kalerkantho


বিসিএলে অভিজ্ঞদের দাপট

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বিসিএলে অভিজ্ঞদের দাপট

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জাতীয় দলে সমালোচকদের সহজ শিকার তিনি! সেই শুভাগত হোম আবার ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরমার। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) চলমান ম্যাচটি দেখুন। অফ স্পিনে ৬ উইকেট নিলেন প্রথম ইনিংসে, এরপর ব্যাটিংয়ে আট নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি। সেখানেই শেষ নয়। কাল বল হাতে দ্বিতীয় ইনিংসেও তাঁর ৪ শিকার। অর্থাৎ, প্রথম শ্রেণির ম্যাচটিতে সেঞ্চুরির পাশাপাশি ১০ উইকেট হয়ে গেল শুভাগতর। অথচ তাঁর দল ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল তবু খুব স্বস্তি নিয়ে আজ শেষ দিনে মাঠে নামতে পারবে না।

প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলকে ২৬০ রানে অলআউট করে নিজেরা প্রথম ইনিংসে করে ২৯৯। প্রথম ইনিংসে ৩৯ রানের লিড। কিন্তু কাল ফতুল্লার তৃতীয় দিনে ম্যাচে যে প্রবলভাবে ফেরে দক্ষিণাঞ্চল! অলআউট হওয়ার আগে স্কোরবোর্ডে জড়ো করে ৩১৭ রান। যে ইনিংসের শুরুর অক্সিজেন শাহরিয়ার নাফীসের ৭২ রান।

আর শেষে আবদুর রাজ্জাকের ঝোড়ো ব্যাটিং কীর্তি। মাত্র ৬১ বলে ৭৬ রান করেন তিনি। ২৩২ রানে ৮ উইকেট হারানোর পরও তাই দক্ষিণাঞ্চল যেতে পারে ৩১৭ পর্যন্ত। শুভাগত ও তাইবুর রহমানের ৪টি করে উইকেট শিকার সত্ত্বেও।

তাতে ২৭৮ রানের লিড পায় রাজ্জাকের দল। কাল শেষ বিকেলের চার ওভারের মধ্যে মুস্তাফিজুর রহমান ১ উইকেট তুলে নিয়ে খানিকটা বেকায়দায় ফেলে দেয় মধ্যাঞ্চলকে। আজ শেষ দিনে তারা ড্র নাকি জয়ের জন্য খেলবে—সেটিও দেখার।

বিসিএলের অন্য ম্যাচে এমন কোনো উত্তেজনার পূর্বাভাস নেই। নিশ্চিত ড্র হতে যাচ্ছে বিসিবি উত্তরাঞ্চল ও ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের খেলা। পূর্বাঞ্চল প্রথম ইনিংসে অলআউট হয় ৪৯০ রানে। জবাবে নাঈম ইসলামের অপরাজিত ৮৫ রানে ৬ উইকেটে ২৭৬ রানে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে উত্তরাঞ্চল। দুই দলের একটি করে ইনিংস শেষ হয়নি এখনো। এই ম্যাচের সম্ভাব্য ফল ড্র ছাড়া আর কী!

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

দক্ষিণাঞ্চল-মধ্যাঞ্চল : দক্ষিণাঞ্চল : ২৬০ এবং ৭৮ ওভারে ৩১৭ (রাজ্জাক ৭৬, শাহরিয়ার ৭২, তুষার ৪৪; তাইবুর ৪/৫২, শুভাগত ৪/৭৭)। মধ্যাঞ্চল : ২৯৯ এবং চার ওভারে ৭/১ (মুস্তাফিজ ১/১)।

পূর্বাঞ্চল-উত্তরাঞ্চল : পূর্বাঞ্চল : ৪৯০। উত্তরাঞ্চল : ৯৮ ওভারে ২৭৬/৬ (নাঈম ৮৫*; কাপালি ১/১৫)।


মন্তব্য