kalerkantho


ম্যানইউর ইব্রার প্রথম হ্যাটট্রিক

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ম্যানইউর ইব্রার প্রথম হ্যাটট্রিক

লিগ ওয়ানে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের প্রিয় প্রতিপক্ষের একটি ছিল সেন্ত এতিয়েঁ। ১৩ ম্যাচে ১৪ গোল ছিল তাঁর দলটির বিপক্ষে। ইউরোপা লিগে সেই এতিয়েঁকে আবার সামনে পেয়ে পরশু ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে প্রথম হ্যাটট্রিকও করে ফেলেছেন তিনি। শেষ বত্রিশে প্রথম লেগের লড়াইটাও ম্যানইউ জিতেছে ৩-০ গোলে। ফ্রান্সে ফিরতি লেগের আগে শেষ ষোলোয় এক পা দিয়ে রাখল তারা বলাই যায়।

পল পগবা ও তাঁর বড় ভাই ফ্লোরেন্তিন পগবার প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হওয়ার উপলক্ষও ছিল এই ম্যাচ। তা ছাপিয়ে ইব্রাই থাকলেন আলোচনায়। যদিও তিনটি গোলের কোনোটিই আহামরি নয়। ১৫ মিনিটে তাঁর ফ্রিকিক প্রতিপক্ষের দেয়ালে লেগে দিক বদলে জালে ঢুকে যায়। ৭৫ মিনিটে মার্কাস রাশফোর্ডের পাসে একেবারে দাঁড়িয়ে থেকে বল পোস্টে ঠেলেছেন। ৮৮ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন পেনাল্টি থেকে।

মৌসুমে সুইডিশ স্ট্রাইকারের এটি অবশ্য ২৩তম গোল। যেখানে যে লিগেই যাচ্ছেন সফল হচ্ছেন সেখানেই, নিজেকে তাই অভিযানপ্রিয় চলচ্চিত্র চরিত্র ইন্ডিয়ানা জোনসের সঙ্গেই তাঁর তুলনা, ‘আমি ইন্ডিয়ানা জোনসের মতো, যেখানেই যাই সফল। ’

ইউরোপায় শেষ ষোলোয় ওঠার লড়াইয়ে ম্যানইউর পাশাপাশি এগিয়ে অ্যাথলেতিক বিলবাও, লিওঁ, ফিওরেন্তিনা, শাখতার দোনেত্স্ক, গেন্ট ও রোমা। রোমা ৪-০ গোলে ভিয়ারিয়ালকে, গেন্ট ১-০ গোলে টটেনহামকে, শাখতার ১-০ গোলে সেল্টা ভিগোকে, ফিওরেন্তিনা ১-০ গোলে বরুশিয়া মুনশেনগ্লাডবাখকে, লিওঁ ৪-১ গোলে এজেডকে ও বিলবাও ৩-২ গোলে হারিয়েছে অ্যাপোয়েল নিকোশিয়াকে। এএফপি


মন্তব্য