজেদের দেশে টানা জয়ের ধারায় থাকা কিউইদের মাটিতে টেনে নামাল দক্ষিণ আফ্রিকা।

বলা ভালো, একাই তাদের ঘূর্ণিতে নাকাল করলেন ইমরান তাহির। এই লেগ স্পিনার নিয়েছেন ৫ উইকেট, তাতেই অকল্যান্ডে সিরিজের একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৭৮ রানের বড় হার স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের।

ইডেন পার্কে টস জিতে বোলিং নিয়েছিলেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। দ্বিতীয় ওভারেই কুইন্টন ডি কককে তুলে নিয়ে অধিনায়কের সম্মানটা রেখেছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। গোটা ম্যাচে একমাত্র বোল্টই নামের প্রতি করেছেন সুবিচার, ৪ ওভারে মাত্র ৮ রান দিয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। কিন্তু বাকিদের অবস্থা করুণ! বেন হুইলার, মিচেল স্যান্টনার, টিম সাউদিরা সবাই ওভারপ্রতি গড়ে রান দিয়েছেন দশেরও বেশি। হাশিম আমলা টি-টোয়েন্টিতেও ব্যাকরণ মেনে সফল, কাল খেললেন ৯ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় ৪৩ বলে ৬২ রানের  চমৎকার ইনিংস। সঙ্গে ফাফ দু প্লেসির ২৫ বলে ৩৬, এবি ডি ভিলিয়ার্সের ১৭ বলে ২৬ ও জেপি দুমিনির ১৬ বলে ২৯ রানের ইনিংসে ভর করে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৮৫ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে প্রোটিয়ারা। বোল্ট ছিলেন মিতব্যয়ী, ২৪ বলের ১৬টিই ছিল ডট।

কিন্তু অন্যরা ছিলেন খরুচে, কেবল কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ৩ ওভারে ২২ রানে ২ উইকেটই কিছুটা ভারমুক্ত রেখেছিল উইলিয়ামসনকে।

ব্যাটিংটাও জুতসই হয়নি ব্ল্যাকক্যাপদের। অভিষিক্ত গ্লেন ফিলিপ মাত্র ৫ রানেই ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে। উইলিয়ামসন ১৩ রানে আউট ফুলেকেওর বলে। প্রথম বলেই আউট কলিন মুনরো। ক্রিস মরিস আর আন্দিলে ফুলেকেও ঝটকা দিয়েছেন টপ অর্ডারকে, এরপর বাকি কাজটা সেরেছেন ইমরান তাহির। প্রথম শিকার টম ব্রুস, এরপর একে একে গ্র্যান্ডহোম, লুক রঙ্কি, হুইলার ও সাউদি। ৩ ওভার ৫ বলে মাত্র ২৪ রান খরচায় ৫ উইকেট শিকার এই লেগ স্পিনারের। নিউজিল্যান্ড ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় অনেক আগেই, টম ব্রুসের ৩৩ রানের ইনিংসটাই ছিল তাদের সর্বোচ্চ, যা যথেষ্ট ছিল না ১৮৬ রান তাড়া করায়। ১৪ ওভার ৫ বলে ১০৭ রানেই গুটিয়ে যায় নিউজিল্যান্ড, হেরে যায় ৭৮ রানে। জয়ের পর দু প্লেসি দলের সবাইকেই কৃতিত্ব দিলেন টানা পাঁচ-ছয় মাস ধরে দল হিসেবে ভালো খেলে আসার জন্য, আর উইলিয়ামসন মেনে নিলেন প্রতিপক্ষের শ্রেষ্ঠত্ব, ‘তারা সব বিভাগেই ভালো খেলেছে, আমাদের পারফরম্যান্স ছিল খুবই হতাশাজনক। আমরা জেতার মতো কোনো জায়গাতেই যেতে পারিনি। ’

একটাই মাত্র টি-টোয়েন্টি বলে হতাশাটা ঝেড়ে ফেলতে পারেন উইলিয়ামসন। ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে ৫ ওয়ানডের সিরিজ, এরপর ৩টি টেস্ট। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েই প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে পা রাখা নিউজিল্যান্ডের, সেই প্রেরণায় নিশ্চয়ই ওয়ানডেটা ভালো খেলবে তারা! ক্রিকইনফো

দক্ষিণ আফ্রিকা : ১৮৫/৬ (আমলা ৬২, দু প্লেসি ৩৬; বোল্ট ২/৮)।

নিউজিল্যান্ড : ১৪.৫ ওভারে ১০৭ (ব্রুস ৩৩, সাউদি ২০; তাহির ৫/২৪)।

ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ৭৮ রানে জয়ী।

 


মন্তব্য